ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » বিদেশে অর্থ পাচার বন্ধ হচ্ছে না কেন?
বুধবার ● ১২ জুলাই ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

বিদেশে অর্থ পাচার বন্ধ হচ্ছে না কেন?

---মানুষ এখন অর্থকড়ি দেশীয় ব্যাংকে জমানোর গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশি ব্যাংকে রাখতে শুরু করেছে। বিশেষ করে দুর্নীতি, অবৈধ উপায়ে অর্জিত অর্থ অথবা কর ফাঁকি দেয়া অর্থ সরকার ও জনগণের কাছ থেকে গোপন রাখতে উন্নয়নশীল দেশের ব্যবসায়ী, রাজনীতিক, আমলা থেকে শুরু করে বিভিন্ন পেশার মানুষ নিজ দেশের বাইরে বিদেশি ব্যাংকে গচ্ছিত রাখে। বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও কথাটি প্রযোজ্য। এক্ষেত্রে অর্থ পাচারকারীদের প্রথম পছন্দ সুইজারল্যান্ডের ব্যাংক। সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুইস ন্যাশনাল ব্যাংকের (এসএনবি) সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে জানা যায়, সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। ২০১৬ সালে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের রাখা অর্থের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৬৮৫ কোটি টাকায়, যা আগের বছরের তুলনায় ২০ শতাংশ বা এক হাজার কোটি টাকা বেশি। এটা বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য একটি উদ্বেগজনক বিষয়। এ অর্থ দেশে থাকলে তা বিনিয়োগ হতে পারত বা বিভিন্ন উন্নয়নমুখী কর্মকাণ্ডে খাটানো যেত।
অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, অর্থ পাচার বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থ জমানোর প্রবণতার যোগসূত্র রয়েছে। কারণ আমরা দেখি, এ সময়ে বাংলাদেশ থেকে অর্থ পাচারের পরিমাণও বেড়েছে সমানতালে। কিছুদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গ্লোবাল ফিন্যান্সিয়াল ইন্টিগ্রিটির প্রতিবেদনে জানা যায়, ২০১৪ সালে বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ৩ হাজার কোটি টাকা পাচার হয়েছে, যা আগের বছরের তুলনায় ২৬ হাজার কোটি টাকা বেশি। পাচার হওয়া এই অর্থের পরিমাণ দেশের মোট বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির প্রায় সমান। এ অর্থ দিয়ে ৪টি পদ্মা সেতু নির্মাণ করা সম্ভব। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, আর্থিক ব্যবস্থাপনার দুর্বলতার কারণে এত বড় অংকের অর্থ পাচার রোধ করা সম্ভব হয়নি।
সাধারণত হুন্ডির মাধ্যমে কিংবা আন্ডার ইনভয়েসিং ও ওভার ইনভয়েসিংয়ের মাধ্যমে অর্থ পাচার করে থাকে অসাধু ব্যক্তিরা। এ তালিকায় ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা, সরকারের সাবেক ও বর্তমান আমলার নাম শোনা যায়। পাচারের অর্থ সুইস ব্যাংকসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে গচ্ছিত রাখেন তারা। তবে এক্ষেত্রে তাদের পছন্দের তালিকায় প্রথমে থাকে সুইস ব্যাংক। কারণ সুইস ব্যাংকে আমানতকারীর তথ্য গোপন রাখা হয়। অর্থ বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, অর্থ পাচার রোধ করতে না পারায় এমন অবস্থা তৈরি হয়েছে। তারা মনে করেন, বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ না হওয়া, দুর্নীতি বৃদ্ধি, বিদেশে নাগরিকত্ব নেয়াসহ নানা কারণে অর্থ পাচার বেড়েছে। ওভার ইনভয়েসিং কিংবা আন্ডার ইনভয়েসিংয়ের মাধ্যমে অসাধু ব্যবসায়ীরা রফতানি ও আমদানি পণ্যের মূল্য বেশি দেখিয়ে টাকা পাচার করেন বলে বাজারে যে জোরালো গুঞ্জন রয়েছে, তা অবশ্যই সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর খতিয়ে দেখা উচিত।


বিদায় নিলেন অ্যান্ডি মারেও

ইসির ১০টি শীর্ষ পদে রদবদলে ‘বিস্মিত’ নির্বাচন কমিশন


এ বিভাগের আরো খবর...

রোহিঙ্গা সংকট অবসানে ‘বলিষ্ঠ ও দ্রুত’ পদক্ষেপ নেন, জাতিসংঘকে-ট্রাম্প রোহিঙ্গা সংকট অবসানে ‘বলিষ্ঠ ও দ্রুত’ পদক্ষেপ নেন, জাতিসংঘকে-ট্রাম্প
মুন্সীগঞ্জে টেক্সটাইল মিলে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৬ মুন্সীগঞ্জে টেক্সটাইল মিলে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৬
কাভানিকে নেইমার! কাভানিকে নেইমার!
মন্ত্রী-ব্যবসায়ীদের তর্ক,কমছে চালের দাম মন্ত্রী-ব্যবসায়ীদের তর্ক,কমছে চালের দাম
কমেছে সোনার দাম কমেছে সোনার দাম
জাতির উদ্দেশ্যে ভাষন দেবেন-অং সান সুচি জাতির উদ্দেশ্যে ভাষন দেবেন-অং সান সুচি
সরকারি চাকরিজীবীরা পাবেন বিজয় দিবস ভাতা সরকারি চাকরিজীবীরা পাবেন বিজয় দিবস ভাতা
রিয়ালের বিশ্ব রেকর্ড রিয়ালের বিশ্ব রেকর্ড
মোদির জন্মদিন আনুশকাকে আমন্ত্রণ মোদির জন্মদিন আনুশকাকে আমন্ত্রণ
‘আতপ’চাল নিয়ে কেলেঙ্কারি? ‘আতপ’চাল নিয়ে কেলেঙ্কারি?

সর্বাধিক পঠিত

রোহিঙ্গা প্রশ্নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সবাই একমত: হাসিনা রোহিঙ্গা প্রশ্নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সবাই একমত: হাসিনা
ট্রাম্পকে মানসিক বিকারগ্রস্ত বললেন কিম জং উন ট্রাম্পকে মানসিক বিকারগ্রস্ত বললেন কিম জং উন
জানুয়ারি থেকে অবৈধ অভিবাসীদের ব্যাংক হিসাব জব্দ করবে যুক্তরাজ্য জানুয়ারি থেকে অবৈধ অভিবাসীদের ব্যাংক হিসাব জব্দ করবে যুক্তরাজ্য
হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষা করবে উত্তর কোরিয়া’ হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষা করবে উত্তর কোরিয়া’
রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসনে জাতিসংঘে ৬ প্রস্তাব তুললেন হাসিনা রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসনে জাতিসংঘে ৬ প্রস্তাব তুললেন হাসিনা
বাংলাদেশ সীমান্ত-সংলগ্ন বর্মী বাহিনীর আগুন, গুলি শব্দ বাংলাদেশ সীমান্ত-সংলগ্ন বর্মী বাহিনীর আগুন, গুলি শব্দ
মডেলিং থেকে জেএমবি মেহেদী হাসান মডেলিং থেকে জেএমবি মেহেদী হাসান
রোহিঙ্গা নিধনের নীলনকশা ১০ দিন আগেই চূড়ান্ত করে মিয়ানমার রোহিঙ্গা নিধনের নীলনকশা ১০ দিন আগেই চূড়ান্ত করে মিয়ানমার
জাতিসংঘের অধিবেশনে ট্রাম্পকে দুষ্টু ব্যক্তি’ বললেন-ইরানের প্রেসিডেন্ট জাতিসংঘের অধিবেশনে ট্রাম্পকে দুষ্টু ব্যক্তি’ বললেন-ইরানের প্রেসিডেন্ট
বান্দরবানে রেড ক্রিসেন্টের রোহিঙ্গা ত্রাণবাহী ট্রাক খাদে, নিহত ৯ বান্দরবানে রেড ক্রিসেন্টের রোহিঙ্গা ত্রাণবাহী ট্রাক খাদে, নিহত ৯
রোহিঙ্গা সংকট অবসানে ‘বলিষ্ঠ ও দ্রুত’ পদক্ষেপ নেন, জাতিসংঘকে-ট্রাম্প
মুন্সীগঞ্জে টেক্সটাইল মিলে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৬
কাভানিকে নেইমার!
মন্ত্রী-ব্যবসায়ীদের তর্ক,কমছে চালের দাম
কমেছে সোনার দাম
জাতির উদ্দেশ্যে ভাষন দেবেন-অং সান সুচি
সরকারি চাকরিজীবীরা পাবেন বিজয় দিবস ভাতা
রিয়ালের বিশ্ব রেকর্ড
মোদির জন্মদিন আনুশকাকে আমন্ত্রণ
‘আতপ’চাল নিয়ে কেলেঙ্কারি?