ঢাকা, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » আর্ন্তজাতিক » বনে কপ-২৩ জলবায়ু সম্মেলন প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের ইস্যু!
মঙ্গলবার ● ৭ নভেম্বর ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

বনে কপ-২৩ জলবায়ু সম্মেলন প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের ইস্যু!

---বিবিসি২৪নিউজ,আহমেদ মুকুল,জার্মানের বন থেকে : জার্মানির বনে কপ-২৩ জলবায়ু সম্মেলন প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের ইস্যু্ । প্যারিস জলবায়ু চুক্তি বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় এক বড় সাফল্য৷২০১৫ সালের ডিসেম্বরে সম্পাদিত বিশ্বের ১৬৯টি দেশ এই চুক্তি অনুমোদন করেছে৷ তবে এই চুক্তি বাস্তবায়ন এখনো এক ইস্যু হিসেবে রয়ে গেছে৷ আর চুক্তির কিছু বিষয় এখনো বিস্তারিতভাবে প্রকাশ সম্ভব হয়নি৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই চুক্তি থেকে সরে যাওয়ায় এটির গুরুত্বও খানিকটা কমে গেছে৷জার্মানির প্রাক্তন রাজধানী বনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে জলবায়ু বিষয়ক সম্মেলন কপ২৩৷ বিশ্বের ১৯৭টি দেশের ২৩,০০০ প্রতিনিধি ১২ দিনের এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন৷ আলোচিত এই সম্মেলন সম্পর্কে পাঁচটি প্রশ্ন ও তার উত্তর পাবেন এখানে৷

উত্তর: জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কিত নানা ইস্যুর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রাজনীতিবিদরা ছাড়াও বিশেষজ্ঞ ও পরিবেশ অ্যাক্টিভিস্টরা এবং বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র বা সরকার প্রধানরা বনে কপ২৩ জলবায়ু সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন এবং নেবেন৷ অন্যান্যদের মধ্যে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ গুরুত্বপূর্ণ এই জলবায়ু সম্মেলনে থাকছেন৷ হলিউড তারকা লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও এবং সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট আল গোরকেও দেখা যাবে সম্মেলনে৷

জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলন সাধারণত প্রেসিডিং কান্ট্রিতে অনুষ্ঠিত হয়৷ এ বছর সেই দেশটি ফিজি৷ জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে অন্যতম ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে সম্মেলন আয়োজন করা গেলে তা বাড়তি গুরুত্ব পেতো৷ কিন্তু এতবড় সম্মেলন আয়োজন ছোট্ট দ্বীপ রাষ্ট্রটির পক্ষে বেশ কষ্টসাধ্য ব্যাপার হওয়ায় জার্মানি সহায়তার হাত বাড়ায়, কারিগরি আয়োজকের দায়িত্ব গ্রহণ করে জার্মানি৷

মোটের উপর জাতিসংঘের জলবায়ু বিষয়ক সংস্থা ইউএনএফসিসিসি’র সদরদপ্তর বনে অবস্থিত৷ আর এই শহরেই কপ১ অনুষ্ঠিত হয়েছিল যখন বর্তমান চ্যান্সেলর ম্যার্কেল পরিবেশমন্ত্রী ছিলেন৷ ফলে বনে এই সম্মেলন আয়োজনের ঐতিহাসিক গুরুত্বও রয়েছে৷
জার্মানির প্রাক্তন রাজধানী বন শহরের কেন্দ্রস্থল থেকে কয়লা বিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়৷ এই তিন নারীর মতো অনেকেই মুখে রং মেখে কয়লা বিরোধী প্লাকার্ড ও পতাকা হাতে নিয়ে বিক্ষোভে অংশ নেন৷

প্যারিস চুক্তির লক্ষ্য হচ্ছে বিশ্বের তাপমাত্রা বৃদ্ধি দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা কিংবা সম্ভব হলে এক দশমিক পাঁচ ডিগ্রির মধ্যে রাখা৷ বলাবাহুল্য, এই লক্ষ্য পূরণ সম্ভব হলেও তা পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর হবে৷ তবে সেই ক্ষতি লাগামহীন উষ্ণতা বৃদ্ধির তুলনায় কম৷ আর এই লক্ষ্য পূরণে দেশগুলোকে কঠোর উদ্যোগ নিতে হবে৷

প্যারিস চুক্তির আওতায় বন সম্মেলনে একটি নিয়ন্ত্রক কাঠামো তৈরি করা হবে যাতে দেশগুলো তাদের জন্য নির্ধারিত জলবায়ু লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে পারে।


ট্রাম্প ১২ দিনের এশিয়া সফরে এখন দক্ষিণ কোরিয়ায় ?

বন্ধন’উদ্বোধনে,দর্শনা ও গেদে বর্ডার চেকিং শেষ!


এ বিভাগের আরো খবর...

উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে
জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য
প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে? প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে?
যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায়
মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন
সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন
গৃহকর্মী নামে ‘বৈধপথে’ মধ্যপ্রাচ্যেসহ অনেক দেশে নারী পাচার হচ্ছে? গৃহকর্মী নামে ‘বৈধপথে’ মধ্যপ্রাচ্যেসহ অনেক দেশে নারী পাচার হচ্ছে?
রাশিয়ায় বোমা হামলা ব্যার্থ:সিআইএ রাশিয়ায় বোমা হামলা ব্যার্থ:সিআইএ
আইএসএস মিশনে মহাকাশের কক্ষপথে তিনজন নভোচারী আইএসএস মিশনে মহাকাশের কক্ষপথে তিনজন নভোচারী

সর্বাধিক পঠিত

হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে
জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য
প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে? প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে?
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায়
মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন
সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন
সমস্যায় ভুগছেন রানী সমস্যায় ভুগছেন রানী
হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ভর্তি ফি সহনীয় পরিমাণে নির্ধারণ করুন?
চুক্তি অনুযায়ী ২২ জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গা ফেরত: বাংলাদেশ
শ্রীলঙ্কাকে ২ উইকেট হারিয়েই সিরিজ জিতল: ভারত
হোটেল থেকে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার!
ঢাকা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
রাশিয়া ও চীনের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়া চলছে
মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করে গেছেন ভাসানী: খালেদা জিয়া
‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে’ যোগ দিতে প্যারিস পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী