ঢাকা, নভেম্বর ২০, ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » অর্থ–শেয়ারবাজার » ব্যাংকে অনিয়ম জন্মলগ্ন থেকে: অর্থমন্ত্রী
বৃহস্পতিবার ● ১৮ জানুয়ারী ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

ব্যাংকে অনিয়ম জন্মলগ্ন থেকে: অর্থমন্ত্রী

---বিবিসি২৪নিউজ,ঢাকা :দেশের জন্মলগ্ন থেকে ব্যাংকগুলোতে ত্রুটি, অনিয়মের শুরু হয়। দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থা এখনো পুরোপুরি ত্রুটিমুক্ত নয়। তবে এটাকে ত্রুটিমুক্ত করতে সরকারের চেষ্টার কমতি নেই। এগুলো কার্যকর করতে একটু সময় লাগে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ।

তিনি বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে এক সিদ্ধান্ত প্রস্তাবের জবাবে অর্থমন্ত্রী এই কথা বলেন। আজ সংসদের বেসরকারি দিবসে প্রস্তাবটি এনেছিলেন সরকার দলীয় সাংসদ ইসরাফিল আলম। তবে পরে তিনি প্রস্তাবটি প্রত্যাহার করে নেন।

প্রস্তাবে ইসরাফিল বলেন, ‘ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে অনিয়ম ও ত্রুটিমুক্তভাবে পরিচালনা করার জন্য স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করা হোক।’
জবাবে অর্থমন্ত্রী ব্যাংক খাতের সুশাসন নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে বলেন এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশের ব্যাংকগুলোতে অনিয়ম ও ত্রুটি বাংলাদেশের জন্মলগ্ন থেকে শুরু হয় এবং এক সময় মারাত্মক আকার ধারণ করে। একসময় খেলাপি ঋণ হয়ে যায় ৪০ শতাংশ। এখন তা ১১-১২ শতাংশে নেমে এসেছে।
প্রস্তাব তোলার সময় ইসরাফিল বলেন, সরকারের অর্থনৈতিক সাফল্য অনেকটাই ম্লান হয়ে গেছে ব্যাংক খাতের কিছু বিশৃঙ্খলার কারণে। ব্যাংক খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে না পারলে রাষ্ট্র পরিচালনার সংকট দৃশ্যমান হয়ে ওঠে। ২০১৭ সালে ব্যাংক খাত নড়বড়ে অবস্থায় পড়েছে। ৫৭টি ব্যাংকের মধ্যে ২০ টিতে আর্থিক অবস্থা ছিল দৃশ্যমানভাবে খারাপ। অন্য ব্যাংকগুলোতেও কমবেশি সুশাসনের অভাব ছিল।
ইসরাফিল বলেন, খেলাপি ঋণ মারাত্মকভাবে বেড়েছে। নামে-বেনামে ইচ্ছামতো ঋণ নেওয়া হয়েছে। ব্যাংকের পরিচালক, নির্বাহী, বড় কর্মকর্তারা এসব কাজের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। এটার জন্য তদন্ত করার দরকার নেই। খোলা চোখে মানুষ দেখেছে, জেনেছে। কিন্তু মন্ত্রণালয়, সরকার, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। ব্যাংক খাতের ওপর বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণ ও তদারকি বৃদ্ধি পাওয়ার বদলে দুর্বল হয়েছে। কিছু কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে যা জোড়াতালি দেওয়ার মতো। যা প্রয়োজনের তুলনায় যথার্থ ছিল না।

নওগাঁ থেকে নির্বাচিত সরকারদলীয় সাংসদ ইসরাফিল বলেন, ‘সরকারের প্রচেষ্টা নেই, আইন নেই, জনবল নেই—এ কথা বলতে পারি না। কিন্তু যারা এসব আইন প্রয়োগের দায়িত্বে আছে, প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে আছে তাদের ব্যর্থতার জন্য আর্থিক সেক্টর বিপর্যয়ের মুখে বিপন্নতার মুখে পতিত হয়েছে তার দায়িত্ব সরকার ও সংসদকে গ্রহণ করতে হচ্ছে। আওয়ামী লীগকেও বহন করতে হচ্ছে।’ তিনি ঋণ খেলাপিদের নাম ঘোষণা করা, কুঋণ দেওয়ার সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তাদের নাম প্রকাশ করার দাবি জানান।

ইসরাফিল বলেন, রাষ্ট্রীয় ব্যাংকগুলোতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে। লুটপাটের পরেও সরকারকে হাজার হাজার কোটি টাকা মূলধনের জোগান দিতে হচ্ছে। যে টাকা জনগণের করের টাকা, সাধারণ মানুষের ঘাম ঝরানো টাকা। নতুন ব্যাংকগুলো আমানতকারীদের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়নি। তারপরও নতুন নতুন ব্যাংকের লাইসেন্স দেওয়া হচ্ছে।
ইসরাফিল আরও বলেন, এখন সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাংক নিয়ে চরম সন্দেহ-সমালোচনা তৈরি হয়েছে।


ব্যাংকিং খাতে ব্যর্থতায় সরকারের অর্থনৈতিক সাফল্য ম্লান-এমপি ইসরাফিল

রাখাইনে ফেরত যেতে চান না-রোহিঙ্গারা


এ বিভাগের আরো খবর...

তেল দৈনিক ১০ লাখ ব্যারেল বাড়াতে চায় ভেনিজুয়েলা তেল দৈনিক ১০ লাখ ব্যারেল বাড়াতে চায় ভেনিজুয়েলা
পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১১ টাকা পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১১ টাকা
ভারতের ৫৮ লাখ টন চাল রফতানি ৬ মাসে ভারতের ৫৮ লাখ টন চাল রফতানি ৬ মাসে
বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম
জাতীয় পার্টি আবার জেগে উঠেছে: এরশাদ জাতীয় পার্টি আবার জেগে উঠেছে: এরশাদ
পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে- ইসি সচিব পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে- ইসি সচিব
সম্পদের হিসাব না দেওয়ায় রফিকুলের সাজা সম্পদের হিসাব না দেওয়ায় রফিকুলের সাজা
বদি-রানাকে মনোনায়ন দেওয়া হচ্ছে না- কাদের বদি-রানাকে মনোনায়ন দেওয়া হচ্ছে না- কাদের
শরিকদের ৩৫-৪০ আসন দিতে চায় বিএনপি শরিকদের ৩৫-৪০ আসন দিতে চায় বিএনপি
শ্রীলংকার বৈরী আবহাওয়ার চা উৎপাদন কম শ্রীলংকার বৈরী আবহাওয়ার চা উৎপাদন কম

সর্বাধিক পঠিত

তেল দৈনিক ১০ লাখ ব্যারেল বাড়াতে চায় ভেনিজুয়েলা তেল দৈনিক ১০ লাখ ব্যারেল বাড়াতে চায় ভেনিজুয়েলা
পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১১ টাকা পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১১ টাকা
দীপিকা-রণবীর মুম্বইতে ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুদের, সহকর্মীদের জন্য পার্টি দেবেন দীপিকা-রণবীর মুম্বইতে ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুদের, সহকর্মীদের জন্য পার্টি দেবেন
ভারতের ৫৮ লাখ টন চাল রফতানি ৬ মাসে ভারতের ৫৮ লাখ টন চাল রফতানি ৬ মাসে
খালি গায়ে ঘর পরিষ্কার করে মাসিক আয় ৪ লাখ টাকা! খালি গায়ে ঘর পরিষ্কার করে মাসিক আয় ৪ লাখ টাকা!
কাঁকড়ার রক্ত ১১ লাখ টাকা প্রতি লিটার! কাঁকড়ার রক্ত ১১ লাখ টাকা প্রতি লিটার!
বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম
জাতীয় পার্টি আবার জেগে উঠেছে: এরশাদ জাতীয় পার্টি আবার জেগে উঠেছে: এরশাদ
পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে- ইসি সচিব পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে- ইসি সচিব
সম্পদের হিসাব না দেওয়ায় রফিকুলের সাজা সম্পদের হিসাব না দেওয়ায় রফিকুলের সাজা
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে