ঢাকা, জানুয়ারী ২২, ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » এক্সক্লুসিভ » পুত্রবধূকে ধর্ষণে, শ্বশুরকে গুলি করে হত্যা
সোমবার ● ৫ জুন ২০১৭, ৮ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

পুত্রবধূকে ধর্ষণে, শ্বশুরকে গুলি করে হত্যা

---বিবিসি২৪নিউজ,সেনাবাহিনীতে কর্মরত ছেলের অনুপস্থিতে তাঁর পুত্রবধূকে বারবার জোরপূর্বক ধর্ষণ ও হেনস্তা করছিলেন তাঁর স্বামী গুলবার খান। বেগম বিবির দাবি, পারিবারিক সম্পর্ককে অসম্মান করার জন্য এমন সাজা প্রাপ্য ছিল গুলবারের।পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ ছিল শ্বশুরের বিপক্ষে। বারবার সাবধান ও নিষেধ করা হয়েছিল। কিন্তু না শোনায় ঘুমন্ত স্বামীকে গুলি করে হত্যা করেন এক নারী। ওই নারীর নাম বেগম বিবি। পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়ার সংলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে স্বামীকে গুলি করার কথা গত শনিবার পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন ওই নারী।

পাখতুনখাওয়া আলপুরী পুলিশ সদর দপ্তরের ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট অব পুলিশ আমজাদ আলী খান জানান, গত বৃহস্পতিবার এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে স্বামীকে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছেন তাঁর স্ত্রী।

ওই নারীর স্বীকারোক্তিমূলক বিবৃতির বরাত দিয়ে আমজাদ আলী খান বলেন, ‘প্রায় নয় মাস আগে ওই দম্পতির ছেলের বিয়ে হয়। পরে তাঁর স্বামী পুত্রবধূকে জ্বালাতন করতেন এবং বারবার তাঁকে ধর্ষণ করেন।’

স্বামী অপরাধের কথা বর্ণনা করে ওই নারীর স্বীকারোক্তিতে আরও বলেন, ‘আমি বারবার বলার পরও তিনি যখন খারাপ অভ্যাস ছাড়েননি, তখন তাঁকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ ওই নারী আরও বলেন, তিনি তাঁর পুত্রবধূর সাহায্যে রাতে ঘুমিয়ে থাকা তাঁর স্বামীকে গুলি করে হত্যা করেন।

নির্যাতিতার স্বামী জানান, তিনি জানতেন তাঁর স্ত্রীর ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে। কিন্তু বাবাকে কিছু বলতে পারেননি। মাকে জানিয়েছিলেন, তিনি প্রশিক্ষণ থেকে ফিরে বাড়ি ছেড়ে চলে যাবেন। এর পরেই মা বেগম বিবি এ সিদ্ধান্ত নেন।

ওই নারী ও পুত্রবধূকে আদালত কারাগারে পাঠিয়েছেন। দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে ‘পারিবারিক সম্মান রক্ষার নামে হত্যা’র এ ঘটনা হঠাৎ ঘটলেও এমন নজির পাকিস্তানে বিরল।


হেফাজতের হুমকিতে সুলতানা কামাল, নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ

কাতারবিরোধী পদক্ষেপে বিশ্ব-নেতাদের প্রতিক্রিয়া


এ বিভাগের আরো খবর...

হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে স্বাস্থ্য পরিদর্শক নিহত হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে স্বাস্থ্য পরিদর্শক নিহত
টিভি পর্দায় আজকের খেলা টিভি পর্দায় আজকের খেলা
অপু বিশ্বাস এমপি হতে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন অপু বিশ্বাস এমপি হতে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন
আজ পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ আজ পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ
৩ মন্ত্রণালয়ে নতুন সচিব ৩ মন্ত্রণালয়ে নতুন সচিব
নাটোরে পৌর কাউন্সিলরকে কুপিয়ে হত্যা নাটোরে পৌর কাউন্সিলরকে কুপিয়ে হত্যা
আবারও ঢাকাই ছবিতে মুনমুন আবারও ঢাকাই ছবিতে মুনমুন
মেঘনায় ভেসে উঠল ২ লাশ মেঘনায় ভেসে উঠল ২ লাশ
টেকনাফে গ্রেপ্তার মাদক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত টেকনাফে গ্রেপ্তার মাদক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
ধর্ষণ মামলায় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ধর্ষণ মামলায় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

সর্বাধিক পঠিত

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস
বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা
রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা
বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ
প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায় প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায়
বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে