ঢাকা, নভেম্বর ২২, ২০১৭, ৮ অগ্রহায়ন ১৪২৪
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » আইন-আদালত » মুম্বাই বিস্ফোরণ মামলায় ২ জনের ফাঁসি
বৃহস্পতিবার ● ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ অগ্রহায়ন ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

মুম্বাই বিস্ফোরণ মামলায় ২ জনের ফাঁসি

---বিবিসি২৪নিউজ, ভারতের বিশেষ টেররিস্ট অ্যান্ড ডিসরাপটিভ অ্যাকটিভিটিস বা ‘টাডা’ আদালত।মুম্বাই বিস্ফোরণ মামলায় আজ দুই জনকে ফাঁসি ও তিন জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে।আদালত আজ ফিরোজ খান ও তাহের মার্চেন্টকে ফাঁসিতে মৃত্যুদণ্ড, আবু সালেম ও করিমুল্লাহ খানকে যাবজ্জীবনএবং রিয়াজ সিদ্দিকিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

১৯৯৩ সালে ১২ মার্চ মুম্বাইতে ১২টি ধারাবাহিক বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় দুইশ’ ৫৭ জন নিহত এবং সাতশ’র বেশি মানুষ আহত হন। ওই ঘটনায় কমপক্ষে ২৭ কোটি টাকার সম্পত্তি নষ্ট হয়।

গত ১৬ জুন মুম্বাইয়ের বিশেষ টাডা আদালত অন্যতম প্রধান অভিযুক্ত আবু সালেমসহ ছয় জনকে দোষী সব্যস্ত করেছিল। এদের মধ্যে মুস্তাফা দোসা নামে এক অভিযুক্ত সম্প্রতি মারা যায়। আজ সেই মামলার সাজা ঘোষণা করল বিশেষ টাডা আদালত।

২০০৫ সালের ১১ সেপ্টেম্বর পর্তুগাল থেকে আবু সালেমকে গ্রেপ্তার করা হয়। পর্তুগালে গা ঢাকা দেওয়া আবু সালেমকে ২০০৫ সালে শর্তসাপেক্ষ প্রত্যার্পণে রাজি হয় সে দেশের সরকার। পর্তুগালে ফাঁসির সাজা না থাকায় আবু সালেমকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়া যাবে না এবং ২৫ বছরের বেশি সাজাও দেয়া যাবে না এই শর্তে রাজি হয় ভারত সরকার। সেজন্য এই মামলার অন্যতম প্রধান অভিযুক্ত ও বহুলালোচিত আবু সালেমকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেয়া সম্ভব হয়নি।

একই মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়া ইয়াকুব মেমনকে ২০১৫ সালে ফাঁসিতে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়।

১৯৯২ সালে ৬ ডিসেম্বর ঐতিহাসিক বাবরী মসজিদ ধ্বংসের প্রতিশোধ হিসেবে মুম্বাই বিস্ফোরণ ঘটানো হয় বলে বিশ্লেষকরা মনে করেন। বাবরী মসজিদ ধ্বংসের পর মুম্বাইতে ১৯৯২ সালের ডিসেম্বর ও ১৯৯৩ সালের জানুয়ারিতে দু’দফায় রক্তাক্ত সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার ঘটনা ঘটেছিল।


তুর্কি ফার্স্ট লেডি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এখন কক্সবাজারে

দুই কি,মি পায়ে হেঁটে রোহিঙ্গাদের জড়িয়ে ধরে কাঁদলেন তুরস্কের ফার্স্ট লেডি


এ বিভাগের আরো খবর...

জিম্বাবুয়ের জনরোষ, বিক্ষোভের কারন ফার্স্টলেডি গ্রেস মুগাবে? জিম্বাবুয়ের জনরোষ, বিক্ষোভের কারন ফার্স্টলেডি গ্রেস মুগাবে?
তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির অভিভাষণ ৩ ডিসেম্বর ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির অভিভাষণ ৩ ডিসেম্বর
৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড ৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড
দেশে ফিরলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হারিরি দেশে ফিরলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হারিরি
অবশেষে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট মুগাবের পদত্যাগ অবশেষে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট মুগাবের পদত্যাগ
মাঠে ফুটবল খেলে মাতালেন উপমন্ত্রী জয়! মাঠে ফুটবল খেলে মাতালেন উপমন্ত্রী জয়!
রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা সই হবে-সু চি রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা সই হবে-সু চি
সন্ত্রাসবাদের তালিকায় আবারো উত্তর কোরিয়াকে অন্তর্ভুক্তি করল-ট্রাম্প সন্ত্রাসবাদের তালিকায় আবারো উত্তর কোরিয়াকে অন্তর্ভুক্তি করল-ট্রাম্প
প্রশ্ন ফাঁস করে লাখপতি শিক্ষার্থী-সিআইডি প্রশ্ন ফাঁস করে লাখপতি শিক্ষার্থী-সিআইডি

সর্বাধিক পঠিত

জিম্বাবুয়ের জনরোষ, বিক্ষোভের কারন ফার্স্টলেডি গ্রেস মুগাবে? জিম্বাবুয়ের জনরোষ, বিক্ষোভের কারন ফার্স্টলেডি গ্রেস মুগাবে?
তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির অভিভাষণ ৩ ডিসেম্বর ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির অভিভাষণ ৩ ডিসেম্বর
৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড ৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড
দেশে ফিরলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হারিরি দেশে ফিরলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হারিরি
অবশেষে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট মুগাবের পদত্যাগ অবশেষে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট মুগাবের পদত্যাগ
মাঠে ফুটবল খেলে মাতালেন উপমন্ত্রী জয়! মাঠে ফুটবল খেলে মাতালেন উপমন্ত্রী জয়!
রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা সই হবে-সু চি রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা সই হবে-সু চি
শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে? শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে?
সন্ত্রাসবাদের তালিকায় আবারো উত্তর কোরিয়াকে অন্তর্ভুক্তি করল-ট্রাম্প সন্ত্রাসবাদের তালিকায় আবারো উত্তর কোরিয়াকে অন্তর্ভুক্তি করল-ট্রাম্প
শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে?
কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া!
গেইল আর সাকিবের ঝড়
নোয়াখালীতে র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুজন নিহত
কোহলির সেঞ্চুরির ফিফটি
বিগ বি’র নাতনি আরাধ্যর ষষ্ঠ জন্মদিন
হাসপাতাল লাশ জিম্মি করতে পারবে না : হাইকোর্ট
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কূটনৈতিক চাপ অব্যাহত রাখতে হবে ?
রাজধানীতে মাদ্রাসাছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার
শিরোপা জিতেই নিয়েছে বার্সা!