ঢাকা, অক্টোবর ১৬, ২০১৮, ৩১ আশ্বিন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » এনসিটিবির অনিয়ম-দুর্নীতি সরকারকে আমলে নিতে হবে?
বুধবার ● ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ৩১ আশ্বিন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

এনসিটিবির অনিয়ম-দুর্নীতি সরকারকে আমলে নিতে হবে?

---এম ডি জালাল,জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) কর্মকর্তাদের যে অনিয়ম-দুর্নীতির চিত্র বেরিয়ে এসেছে, তা এক কথায় ভয়াবহ। শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বিতরণের জন্য মুদ্রণযোগ্য পাঠ্যবইয়ের পাণ্ডুলিপি তৈরি, ছাপা ও বিতরণের কাজ সম্পন্ন হয় ২০ ধাপে। দেখা গেছে এর ১৭ ধাপেই বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতি হয়। চলতি বছরের পাঠ্যবই উৎপাদন ও বিতরণের কাজে সম্মানীর নামে অবৈধভাবে ৫১ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন এনসিটিবির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) গবেষণায় বলা যায়, সেখানে দুর্নীতির প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ হয়েছে। এনসিটিবিতেশিক্ষার সঙ্গে সম্পর্কিত একটি প্রতিষ্ঠানের এ দুর্দশা আমাদের বিস্মিত করেছে। একইসঙ্গে এ প্রতিষ্ঠানের ওই কর্মকর্তাদের নৈতিকতার হাল দেখে আমরা উদ্বিগ্নও বটে।
টিআইবির গবেষণায় দেখা গেছে, সেখানে দরপত্র নিয়ে চলে ব্যাপক দুর্নীতি। এ ক্ষেত্রে এনসিটিবির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একাংশের সঙ্গে দরপত্রদাতাদের আঁতাতের তথ্যও পাওয়া গেছে। জানা গেছে, এনসিটিবির কোনো কোনো কর্মকর্তার মুদ্রণ প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ওইসব প্রতিষ্ঠান বেনামে দরপত্রে অংশ নেয় এবং তারা দরপত্রে উল্লিখিত শর্তপূরণ না করেও কাজ পেয়ে যায়। তদারকির নামে সম্মানী হিসেবে লাখ লাখ টাকা নেয়া হলেও কাগজ কেনা ও মুদ্রণ যথাযথভাবে তদারক করা হয় না। পাঠ্যবইয়ের পাণ্ডুলিপি প্রণয়নের প্রক্রিয়ায়ও বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরা হয়েছে টিআইবির প্রতিবেদনে। বলা হয়েছে, কোনো কোনো ক্ষেত্রে যোগ্য হওয়া সত্ত্বেও রাজনৈতিক বিবেচনায় কাউকে কাউকে এ সংক্রান্ত কমিটি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। পাঠ্যবইয়ের কাজে বিষয়ভিত্তিক ও অভিজ্ঞ বিশেষজ্ঞ নিয়োগ করা হয় না। যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও প্রেষণে আসা কর্মকর্তাদের বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। এনসিটিবির বিরুদ্ধে আরও একটি গুরুতর অভিযোগ হল, অনেক সময় কারিকুলাম অনুসরণ না করেই অনিয়মতান্ত্রিকভাবে লেখা পরিবর্তন করা হয়।
বলার অপেক্ষা রাখে না, এসব কারণে এনসিটিবির বইয়ের মুদ্রণ ও বিষয়বস্তুর মান পড়ে যাচ্ছে। এ অবস্থা আর চলতে দেয়া যায় না। সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে অবিলম্বে এদিকে দৃষ্টি দেয়া দরকার। এনসিটিবির অনিয়ম-দুর্নীতি রোধে ১৬টি সুপারিশ তুলে ধরেছে টিআইবি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল- এনসিটিবিকে একটি স্বাধীন কমিশন হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা; এ কমিশন গঠনের লক্ষ্যে জাতীয় পর্যায়ে খ্যাতিসম্পন্ন বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন; এনসিটিবির কার্যক্রমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ ও প্রভাব হ্রাস করা; কারিকুলাম ও পাণ্ডুলিপি প্রণয়নের জন্য সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন; পাঠ্যবই মুদ্রণে ই-টেন্ডারিং প্রথা চালু করা ইত্যাদি।
আমরা মনে করি, সুপারিশগুলো আমলে নেয়া হলে এনসিটিবির কার্যক্রমে দুর্নীতি প্রতিরোধ হবে, স্বচ্ছতা আসবে।


বনানীতে দুর্বৃত্তের গুলিতে ব্যবসায়ী সিদ্দিক মুন্সি নিহত

খালেদার উদ্দেশ্য-প্রধানমন্ত্রী বলেন“পাগলে কী না বলে, ছাগলে কী না খায়?


এ বিভাগের আরো খবর...

দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক? দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক?
অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন? অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন?
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
নিম্নমানের ওষুধ মনিটরিংয়ে শক্তিশালী পদক্ষেপ নিন? নিম্নমানের ওষুধ মনিটরিংয়ে শক্তিশালী পদক্ষেপ নিন?
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি! রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!
খালেদা জিয়ার জামিন বহাল খালেদা জিয়ার জামিন বহাল

সর্বাধিক পঠিত

ড. কামালের আসল চেহারা প্রকাশ করেছেন- জয় ড. কামালের আসল চেহারা প্রকাশ করেছেন- জয়
মিয়ানমার ৮ হাজার রোহিঙ্গা যাচাই করেছে মিয়ানমার ৮ হাজার রোহিঙ্গা যাচাই করেছে
ঐক্যফ্রন্টের বিরুদ্ধে কেন আক্রমণাত্মক অবস্থান নিয়েছে আ’ লীগ? ঐক্যফ্রন্টের বিরুদ্ধে কেন আক্রমণাত্মক অবস্থান নিয়েছে আ’ লীগ?
নরসিংদীতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ২টি বাড়ি ঘেরাও করেছে- পুলিশ নরসিংদীতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ২টি বাড়ি ঘেরাও করেছে- পুলিশ
৩-২ গোলে স্পেনকে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিল- ইংল্যান্ড ৩-২ গোলে স্পেনকে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিল- ইংল্যান্ড
পদ্মায় নদীর ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের ৮০ হাজার ইউরো দেবে- ইইউ পদ্মায় নদীর ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের ৮০ হাজার ইউরো দেবে- ইইউ
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বাংলাদেশ বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে- প্রধানমন্ত্রী সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বাংলাদেশ বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে- প্রধানমন্ত্রী
বিএনপির মরা গাঙে আন্দোলনের জোয়ার আসবে না- কাদের বিএনপির মরা গাঙে আন্দোলনের জোয়ার আসবে না- কাদের
তাইওয়ানের উপর হস্তক্ষেপ বন্ধ করুন- আমেরিকাকে চীন তাইওয়ানের উপর হস্তক্ষেপ বন্ধ করুন- আমেরিকাকে চীন
শত্রুরা ইরাক ও সিরিয়া উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করছে- বাশার আসাদ শত্রুরা ইরাক ও সিরিয়া উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করছে- বাশার আসাদ
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!
খালেদা জিয়ার জামিন বহাল
বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে নেপালে প্রধানমন্ত্রী
আওয়ামী লীগের জন্য যা পেয়েছি তা ভয়ংকর!
‘ট্যঁর দ্যে ফ্যাম’ রিপোর্ট: জার্মানিতে যৌনাঙ্গচ্ছেদে শিকার-৬৫হাজার নারী