ঢাকা, ডিসেম্বর ১২, ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » গুম-খুনের বিষয়-আমলে নেয়া উচিত?
বুধবার ● ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

গুম-খুনের বিষয়-আমলে নেয়া উচিত?

---এমডি জালাল:বিশ্বের ১৫৯টি দেশের তথ্যের ওপর ভিত্তি করে, বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ২০১৭-১৮ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রণীত প্রতিবেদনটির বাংলাদেশ অংশে বলা হয়েছে- এখানে বিরোধী দলের সমর্থকদের টার্গেট করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়মিত গুমের ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে এবং কোনো কোনো নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ পাওয়া গেলেও অনেকের হদিস মিলছে না।

মানবাধিকার সংস্থাটি আরও বলেছে, বাংলাদেশ সরকার মতপ্রকাশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে এবং মানবাধিকার কর্মী ও সাংবাদিকদের হেনস্তা করার লক্ষ্যে নিপীড়নমূলক আইন ব্যবহার করে যাচ্ছে। সাংবাদিক নির্যাতনেরও অভিযোগ করেছে অ্যামনেস্টি।

কারাগারে পুলিশি নির্যাতন বেড়ে চলেছে উল্লেখ করে বলা হয়েছে, আইনপ্রণেতাদের অনীহা ও রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাবে ২০১৩ সালের নির্র্যাতন ও বন্দিমৃত্যু প্রতিরোধ আইনের কোনো প্রয়োগ দেখা যাচ্ছে না। তবে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের প্রতিবেদনে গত এক দশকে বাংলাদেশে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির কারণে দারিদ্র্যবিমোচনের অভূতপূর্ব সাফল্যের কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ১৯৬১ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে প্রতিবছর বিশ্বের মানবাধিকার পরিস্থিতি তুলে ধরছে। এ সংস্থার আন্তর্জাতিক খ্যাতিও রয়েছে। সুতরাং বাংলাদেশে গত বছরের মানবাধিকার পরিস্থিতি সম্পর্কে সংস্থাটি যেসব কথা বলেছে, তা হেলাফেলার নয়। বস্তুত দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি যে ভালো নয়, তা জোর দিয়ে বলার প্রয়োজন পড়ে না। সবচেয়ে উদ্বেগের বিষয় হল, গুম-অপহরণ-খুন ইত্যাদি ঘটনা কেন ঘটছে এবং প্রকৃতপক্ষে কারা এসব ঘটাচ্ছে, তার বিশ্বাসযোগ্য কোনো সদুত্তর পাওয়া যাচ্ছে না।

তবে অপহরণের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সম্পৃক্ততার অভিযোগ উঠে থাকে প্রায়ই। এটা ঠিক, গুম ও অপহরণের ঘটনাগুলোর প্রতিটি যে রাজনৈতিক কারণে ঘটছে তা নয়, নানা ধরনের ব্যক্তি ও গোষ্ঠীস্বার্থের কারণেও গুম-খুন হচ্ছে ধরে নেয়া যায়। আমরা শুধু এটুকু বলতে চাই- গুম-খুনের এই ধারাবাহিকতার ইতি টানতে হবে এবং তা যে কোনো উপায়ে।

অ্যামনেস্টির প্রতিবেদনে নিপীড়নমূলক আইনের যে কথা বলা হয়েছে, সেটাও উড়িয়ে দেয়া যাবে না। প্রস্তাবিত ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়েও রয়েছে নানা কথা। সাংবাদিক মহল ইতিমধ্যে মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত আইনের খসড়াটির সমালোচনা করে এর সংশোধন দাবি করেছে।

জনগণের নিরাপত্তাকে হুমকির মধ্যে রেখে উন্নয়নের ওপর জোর দেয়াটা কাজের কথা নয়। উন্নয়ন ও জননিরাপত্তা দুটোই থাকতে হবে দেশে। জননিরাপত্তার প্রশ্নে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সক্ষমতা যে সবচেয়ে বড় শর্ত সেটাও বুঝতে হবে। আমরা মনে করি, সংসদে পাস হওয়ার আগে খসড়া আইনটির পুনর্বিবেচনা করা হবে। অ্যামনেস্টি দারিদ্র্যবিমোচনে বর্তমান সরকারের সাফল্যের স্বীকৃতি দিয়েছে। এই সাফল্যের সঙ্গে যদি দেশে একটা নিরাপদ ও গণতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করা যায়, তাহলে তা হবে বর্তমান সরকারের জন্য এক বড় মাপের সাফল্য।


বেড়েছে সূচক, কমেছে কেনাবেচা

নষ্ট ডিম চেনার উপায়?


এ বিভাগের আরো খবর...

নির্বাচন কমিশনকে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করতে হবে
ভিকারুননিসার ছাত্রী-অরিত্রীর আত্মহত্যা-দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত! ভিকারুননিসার ছাত্রী-অরিত্রীর আত্মহত্যা-দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত!
শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে লাগেজ চুরি ঘটনা আবারও বেড়ে গেছে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে লাগেজ চুরি ঘটনা আবারও বেড়ে গেছে
বাংলাদেশে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ করতে হবে-এমসিসির মূল্যায়ন বাংলাদেশে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ করতে হবে-এমসিসির মূল্যায়ন
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়? বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়?
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল? বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয় বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয়
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি? শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?

সর্বাধিক পঠিত

১৮ বছরের সর্বোচ্চে পাম অয়েল মজুদ - মালয়েশিয়া ১৮ বছরের সর্বোচ্চে পাম অয়েল মজুদ - মালয়েশিয়া
১৬৩ দিনে  ৫৯ লাখ টন সয়াবিন আমদানি ইইউর ১৬৩ দিনে ৫৯ লাখ টন সয়াবিন আমদানি ইইউর
যতই নির্যাতন করুক মাঠ ছাড়ব না- মওদুদ যতই নির্যাতন করুক মাঠ ছাড়ব না- মওদুদ
নাজিবের বিরুদ্ধে নতুন দুর্নীতির মামলা নাজিবের বিরুদ্ধে নতুন দুর্নীতির মামলা
আইপিওর অর্থ অনিয়ম : প্যাসিফিক এমডিকে কোম্পানির অর্থ ফেরত দেয়ার নির্দেশ আইপিওর অর্থ অনিয়ম : প্যাসিফিক এমডিকে কোম্পানির অর্থ ফেরত দেয়ার নির্দেশ
ডিসি-কমিশনারদের রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ কেন অবৈধ নয়- হাইকোর্ট ডিসি-কমিশনারদের রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ কেন অবৈধ নয়- হাইকোর্ট
জ্বালানির মূল্যযুদ্ধ করছে ইরান ? জ্বালানির মূল্যযুদ্ধ করছে ইরান ?
আ’লীগ ভোট চুরি করতে পারে: ফখরুল আ’লীগ ভোট চুরি করতে পারে: ফখরুল
আইপিএল এর নিলামে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ আইপিএল এর নিলামে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ
ইসিতে বিএনপির প্রতিনিধিদল ইসিতে বিএনপির প্রতিনিধিদল
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে
জলবায়ু পরিবর্তনের যুদ্ধে নারীর অংশগ্রহণ করতে হবে-প্যাট্রিসিয়া
বিএনপির দুটি আসনের পরিবর্তন
কলেজ শিক্ষক আলী হোসেন হত্যা দুইজনের ত্যুদণ্ড
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার