ঢাকা, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » এনসিটিবির অনিয়ম-দুর্নীতি সরকারকে আমলে নিতে হবে?
বুধবার ● ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

এনসিটিবির অনিয়ম-দুর্নীতি সরকারকে আমলে নিতে হবে?

---এম ডি জালাল,জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) কর্মকর্তাদের যে অনিয়ম-দুর্নীতির চিত্র বেরিয়ে এসেছে, তা এক কথায় ভয়াবহ। শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বিতরণের জন্য মুদ্রণযোগ্য পাঠ্যবইয়ের পাণ্ডুলিপি তৈরি, ছাপা ও বিতরণের কাজ সম্পন্ন হয় ২০ ধাপে। দেখা গেছে এর ১৭ ধাপেই বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতি হয়। চলতি বছরের পাঠ্যবই উৎপাদন ও বিতরণের কাজে সম্মানীর নামে অবৈধভাবে ৫১ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন এনসিটিবির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) গবেষণায় বলা যায়, সেখানে দুর্নীতির প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ হয়েছে। এনসিটিবিতেশিক্ষার সঙ্গে সম্পর্কিত একটি প্রতিষ্ঠানের এ দুর্দশা আমাদের বিস্মিত করেছে। একইসঙ্গে এ প্রতিষ্ঠানের ওই কর্মকর্তাদের নৈতিকতার হাল দেখে আমরা উদ্বিগ্নও বটে।
টিআইবির গবেষণায় দেখা গেছে, সেখানে দরপত্র নিয়ে চলে ব্যাপক দুর্নীতি। এ ক্ষেত্রে এনসিটিবির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একাংশের সঙ্গে দরপত্রদাতাদের আঁতাতের তথ্যও পাওয়া গেছে। জানা গেছে, এনসিটিবির কোনো কোনো কর্মকর্তার মুদ্রণ প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ওইসব প্রতিষ্ঠান বেনামে দরপত্রে অংশ নেয় এবং তারা দরপত্রে উল্লিখিত শর্তপূরণ না করেও কাজ পেয়ে যায়। তদারকির নামে সম্মানী হিসেবে লাখ লাখ টাকা নেয়া হলেও কাগজ কেনা ও মুদ্রণ যথাযথভাবে তদারক করা হয় না। পাঠ্যবইয়ের পাণ্ডুলিপি প্রণয়নের প্রক্রিয়ায়ও বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরা হয়েছে টিআইবির প্রতিবেদনে। বলা হয়েছে, কোনো কোনো ক্ষেত্রে যোগ্য হওয়া সত্ত্বেও রাজনৈতিক বিবেচনায় কাউকে কাউকে এ সংক্রান্ত কমিটি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। পাঠ্যবইয়ের কাজে বিষয়ভিত্তিক ও অভিজ্ঞ বিশেষজ্ঞ নিয়োগ করা হয় না। যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও প্রেষণে আসা কর্মকর্তাদের বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। এনসিটিবির বিরুদ্ধে আরও একটি গুরুতর অভিযোগ হল, অনেক সময় কারিকুলাম অনুসরণ না করেই অনিয়মতান্ত্রিকভাবে লেখা পরিবর্তন করা হয়।
বলার অপেক্ষা রাখে না, এসব কারণে এনসিটিবির বইয়ের মুদ্রণ ও বিষয়বস্তুর মান পড়ে যাচ্ছে। এ অবস্থা আর চলতে দেয়া যায় না। সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে অবিলম্বে এদিকে দৃষ্টি দেয়া দরকার। এনসিটিবির অনিয়ম-দুর্নীতি রোধে ১৬টি সুপারিশ তুলে ধরেছে টিআইবি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল- এনসিটিবিকে একটি স্বাধীন কমিশন হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা; এ কমিশন গঠনের লক্ষ্যে জাতীয় পর্যায়ে খ্যাতিসম্পন্ন বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন; এনসিটিবির কার্যক্রমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ ও প্রভাব হ্রাস করা; কারিকুলাম ও পাণ্ডুলিপি প্রণয়নের জন্য সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন; পাঠ্যবই মুদ্রণে ই-টেন্ডারিং প্রথা চালু করা ইত্যাদি।
আমরা মনে করি, সুপারিশগুলো আমলে নেয়া হলে এনসিটিবির কার্যক্রমে দুর্নীতি প্রতিরোধ হবে, স্বচ্ছতা আসবে।


বনানীতে দুর্বৃত্তের গুলিতে ব্যবসায়ী সিদ্দিক মুন্সি নিহত

খালেদার উদ্দেশ্য-প্রধানমন্ত্রী বলেন“পাগলে কী না বলে, ছাগলে কী না খায়?


এ বিভাগের আরো খবর...

হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ভর্তি ফি সহনীয় পরিমাণে নির্ধারণ করুন? শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ভর্তি ফি সহনীয় পরিমাণে নির্ধারণ করুন?
চুক্তি অনুযায়ী ২২ জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গা ফেরত: বাংলাদেশ চুক্তি অনুযায়ী ২২ জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গা ফেরত: বাংলাদেশ
শ্রীলঙ্কাকে ২ উইকেট হারিয়েই সিরিজ জিতল: ভারত শ্রীলঙ্কাকে ২ উইকেট হারিয়েই সিরিজ জিতল: ভারত
হোটেল থেকে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার! হোটেল থেকে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার!
ঢাকা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১ ঢাকা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
রাশিয়া ও চীনের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়া চলছে রাশিয়া ও চীনের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়া চলছে
মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করে গেছেন ভাসানী: খালেদা জিয়া মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করে গেছেন ভাসানী: খালেদা জিয়া
‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে’ যোগ দিতে প্যারিস পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী ‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে’ যোগ দিতে প্যারিস পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

সর্বাধিক পঠিত

হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে
জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য
প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে? প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে?
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায়
মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন
সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন
সমস্যায় ভুগছেন রানী সমস্যায় ভুগছেন রানী
হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ভর্তি ফি সহনীয় পরিমাণে নির্ধারণ করুন?
চুক্তি অনুযায়ী ২২ জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গা ফেরত: বাংলাদেশ
শ্রীলঙ্কাকে ২ উইকেট হারিয়েই সিরিজ জিতল: ভারত
হোটেল থেকে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার!
ঢাকা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
রাশিয়া ও চীনের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়া চলছে
মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করে গেছেন ভাসানী: খালেদা জিয়া
‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে’ যোগ দিতে প্যারিস পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী