ঢাকা, জুলাই ২০, ২০১৮, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » জেলার খবর » হবিগঞ্জে রোগির পেটের ভিতর তোয়ালে রেখেই সেলাই করলেন- ডাক্তার
রবিবার ● ২৬ নভেম্বর ২০১৭, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

হবিগঞ্জে রোগির পেটের ভিতর তোয়ালে রেখেই সেলাই করলেন- ডাক্তার

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিনিধি:হবিগঞ্জে ভূল চিকিৎসা গৃহবধূ মল্লিকা দাসকে সিজার করার পর রোগির পেটে তোয়ালে রেখেই সেলাই করার আভিযোগ পাওয়া গেছে।আজমিরীগঞ্জ উপজেলার চাঁদের হাসি হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

কাকাইলছে গ্রামের সঞ্জিব সরকারের স্ত্রী বর্তমানে হবিগঞ্জ শহরের শায়েস্তানগর এলাকার বসবাস করছেন। ২৫ নভেম্বর রাতে এ ব্যাপারে মল্লিকা দাস (৩৮) গৃহবধূর স্বামী সঞ্জিব সরকার জানান, গত ২৩ আগস্ট তার স্ত্রীকে সিজার করানোর জন্য শহরের চাঁদের হাসি হাসপাতালে নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নিয়মানুযায়ী ভর্তি করা হয়।
ঐ দিনই চাঁদের হাসি হাসপাতালের ডাক্তার এসকে ঘোষকে দিয়ে সিজার করায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সিজারের ১০/১২ দিন পর পেটের ভেতরে প্রচ- ব্যথা অনুভব করতে থাকেন মল্লিকা। প্রচ- ব্যথা অনুভব করায় বেশ কয়েকদিন পর আবারও চাদের হাঁসি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। এসময় ডাক্তার মল্লিকাকে বেশ কয়েকটি পরীক্ষা দেন।
পরীক্ষায় তার পেটের ভেতরে কিছু রয়ে গেছে বলে ধারণা করা হয়। এক পর্যায়ে অভিজ্ঞ ডাক্তার কর্তৃক পরীক্ষা নিরীক্ষার পর (২৪ নভেম্বর) শুক্রবার বিকেলে ডাক্তার আবুল কালামের অধীনে পুনরায় হবিগঞ্জ হেলথ কেয়ার ক্লিনিকে অপারেশন করেন। অপারেশনের পর মল্লিকার পেটের ভেতর থেকে একটি তোয়ালে বাহির করা হয়।
এদিকে অপারেশন শেষে পেটের ভেতর থেকে বাহির হওয়া পুরো একটি তোয়ালে দেখে হতভম্ব হয়ে স্বজনরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তারা চিকিৎসক এসকে ঘোষ এবং চাঁদের হাসি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিচার ও শাস্তির দাবি জানান।
এব্যাপরে ডাক্তার আবুল কালাম বলেন, মল্লিকার পেটের ভিতরে কাপড়ের টুকরো থাকার কারণে ইনফেকশন হয়েছে। বিষয়টি সম্পর্কে অভিযুক্ত ডাক্তার এস কে ঘোষের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, এমন হওয়ার কথা নয় তবে ভূলবশত হতে পারে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে চাঁদের হাসি হাসপাতালের পরিচালক নূরউদ্দীন আহমেদবলেন, এটা একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা যা ভুল। আমি এটার জন্য মর্মাহত বরে জানান।


পিলখানার হত্যাযজ্ঞের আপিলের রায় ঘোষণা চলছে

ভূমধ্যসাগর এখনো বিশ্বের ‘সবচেয়ে প্রাণঘাতী’ সীমান্ত?


এ বিভাগের আরো খবর...

সনাতন ছাড়া সব ধরনের সোনার দাম কমেছে সনাতন ছাড়া সব ধরনের সোনার দাম কমেছে
মিয়ানমারের রাখাইনে বিশ্ববিদ্যালয় চালু হচ্ছে মিয়ানমারের রাখাইনে বিশ্ববিদ্যালয় চালু হচ্ছে
সব দলের অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন চায়- ইইউ সব দলের অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন চায়- ইইউ
বামপন্থী জোট বেশি, ভোট কম দুর্বলতা নিজেদেরই বামপন্থী জোট বেশি, ভোট কম দুর্বলতা নিজেদেরই
জীবনের সব গল্প নাটকের সাথে মিলে না? জীবনের সব গল্প নাটকের সাথে মিলে না?
লন্ডনে গানে গানে চিরকুট ব্যান্ড লন্ডনে গানে গানে চিরকুট ব্যান্ড
এশিয়ান গেমসে থাকছেন না মামুনুল এশিয়ান গেমসে থাকছেন না মামুনুল
উষ্ণতম দিন পার করল রাজধানীবাসী উষ্ণতম দিন পার করল রাজধানীবাসী
সিলেটে আরিফকে সমর্থন দিলেন সেলিম সিলেটে আরিফকে সমর্থন দিলেন সেলিম
ই-পাসপোর্ট চালু করছে বাংলাদেশ ই-পাসপোর্ট চালু করছে বাংলাদেশ

সর্বাধিক পঠিত

সনাতন ছাড়া সব ধরনের সোনার দাম কমেছে সনাতন ছাড়া সব ধরনের সোনার দাম কমেছে
মিয়ানমারের রাখাইনে বিশ্ববিদ্যালয় চালু হচ্ছে মিয়ানমারের রাখাইনে বিশ্ববিদ্যালয় চালু হচ্ছে
সব দলের অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন চায়- ইইউ সব দলের অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন চায়- ইইউ
বামপন্থী জোট বেশি, ভোট কম দুর্বলতা নিজেদেরই বামপন্থী জোট বেশি, ভোট কম দুর্বলতা নিজেদেরই
জীবনের সব গল্প নাটকের সাথে মিলে না? জীবনের সব গল্প নাটকের সাথে মিলে না?
লন্ডনে গানে গানে চিরকুট ব্যান্ড লন্ডনে গানে গানে চিরকুট ব্যান্ড
‘টুইটারম্যান’ নেইমার–এমবাপ্পে ‘টুইটারম্যান’ নেইমার–এমবাপ্পে
এশিয়ান গেমসে থাকছেন না মামুনুল এশিয়ান গেমসে থাকছেন না মামুনুল
ধোনি কি অবসর নিয়ে ফেলছেন? ধোনি কি অবসর নিয়ে ফেলছেন?
উষ্ণতম দিন পার করল রাজধানীবাসী উষ্ণতম দিন পার করল রাজধানীবাসী
প্রবাসীরা অধিকার প্রতিষ্ঠায় সরকারের পদক্ষেপ চায়- ইউকে মানিকগঞ্জ সমিতি
ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া!
রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে-গুতেরেস
শিশু মৃত্যু দায়ী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন?
প্রকল্প বাস্তবায়নে-দুর্নীতির দিকে নজর দিন?
মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?
আর্জেন্টিনা ১-০ নাইজেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া ০-০ আইসল্যান্ড
ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন?
প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটির মামলার প্রকৌশলীদের জামিন মঞ্জুর
কাঙ্খিত ফল পেতে হলে,ভেজালবিরোধী অভিযান চালু রাখতে হবে?