ঢাকা, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » এশিয়া-মধ্যপ্রাচ্য » উ.কোরিয়া আইসিবিএম সর্বোচ্চ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা
বুধবার ● ২৯ নভেম্বর ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

উ.কোরিয়া আইসিবিএম সর্বোচ্চ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

---বিবিসি২৪নিউজ,উত্তর কোরিয়া এক ব্যলিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে যেটি চার হাজার কিলোমিটারের বেশি উচ্চতায় গিয়ে উড়ে যায় বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই উচ্চতা এখনো পর্যন্ত ক্ষেপণাস্ত্রের গতিপথের ক্ষেত্রে দেশটির সর্বোচ্চ বলে জানিয়েছেন জাপান সরকার।

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, ফ্লাইটের উপাত্তের উপর ভিত্তি করে এই নিক্ষেপণ পরীক্ষা করে দেখছে।দেশটির পশ্চিমাঞ্চলের উপকূলে পিয়াংসং এর কাছাকাছি এক জায়গা থেকে রাত তিনটা আটারো নাগাদ ওই ক্ষেপণাস্ত্রটি নিক্ষেপ করা হয়েছিল বলে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। অনুমান করা হচ্ছে যে ক্ষেপণাস্ত্রটি আওমোরি জেলার আড়াইশো কিলোমিটার পশ্চিমে জাপানের একান্ত অর্থনৈতিক জোনে গিয়ে পতিত হয়েছে।

আজকের ক্ষেপণাস্ত্রটি এমন ভাবে নিক্ষেপ করা হয়েছিল যে এটি একদম খাড়া পথে উঠে যায়।ধারণা করা হচ্ছে যে এটি চার হাজার কিলোমিটারের বেশি উচ্চতায় পৌঁছে যায় যা এযাবত দেশটির সর্বোচ্চ।

কর্মকর্তারা বলছেন যে এটি প্রায় ৫৩ মিনিট ধরে উড়ে যায়। এই উড্ডয়নকাল হল দেশটির জন্য এখনো পর্যন্ত সর্বোচ্চ সময়। ক্ষেপণাস্ত্রটি সম্ভবত আন্তঃ মহাদেশীয় বা আইসিবিএম পর্যায়ের এবং এর পাল্লা হল সাড়ে পাঁচ হাজার কিলোমিটারের বেশি বলে তাঁরা আরও জানান।

ক্ষেপণাস্ত্রটির সর্বোচ্চ পাল্লা হিসাব করে দেখাসহ এটি স্বাভাবিক পথে উড়ে গেছে কিনা এবং এর অন্যান্য সামর্থ্য কি - এসকল তথ্য খুঁজে দেখার লক্ষ্যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এইজিস জাহাজের রেডার থেকে সংগ্রহ করা উপাত্ত পরীক্ষা করে দেখছে।

এখনো পর্যন্ত দেশটি নিক্ষেপিত যে ক্ষেপণাস্ত্রটি সর্বোচ্চ উচ্চতায় পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছিল সেটি ছিল হোয়াসং- ১৪ যেটি জুলাই মাসের ২৮ তারিখে খাড়া পথে নিক্ষেপ করা হয়েছিল। তবে, আজ নিক্ষেপিত ক্ষেপণাস্ত্রটি আগেরটির থেকেও পাঁচশো কিলোমিটার বেশি উচ্চতায় গিয়ে পৌঁছায়।একই সাথে এটি আট মিনিট বেশি উড়ে গেছে বলেও অনুমান করা হচ্ছে।

উত্তর কোরিয়া আজ ঘোষণা দিয়েছে যে তারা হোয়াসং- ১৫ নামের নতুন এক ধরনের আন্তঃ মহাদেশীয় ব্যলিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফলভাবে পরীক্ষা চালিয়েছে।


শহীদুলের ফাঁসি কার্যকর

বাংলাদেশ পারমাণবিক জগতে প্রথম পা রাখলেন


এ বিভাগের আরো খবর...

উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে
জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য
প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে? প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে?
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায়
মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন
সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন
গৃহকর্মী নামে ‘বৈধপথে’ মধ্যপ্রাচ্যেসহ অনেক দেশে নারী পাচার হচ্ছে? গৃহকর্মী নামে ‘বৈধপথে’ মধ্যপ্রাচ্যেসহ অনেক দেশে নারী পাচার হচ্ছে?
রাশিয়ায় বোমা হামলা ব্যার্থ:সিআইএ রাশিয়ায় বোমা হামলা ব্যার্থ:সিআইএ

সর্বাধিক পঠিত

হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে, মানুষ আশ্রয় খুঁজছে, ইউরোপে
জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য জার্মানে যৌন খেলনার ইতিহাস সেক্সশপ সাম্রাজ্য
প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে? প্রতিবার ট্রেন দুর্ঘটনা শিশুদের ভূমিকা থাকে?
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল যুক্তরাষ্ট্রের হার্টসফিল্ড-জ্যাকসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন,হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদিরিম এখন ঢাকায়
মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন মহিউদ্দিনের কুলখানিতে যেভাবে পদদলিতে নিহত হলো ১০ জন
সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন সৌদি যুবরাজের দেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান, বিদেশে বিলাসী জীবন
সমস্যায় ভুগছেন রানী সমস্যায় ভুগছেন রানী
হাঁপানি ও অ্যালার্জি এড়াতে জীবনযাত্রায় পরিবর্তন চাই
হাতিরঝিলে নির্মিত হচ্ছে দৃস্টিনন্দন ঢাকা অপেরা হাউস
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ভর্তি ফি সহনীয় পরিমাণে নির্ধারণ করুন?
চুক্তি অনুযায়ী ২২ জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গা ফেরত: বাংলাদেশ
শ্রীলঙ্কাকে ২ উইকেট হারিয়েই সিরিজ জিতল: ভারত
হোটেল থেকে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার!
ঢাকা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
রাশিয়া ও চীনের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়া চলছে
মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করে গেছেন ভাসানী: খালেদা জিয়া
‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে’ যোগ দিতে প্যারিস পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী