ঢাকা, জুলাই ১৯, ২০১৮, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » অর্থ–শেয়ারবাজার » অর্থনীতির তীব্র ঝুঁকিতে বাংলাদেশ!
সোমবার ● ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

অর্থনীতির তীব্র ঝুঁকিতে বাংলাদেশ!

---এমডি জালাল,বিশ্বব্যাংকের সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী বর্তমানে বাংলাদেশের মোট ঋণের ১১ শতাংশই খেলাপি হয়ে গেছে। খেলাপি ঋণ ভয়াবহ আকার ধারণ করায় অর্থনীতিতে তীব্র ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। ঋণখেলাপি, জালিয়াতি, আত্মসাৎ, এমনকি ব্যাংক ডাকাতি ও নানা আর্থিক কেলেঙ্কারি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, প্রতিযোগী দেশগুলো থেকে বাংলাদেশ অনেক পিছিয়ে পড়েছে। অথচ প্রতিবেশী দেশ ভারতে এটি ৪ দশমিক ৩৪ শতাংশ, হংকংয়ে শূন্য দশমিক ৯ শতাংশ, চীনে ১ দশমিক ৭৪ শতাংশ, মালয়েশিয়ায় ১ দশমিক ৬৫ শতাংশ, থাইল্যান্ডে ২ দশমিক ৮৮ শতাংশ এবং ফিলিপাইনে ১ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

এতে দেখা যাচ্ছে, প্রতিযোগী দেশগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ ভারতে ৪ দশমিক ৩৪ শতাংশের চেয়েও বাংলাদেশে খেলাপি ঋণ সাড়ে ৬ শতাংশের বেশি। বলার অপেক্ষা রাখে না, এত বেশি খেলাপি ঋণের বোঝা নিয়ে ব্যাংকিং খাত কোমর সোজা করে দাঁড়াতে পারবে না। বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে দেশের খেলাপি ঋণের এ চিত্রের পাশাপাশি অর্থনীতির আরও কিছু সমস্যা তুলে ধরা হয়। যার মধ্যে সুদের হার বেশি হওয়া, মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ঝুঁকি, শেয়ারবাজারে বাংকগুলোর বাড়তি বিনিয়োগ, জরুরি সামাজিক খাতে স্বল্প এবং টেকসই বিনিয়োগের অভাবের মতো বিষয়গুলো রয়েছে। সুদের হার বেশি হওয়ার পেছনে খেলাপি ঋণের বড় ভূমিকা উল্লেখযোগ্য। কারণ, বিতরণ করা ঋণ খেলাপি হয়ে পড়লে ব্যাংকের আয় কমে যায়। এতে করে চাইলেও তারা ঋণের সুদহার কমাতে পারে না। এ অবস্থায় অর্থনীতির সার্বিক ঝুঁকি দূর করতে হলে খেলাপি ঋণ, ঋণ কেলেঙ্কারি ও জালিয়াতি রোধে কঠোর অবস্থান নেয়ার বিকল্প নেই।
কেন্দ্রীয় ব্যাংককে শক্তিশালী করার পাশাপাশি স্বাধীন একটি কমিশন, আর্থিক অনিয়ম-দুর্নীতির বিচারের জন্য দ্রুত বিচার ও আপিল ট্রাইব্যুনাল ছাড়া ঋণখেলাপি, জালিয়াতি ও লুটপাট রোধ সম্ভব হবে না। এর বাইরে চিহ্নিত মোটা অঙ্কের ঋণখেলাপিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে। অন্যথায় ব্যাংকিং খাতের অনিয়ম রোধ অরণ্যে রোদন হয়েই থাকবে। যেখানে বেশিরভাগ প্রতিযোগী দেশের খেলাপি ঋণ মাত্র শূন্য দশমিক ৯ থেকে ১ দশমিক ৬৫-৯৫ পর্যন্ত, সেখানে আমাদের ১১ শতাংশ হওয়ার পেছনে রাজনৈতিক বিবেচনায় রাঘববোয়াল খেলাপিদের ছাড় দেয়া, সরকার ও শাসকদলের শীর্ষপর্যায়ের আশীর্বাদপুষ্ট হয়ে পার পাওয়া যে দায়ী, তা বলাই বাহুল্য। চীনে তো বড় ধরনের দুর্নীতি-অনিয়মের কারণে ফাঁসির নজিরও রয়েছে। অথচ আমরা নির্বিকার। এ অবস্থায় অর্থনীতির ঝুঁকি মোকাবেলায় খেলাপি ঋণের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানের নিতে হবে।


বাংলাদেশে-ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ৩ সদস্য আটক

চার নারী ধর্ষণে, পুলিশের ব্যর্থতা দায়ী- সিএমপি


এ বিভাগের আরো খবর...

ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া! ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া!
হাট ও বাজার আইন, ২০১৮’ এর খসড়া তৈরি করেছে- সরকার হাট ও বাজার আইন, ২০১৮’ এর খসড়া তৈরি করেছে- সরকার
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সামান্য গাফিলতি পেলে দায় সরকারের- অর্থ প্রতিমন্ত্রী কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সামান্য গাফিলতি পেলে দায় সরকারের- অর্থ প্রতিমন্ত্রী
ভল্টে থাকা সোনা হেরফের নিয়ে বৈঠক ডেকেছেন- অর্থ প্রতিমন্ত্রী ভল্টে থাকা সোনা হেরফের নিয়ে বৈঠক ডেকেছেন- অর্থ প্রতিমন্ত্রী
১০ টাকার শেয়ার এখন ৪২১০ টাকা ১০ টাকার শেয়ার এখন ৪২১০ টাকা
স্বর্ণ হেরফের হওয়ার অভিযোগ সত্য নয়- বাংলাদেশ ব্যাংক স্বর্ণ হেরফের হওয়ার অভিযোগ সত্য নয়- বাংলাদেশ ব্যাংক
পণ্যের দাম না বাড়ালে ব্যবসায়ীরা টিকবে কিভাবে- বাণিজ্যমন্ত্রী পণ্যের দাম না বাড়ালে ব্যবসায়ীরা টিকবে কিভাবে- বাণিজ্যমন্ত্রী
ডিসেম্বরে ৭৫৫টি পোশাক কারখানার সংস্কারকাজ, অন্যথায় কারখানা বন্ধ ডিসেম্বরে ৭৫৫টি পোশাক কারখানার সংস্কারকাজ, অন্যথায় কারখানা বন্ধ
ভারপ্রাপ্ত অর্থসচিব আবদুর রঊফ তালুকদার ভারপ্রাপ্ত অর্থসচিব আবদুর রঊফ তালুকদার
অ্যাকর্ড-অ্যালায়েন্সের মেয়াদ আর বাড়ছে না অ্যাকর্ড-অ্যালায়েন্সের মেয়াদ আর বাড়ছে না

সর্বাধিক পঠিত

মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসার গল্প শোনাল থাই কিশোররা মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসার গল্প শোনাল থাই কিশোররা
জাপান-ইইউ মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর জাপান-ইইউ মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর
ট্রাম্পের সমালোচনা করতে চাইছে - হোয়াইট হাউস ট্রাম্পের সমালোচনা করতে চাইছে - হোয়াইট হাউস
দুদকের অভিযানে সিভিল সার্জনের ঘুষের ‘প্রমাণ’ দাবি দুদকের অভিযানে সিভিল সার্জনের ঘুষের ‘প্রমাণ’ দাবি
রোহিঙ্গারা বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত জাতিতে পরিণত হতে যাচ্ছে- জাতিসংঘ রোহিঙ্গারা বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত জাতিতে পরিণত হতে যাচ্ছে- জাতিসংঘ
আমেরিকার মূল টার্গেট হচ্ছে ইয়েমেনে আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করা আমেরিকার মূল টার্গেট হচ্ছে ইয়েমেনে আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করা
ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া! ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া!
ইরানে নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছেন- ট্রাম্প ইরানে নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছেন- ট্রাম্প
তিন তালাক ফতোয়া: ইসলাম থেকে বের করার অধিকার কারও নেই তিন তালাক ফতোয়া: ইসলাম থেকে বের করার অধিকার কারও নেই
গুগলের ৫শ’ কোটি ডলার জরিমানা! গুগলের ৫শ’ কোটি ডলার জরিমানা!
ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসগুলো দুর্নীতির আখড়া!
রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে-গুতেরেস
শিশু মৃত্যু দায়ী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন?
প্রকল্প বাস্তবায়নে-দুর্নীতির দিকে নজর দিন?
মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?
আর্জেন্টিনা ১-০ নাইজেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া ০-০ আইসল্যান্ড
ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন?
প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটির মামলার প্রকৌশলীদের জামিন মঞ্জুর
কাঙ্খিত ফল পেতে হলে,ভেজালবিরোধী অভিযান চালু রাখতে হবে?
মাদকযুদ্ধে কেন হারবে বাংলাদেশ?