ঢাকা, জুলাই ১৯, ২০১৮, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে, আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপের বিকল্প নেই?
মঙ্গলবার ● ৩১ অক্টোবর ২০১৭, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে, আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপের বিকল্প নেই?

এমডি জালাল,

---রোহিঙ্গাদের ‘জাতিগত নিধন’ অব্যাহত রেখেছে মিয়ানমার।দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি ইতিপূর্বে কফি আনান কমিশনের রিপোর্ট বাস্তবায়ন করা হবে জানালেও দেশটির সাম্প্রতিক বিবৃতিতে এ রিপোর্ট বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত বাদ দেয়া হয়েছে। এতে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে মিয়ানমারের আন্তরিকতার অভাব স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।সংকট নিরসনে মিয়ানমারের গড়িমসির পরিপ্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপের জোরালো কূটনীতির বিকল্প নেই। দেশটির ওপর আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপের অপরিহার্যতা হয়ে পড়ছে । কেননা মিয়ানমার যাতে রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধ করে এবং তাদের মর্যাদার সঙ্গে ফিরিয়ে নেয় সেজন্য দেশটির ওপর নানামুখী নৈতিক আন্তর্জাতিক চাপ সত্ত্বেও মিয়ানমার সরকারের রোহিঙ্গা দমননীতিতে কোনো পরিবর্তন লক্ষ করা যাচ্ছে না। বরং দেখা যাচ্ছে, রাখাইন রাজ্যে সহিংসতার দু’মাস পেরিয়ে গেলেও রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আসা থামছে না। এতে বোঝা যাচ্ছে, আন্তর্জাতিক চাপ এবং বিশ্বব্যাপী ব্যাপক সমালোচনা ও নিন্দা সত্ত্বেও মিয়ানমার সরকার ও সেনাবাহিনী একে মোটেই গুরুত্ব দিচ্ছে না। তারা তাদের রোহিঙ্গা উচ্ছেদের মিশন তথা এই উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের হস্তক্ষেপ প্রত্যাশা করে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্যসহ ১৫ সদস্য রাষ্ট্রের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে বাংলাদেশ।

আমরা মনে করি, অবস্থা যে পর্যায়ে দাঁড়িয়েছে তাতে রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক মহলের সমর্থন আদায়ে জোরালো কূটনীতির আর কোনো বিকল্প নেই। মিয়ানমারের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনার মাধ্যমে সংকট নিরসনের সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ বলেই মনে হয়। সেক্ষেত্রে আমাদের কূটনীতির কেন্দ্রবিন্দুতে রাখতে হবে জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ), মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন ও ভারতের সমর্থন আদায়ের চেষ্টা।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে রাশিয়া ও চীনের অবস্থান এখন পর্যন্ত মিয়ানমারের পক্ষে থাকায় জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ থেকে বাংলাদেশের পক্ষে কোনো সুবিধা লাভের সম্ভাবনা কম। তবে সাধারণ পরিষদে বাংলাদেশের অনুকূলে এ সংক্রান্ত প্রস্তাব গৃহীত হওয়ার সম্ভাবনা উজ্জ্বল। তা যদি হয় তাহলে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপের জন্য এক ধরনের নৈতিক চাপ সৃষ্টি হবে। আমরা জানি, ইতিমধ্যে ইইউ মিয়ানমারের ওপর সেনা কর্মকর্তাদের ভ্রমণ ও সামরিক ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। যুক্তরাষ্ট্র দিয়েছে নিষেধাজ্ঞার হুমকি। মিয়ানমারের বিরুদ্ধে এখন এ ধরনের কঠোর ব্যবস্থাই প্রয়োজন।

রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে আলোচনার জন্য ইতিমধ্যে মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সফরে প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের জনসংখ্যা, শরণার্থী ও অভিবাসনবিষয়ক ভারপ্রাপ্ত সহকারী মন্ত্রী সায়মন হেনশোর নেতৃত্বে ওই প্রতিনিধি দল বর্তমানে মিয়ানমারে অবস্থান করছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন মিয়ানমারের সেনাপ্রধানকে ফোন করে রাখাইনে সহিংসতা বন্ধের পাশাপাশি বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসন বিষয়ে কথা বলার পরই এ প্রতিনিধি দল পাঠাল যুক্তরাষ্ট্র। এতে ধারণা করা যায়, তাদের এ সফরের পর মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র কী ব্যবস্থা নেবে তা স্পষ্ট হবে। এদিকে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি সরেজমিন দেখতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মানবিকবিষয়ক কমিশনার ক্রিস্টোস স্টাইলিয়ানিডসের তিন দিনের সফরে সোমবার ঢাকায় আসার কথা। এ সফর মিয়ানমারের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণে সহায়ক হতে পারে। এ ছাড়া পোপ ফ্রান্সিসের আসন্ন মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সফর এবং মিয়ানমারে আসন্ন এশিয়া-ইউরোপ (আসেম) পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের মাধ্যমেও রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির সুযোগ তৈরি হবে।


আমেরিকান জিম্মি কেভিন কিং এর স্বাস্থ্যের অবস্থা অবনতি: তালিবান মুখপাত্র

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ উনেস্কো স্বীকৃতি পেলো


এ বিভাগের আরো খবর...

ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া! ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া!
রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে-গুতেরেস রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে-গুতেরেস
রোগীদের মেয়াদোত্তীর্ণ উপাদান দিয়ে অস্ত্রোপচার কতটা ঝুঁকিপূর্ণ? রোগীদের মেয়াদোত্তীর্ণ উপাদান দিয়ে অস্ত্রোপচার কতটা ঝুঁকিপূর্ণ?
শিশু মৃত্যু দায়ী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন? শিশু মৃত্যু দায়ী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন?
প্রকল্প বাস্তবায়নে-দুর্নীতির দিকে নজর দিন? প্রকল্প বাস্তবায়নে-দুর্নীতির দিকে নজর দিন?
প্রান্তিক জনগোষ্ঠী সামাজিক নিরাপত্তা কতটুকু? প্রান্তিক জনগোষ্ঠী সামাজিক নিরাপত্তা কতটুকু?
মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন? মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?
আর্জেন্টিনা ১-০ নাইজেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া ০-০ আইসল্যান্ড আর্জেন্টিনা ১-০ নাইজেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া ০-০ আইসল্যান্ড
ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন? ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন?
দেশের সার্বিক উন্নয়নে খেলাপি ঋণ বন্ধ হওয়া জুরুরি? দেশের সার্বিক উন্নয়নে খেলাপি ঋণ বন্ধ হওয়া জুরুরি?

সর্বাধিক পঠিত

আজ এইচএসসির ফল, জানা যাবে যেভাবে? আজ এইচএসসির ফল, জানা যাবে যেভাবে?
মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসার গল্প শোনাল থাই কিশোররা মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসার গল্প শোনাল থাই কিশোররা
জাপান-ইইউ মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর জাপান-ইইউ মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর
ট্রাম্পের সমালোচনা করতে চাইছে - হোয়াইট হাউস ট্রাম্পের সমালোচনা করতে চাইছে - হোয়াইট হাউস
দুদকের অভিযানে সিভিল সার্জনের ঘুষের ‘প্রমাণ’ দাবি দুদকের অভিযানে সিভিল সার্জনের ঘুষের ‘প্রমাণ’ দাবি
রোহিঙ্গারা বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত জাতিতে পরিণত হতে যাচ্ছে- জাতিসংঘ রোহিঙ্গারা বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত জাতিতে পরিণত হতে যাচ্ছে- জাতিসংঘ
আমেরিকার মূল টার্গেট হচ্ছে ইয়েমেনে আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করা আমেরিকার মূল টার্গেট হচ্ছে ইয়েমেনে আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করা
ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া! ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া!
ইরানে নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছেন- ট্রাম্প ইরানে নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছেন- ট্রাম্প
তিন তালাক ফতোয়া: ইসলাম থেকে বের করার অধিকার কারও নেই তিন তালাক ফতোয়া: ইসলাম থেকে বের করার অধিকার কারও নেই
ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া!
রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে-গুতেরেস
শিশু মৃত্যু দায়ী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন?
প্রকল্প বাস্তবায়নে-দুর্নীতির দিকে নজর দিন?
মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?
আর্জেন্টিনা ১-০ নাইজেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া ০-০ আইসল্যান্ড
ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন?
প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটির মামলার প্রকৌশলীদের জামিন মঞ্জুর
কাঙ্খিত ফল পেতে হলে,ভেজালবিরোধী অভিযান চালু রাখতে হবে?
মাদকযুদ্ধে কেন হারবে বাংলাদেশ?