ঢাকা, জানুয়ারী ২০, ২০১৮, ৭ মাঘ ১৪২৪
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » পুলিশের কোয়ালিটি বাড়ানোর পথে রাজনীতি অন্তরায়: কাদের
বৃহস্পতিবার ● ১১ জানুয়ারী ২০১৮, ৭ মাঘ ১৪২৪
Email this News Print Friendly Version

পুলিশের কোয়ালিটি বাড়ানোর পথে রাজনীতি অন্তরায়: কাদের

---বিবিসি২৪নিউজ,পুলিশে নিয়োগে দৃশ্যত রাজনীতিক-কর্মকর্তাদের ‘ভাগাভাগিকে’ ইঙ্গিত করে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, “পুলিশের কোয়ালিটি বাড়ানোর পথে রাজনীতি অন্তরায়। পুলিশের কোয়ালিটি কীভাবে বাড়বে? প্রতি বছরই পুলিশে ভাগাভাগি হচ্ছে। অমুক জেলায় পাঁচজন এমপি ওখানে পাঁচজন দিতে হবে। তখন উনারাও ভাগ নেন।”

পুলিশের মানোন্নয়নে রাজনীতি বাধা হিসেবে কাজ করছে বলে স্বীকার করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সভায় বক্তব্যে প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও পুলিশ কর্মকর্তাদের ন্যায়নীতির মধ্যে থেকে সাহসের পরিচয় দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সরকারের এই মন্ত্রী।

সম্প্রতি ঠাকুরগাঁওয়ে এক দলীয় সভায় এই নিয়োগ বাণিজ্যকারীদের সতর্ক করে তিনি বলেন, “প্রাইমারি স্কুলের নৈশ প্রহরীর চাকরি দিয়ে যারা টাকা খায় তারা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবে না। পুলিশ কনস্টেবল কত গরিব মানুষ, এখানে ভাগ বসায়, আমার দুজন, পাঁচজন, আমার সাতজন; আর গরিব লোক জমি বিক্রি করে টাকা দেয় এসব লোক আওয়ামী লীগের নেতা হতে পারে না।”

রাজনীতিকরা শোধরালে পুলিশেরও উন্নতি হবে বলে মনে করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
তিনি বলেন, “এমপি-মন্ত্রীরা নিজেদের পছন্দের ওসি-এসপি খোঁজে কেন? ওসি-এসপি আমাদের কথা শোনে না এই জন্য। অনেকে সৎ থাকলেও এটা সমস্যা, বদলাতে হবে। অর্থাৎ এ দেশে রাজনীতিকরা সঠিক পথে থাকলে পুলিশও সঠিক হয়ে যেত।
“পুলিশ সম্পর্কে আমাদের ধারণাটা পাল্টাতে হবে। আর এর জন্য রাজনীতিকরা চাঁদাবাজি বন্ধ করলে পুলিশের চাঁদাবাজিও বন্ধ হয়ে যাবে।”

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনস মিলনায়তনে পুলিশ কর্তাদের অ্যাসোসিয়েশনের ৩৮তম বার্ষিক সাধারণ সভায় বক্তব্য দেন ওবায়দুল কাদের।

নির্বাচন সামনে রেখে বিশৃঙ্খলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, “নির্বাচন আর বেশি দেরি নেই। নির্বাচন সামনে রেখে কোনো রকম পার্শিয়ালিটি না করে দুষ্টের দমন সৃষ্টের পালন কঠিনভাবে দেখতে হবে।”

সভায় পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক বলেন, “আমাদের পুলিশের জব স্যাটিসফ্যাকশন নাই। রাজনৈতিক আন্দোলনের নামে পুলিশ হত্যা করেও আমাদের মনোবল ভাঙতে পারবে না, তবে আমাদের জব স্যাটিসফ্যাকশন থাকতে হবে।


পরমাণু সমঝোতা ছাড়াও ইরানের পাশে থাকবে- রাশিয়া

মাওলানা সাদ অবরোদ্ধ:দিল্লি ফেরত যাচ্ছেন?


এ বিভাগের আরো খবর...

রাখাইনে ফেরত যেতে চান না-রোহিঙ্গারা রাখাইনে ফেরত যেতে চান না-রোহিঙ্গারা
ব্যাংকে অনিয়ম জন্মলগ্ন থেকে: অর্থমন্ত্রী ব্যাংকে অনিয়ম জন্মলগ্ন থেকে: অর্থমন্ত্রী
ব্যাংকিং খাতে ব্যর্থতায় সরকারের অর্থনৈতিক সাফল্য ম্লান-এমপি ইসরাফিল ব্যাংকিং খাতে ব্যর্থতায় সরকারের অর্থনৈতিক সাফল্য ম্লান-এমপি ইসরাফিল
আবারও নারায়ণগঞ্জের ফুটপাত হকারের দখলে আবারও নারায়ণগঞ্জের ফুটপাত হকারের দখলে
মেয়র আইভী শঙ্কামুক্ত,বিশ্রামে থাকার পরামর্শ চিকিৎসকের মেয়র আইভী শঙ্কামুক্ত,বিশ্রামে থাকার পরামর্শ চিকিৎসকের
কার দখলে নারায়ণগঞ্জ কার দখলে নারায়ণগঞ্জ
সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ,২৫ ফেব্রুয়ারির ফল প্রকাশের আশ্বাস-ঢাবি উপাচার্যের সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ,২৫ ফেব্রুয়ারির ফল প্রকাশের আশ্বাস-ঢাবি উপাচার্যের
ইসরাইল-ভারত ৫০ কোটি ডলারের অস্ত্রচুক্তি পুনরুজ্জীবিত ইসরাইল-ভারত ৫০ কোটি ডলারের অস্ত্রচুক্তি পুনরুজ্জীবিত
উ. কোরিয়াকে রাশিয়া সহায়তা করছে: ট্রাম্প উ. কোরিয়াকে রাশিয়া সহায়তা করছে: ট্রাম্প
অবশেষে দুই কোরিয়া এক পতাকার নিচে অবশেষে দুই কোরিয়া এক পতাকার নিচে

সর্বাধিক পঠিত

রাখাইনে ফেরত যেতে চান না-রোহিঙ্গারা রাখাইনে ফেরত যেতে চান না-রোহিঙ্গারা
ব্যাংকে অনিয়ম জন্মলগ্ন থেকে: অর্থমন্ত্রী ব্যাংকে অনিয়ম জন্মলগ্ন থেকে: অর্থমন্ত্রী
ব্যাংকিং খাতে ব্যর্থতায় সরকারের অর্থনৈতিক সাফল্য ম্লান-এমপি ইসরাফিল ব্যাংকিং খাতে ব্যর্থতায় সরকারের অর্থনৈতিক সাফল্য ম্লান-এমপি ইসরাফিল
আবারও নারায়ণগঞ্জের ফুটপাত হকারের দখলে আবারও নারায়ণগঞ্জের ফুটপাত হকারের দখলে
মেয়র আইভী শঙ্কামুক্ত,বিশ্রামে থাকার পরামর্শ চিকিৎসকের মেয়র আইভী শঙ্কামুক্ত,বিশ্রামে থাকার পরামর্শ চিকিৎসকের
কার দখলে নারায়ণগঞ্জ কার দখলে নারায়ণগঞ্জ
সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ,২৫ ফেব্রুয়ারির ফল প্রকাশের আশ্বাস-ঢাবি উপাচার্যের সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ,২৫ ফেব্রুয়ারির ফল প্রকাশের আশ্বাস-ঢাবি উপাচার্যের
ইসরাইল-ভারত ৫০ কোটি ডলারের অস্ত্রচুক্তি পুনরুজ্জীবিত ইসরাইল-ভারত ৫০ কোটি ডলারের অস্ত্রচুক্তি পুনরুজ্জীবিত
উ. কোরিয়াকে রাশিয়া সহায়তা করছে: ট্রাম্প উ. কোরিয়াকে রাশিয়া সহায়তা করছে: ট্রাম্প
অবশেষে দুই কোরিয়া এক পতাকার নিচে অবশেষে দুই কোরিয়া এক পতাকার নিচে
কক্সবাজারে একই পরিবারের ৪ জনের লাশ উদ্ধার
বিচারাধীন মামলা ৩৩ লাখ : আইনমন্ত্রী
কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র
ভয় পেলেন মালিক!
ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে রিট
তামিম-সাকিব বাংলাদেশের ক্রিকেট ‘হোম!
ছবি ‘শোলের’সেন্সর বোর্ডের জন্য মরতে হয়েছিল অমিতাভকে!
শিগগিরই প্রাথমিকে ৬ হাজার শিক্ষক নিয়োগ
গ্যাসের অপেক্ষা আর কত দিন?
বিবিআইএনে ভুটান নেই!