ঢাকা, নভেম্বর ২২, ২০১৭, ৮ অগ্রহায়ন ১৪২৪
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » ইসির সংলাপ,কতটুকু সফল হবে?
বুধবার ● ২ আগস্ট ২০১৭, ৮ অগ্রহায়ন ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

ইসির সংলাপ,কতটুকু সফল হবে?

---আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে রোডম্যাপের অংশ হিসেবে সংলাপ শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বিষয়টি ইতিবাচক বলা যায়। সোমবার সুশীল সমাজের সদস্যদের সঙ্গে সংলাপ করেছে কমিশন। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনা শেষে যেসব পরামর্শ পাওয়া যাবে সেগুলোর আলোকে ইতিবাচক পদক্ষেপ নেয়া হলে সবার আস্থা অর্জন করা কঠিন হবে না। সরকার, প্রশাসন, ইসি এবং সব রাজনৈতিক দল ইতিবাচক ও সহযোগিতার মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে এলে একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও সর্বমহলে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজন সম্ভব হবে বলে আমরা মনে করি।

সুশীল সমাজের সঙ্গে ইসির সংলাপে যে বিষয়গুলো উঠে এসেছে তার মধ্যে সবার আস্থা অর্জন, নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দেয়া এবং ভোটের আগেই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করার পরামর্শগুলো গুরুত্বপূর্ণ। এর পাশাপাশি সেনাবাহিনী মোতায়েন, ‘না’ ভোটের বিধান চালু এবং দলীয় অনুগত হিসেবে পরিচিত কর্মকর্তাদের নির্বাচনের সময় রিটার্নিং অফিসারসহ গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োজিত না করার পরামর্শগুলো আমলে নিতে হবে। ৫ জানুয়ারির মতো বিতর্কিত নির্বাচন যেন না হয়- সেটি নিশ্চিত করার জন্য সরকার ও নির্বাচন কমিশনকেই সামনে থেকে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করতে হবে। একই সঙ্গে ক্ষমতাসীন দলকে যে কোনো মূল্যে ক্ষমতায় থাকার এবং অন্যান্য দলকে যেভাবেই হোক ক্ষমতায় যাওয়ার মানসিকতা ত্যাগ করে জনগণের রায়ের প্রতি সম্মান দেখানোর দৃষ্টিভঙ্গি নিতে হবে। ‘বিচার মানি তালগাছ আমার’ মানসিকতা যে অগণতান্ত্রিক ও বর্তমান সময়ে অচল সেটি সবাইকে উপলব্ধি করতে হবে।

সুশীল সমাজের সদস্যদের সঙ্গে সংলাপের পর সংবাদ ব্রিফিংয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বলেছেন, প্রয়োজনে সরকারের সঙ্গে সমঝোতা করেই নির্বাচন করা হবে। প্রশ্ন হল, ইসি একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান, সেক্ষেত্রে সরকারের সঙ্গে সমঝোতার প্রশ্ন কেন? আমরা মনে করি, কাউকে ছাড় দিয়ে নয়, সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে আইনানুযায়ী সর্বোচ্চ নিরপেক্ষ অবস্থানে থেকেই নির্বাচনের আয়োজন করতে হবে ইসিকে। একই সঙ্গে সিইসি ও অন্য নির্বাচন কমিশনারদের বক্তব্য ও আচরণে যেন সাংবিধানিক পদের নিরপেক্ষতা বজায় থাকে সেটিও নিশ্চিত করতে হবে। বর্তমানে দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা রয়েছে। নির্বাচন সামনে রেখে যাতে এ পরিস্থিতি কেউ নষ্ট করতে না পারে সেদিকে সবাইকে বিশেষ লক্ষ রাখতে হবে।

গণতন্ত্র মানে কেবল নির্বাচন, ভোট গ্রহণ ও ক্ষমতার পালাবদল নয়। গণতন্ত্র একটা সংস্কৃতি- অন্যের মতকে শ্রদ্ধা করা, জনরায় মেনে নেয়া গণতন্ত্রের অন্যতম মূল্যবোধ। আমাদের রাজনৈতিক দল ও নেতাদের এগুলো বুঝতে হবে, মানতে হবে। তাহলেই কেবল অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন এবং উন্নত গণতন্ত্রের দিকে যাত্রা সম্ভব। চলমান সংলাপ প্রক্রিয়া শেষ হলে এর মধ্য থেকে পাওয়া ইতিবাচক ও গ্রহণযোগ্য পরামর্শগুলো আমলে নেয়ার মানসিকতা এবং সৎ সাহস সরকার ও ইসির থাকতে হবে। অন্যথায় লোক দেখানো সংলাপ কেবল সময় ও অর্থের অপচয় ছাড়া আর কিছুই দিতে পারবে না। এটা অজানা নয়, দেশ-বিদেশের সবার বিশেষ নজর থাকবে আগামী নির্বাচনের দিকে।


বগুড়ায় ধর্ষণ মামলায় তুফানের স্ত্রী, শাশুড়ি, সহযোগীসহ ফের রিমান্ডে

চাঙা পুঁজিবাজার


এ বিভাগের আরো খবর...

শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে? শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে?
কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া! কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া!
গেইল আর সাকিবের ঝড় গেইল আর সাকিবের ঝড়
নোয়াখালীতে র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুজন নিহত নোয়াখালীতে র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুজন নিহত
কোহলির সেঞ্চুরির ফিফটি কোহলির সেঞ্চুরির ফিফটি
বিগ বি’র নাতনি আরাধ্যর ষষ্ঠ জন্মদিন বিগ বি’র নাতনি আরাধ্যর ষষ্ঠ জন্মদিন
হাসপাতাল লাশ জিম্মি করতে পারবে না : হাইকোর্ট হাসপাতাল লাশ জিম্মি করতে পারবে না : হাইকোর্ট
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কূটনৈতিক চাপ অব্যাহত রাখতে হবে ? রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কূটনৈতিক চাপ অব্যাহত রাখতে হবে ?
রাজধানীতে মাদ্রাসাছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার রাজধানীতে মাদ্রাসাছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার
শিরোপা জিতেই নিয়েছে বার্সা! শিরোপা জিতেই নিয়েছে বার্সা!

সর্বাধিক পঠিত

জিম্বাবুয়ের জনরোষ, বিক্ষোভের কারন ফার্স্টলেডি গ্রেস মুগাবে? জিম্বাবুয়ের জনরোষ, বিক্ষোভের কারন ফার্স্টলেডি গ্রেস মুগাবে?
তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির অভিভাষণ ৩ ডিসেম্বর ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির অভিভাষণ ৩ ডিসেম্বর
৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড ৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড
দেশে ফিরলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হারিরি দেশে ফিরলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হারিরি
অবশেষে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট মুগাবের পদত্যাগ অবশেষে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট মুগাবের পদত্যাগ
মাঠে ফুটবল খেলে মাতালেন উপমন্ত্রী জয়! মাঠে ফুটবল খেলে মাতালেন উপমন্ত্রী জয়!
রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা সই হবে-সু চি রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা সই হবে-সু চি
শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে? শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে?
সন্ত্রাসবাদের তালিকায় আবারো উত্তর কোরিয়াকে অন্তর্ভুক্তি করল-ট্রাম্প সন্ত্রাসবাদের তালিকায় আবারো উত্তর কোরিয়াকে অন্তর্ভুক্তি করল-ট্রাম্প
শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে?
কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া!
গেইল আর সাকিবের ঝড়
নোয়াখালীতে র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুজন নিহত
কোহলির সেঞ্চুরির ফিফটি
বিগ বি’র নাতনি আরাধ্যর ষষ্ঠ জন্মদিন
হাসপাতাল লাশ জিম্মি করতে পারবে না : হাইকোর্ট
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কূটনৈতিক চাপ অব্যাহত রাখতে হবে ?
রাজধানীতে মাদ্রাসাছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার
শিরোপা জিতেই নিয়েছে বার্সা!