ঢাকা, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » জেলার খবর » হবিগঞ্জে রোগির পেটের ভিতর তোয়ালে রেখেই সেলাই করলেন- ডাক্তার
রবিবার ● ২৬ নভেম্বর ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

হবিগঞ্জে রোগির পেটের ভিতর তোয়ালে রেখেই সেলাই করলেন- ডাক্তার

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিনিধি:হবিগঞ্জে ভূল চিকিৎসা গৃহবধূ মল্লিকা দাসকে সিজার করার পর রোগির পেটে তোয়ালে রেখেই সেলাই করার আভিযোগ পাওয়া গেছে।আজমিরীগঞ্জ উপজেলার চাঁদের হাসি হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

কাকাইলছে গ্রামের সঞ্জিব সরকারের স্ত্রী বর্তমানে হবিগঞ্জ শহরের শায়েস্তানগর এলাকার বসবাস করছেন। ২৫ নভেম্বর রাতে এ ব্যাপারে মল্লিকা দাস (৩৮) গৃহবধূর স্বামী সঞ্জিব সরকার জানান, গত ২৩ আগস্ট তার স্ত্রীকে সিজার করানোর জন্য শহরের চাঁদের হাসি হাসপাতালে নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নিয়মানুযায়ী ভর্তি করা হয়।
ঐ দিনই চাঁদের হাসি হাসপাতালের ডাক্তার এসকে ঘোষকে দিয়ে সিজার করায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সিজারের ১০/১২ দিন পর পেটের ভেতরে প্রচ- ব্যথা অনুভব করতে থাকেন মল্লিকা। প্রচ- ব্যথা অনুভব করায় বেশ কয়েকদিন পর আবারও চাদের হাঁসি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। এসময় ডাক্তার মল্লিকাকে বেশ কয়েকটি পরীক্ষা দেন।
পরীক্ষায় তার পেটের ভেতরে কিছু রয়ে গেছে বলে ধারণা করা হয়। এক পর্যায়ে অভিজ্ঞ ডাক্তার কর্তৃক পরীক্ষা নিরীক্ষার পর (২৪ নভেম্বর) শুক্রবার বিকেলে ডাক্তার আবুল কালামের অধীনে পুনরায় হবিগঞ্জ হেলথ কেয়ার ক্লিনিকে অপারেশন করেন। অপারেশনের পর মল্লিকার পেটের ভেতর থেকে একটি তোয়ালে বাহির করা হয়।
এদিকে অপারেশন শেষে পেটের ভেতর থেকে বাহির হওয়া পুরো একটি তোয়ালে দেখে হতভম্ব হয়ে স্বজনরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তারা চিকিৎসক এসকে ঘোষ এবং চাঁদের হাসি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিচার ও শাস্তির দাবি জানান।
এব্যাপরে ডাক্তার আবুল কালাম বলেন, মল্লিকার পেটের ভিতরে কাপড়ের টুকরো থাকার কারণে ইনফেকশন হয়েছে। বিষয়টি সম্পর্কে অভিযুক্ত ডাক্তার এস কে ঘোষের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, এমন হওয়ার কথা নয় তবে ভূলবশত হতে পারে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে চাঁদের হাসি হাসপাতালের পরিচালক নূরউদ্দীন আহমেদবলেন, এটা একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা যা ভুল। আমি এটার জন্য মর্মাহত বরে জানান।


পিলখানার হত্যাযজ্ঞের আপিলের রায় ঘোষণা চলছে

ভূমধ্যসাগর এখনো বিশ্বের ‘সবচেয়ে প্রাণঘাতী’ সীমান্ত?


এ বিভাগের আরো খবর...

হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে
জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য
প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে? প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে?
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায়
মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন
সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন
গৃহকর্মী নামে ‘বৈধপথে’ মধ্যপ্রাচ্যেসহ অনেক দেশে নারী পাচার হচ্ছে? গৃহকর্মী নামে ‘বৈধপথে’ মধ্যপ্রাচ্যেসহ অনেক দেশে নারী পাচার হচ্ছে?

সর্বাধিক পঠিত

হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে
জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য
প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে? প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে?
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায়
মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন
সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন
সমস্যায় ভুগছেন রানী সমস্যায় ভুগছেন রানী
হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ভর্তি ফি সহনীয় পরিমাণে নির্ধারণ করুন?
চুক্তি অনুযায়ী ২২ জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গা ফেরত: বাংলাদেশ
শ্রীলঙ্কাকে ২ উইকেট হারিয়েই সিরিজ জিতল: ভারত
হোটেল থেকে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার!
ঢাকা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
রাশিয়া ও চীনের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়া চলছে
মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করে গেছেন ভাসানী: খালেদা জিয়া
‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে’ যোগ দিতে প্যারিস পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী