ঢাকা, জানুয়ারী ২২, ২০১৯, ৯ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » কোটা আন্দোলনকারীদের জয় হলেও মেধাবীরা কতটুকু সুযোগ পাবে?
বুধবার ● ১১ এপ্রিল ২০১৮, ৯ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

কোটা আন্দোলনকারীদের জয় হলেও মেধাবীরা কতটুকু সুযোগ পাবে?

---এমডি জালাল: বাংলাদেশে বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে ৫৬ শতাংশ কোটা রয়েছে। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা কোটা ৩০ শতাংশ, জেলাভিত্তিক কোটা ১০ শতাংশ, নারীদের জন্য ১০ শতাংশ এবং ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জন্য ৫ শতাংশ। তবে নিয়ম অনুসারে এসব কোটায় যোগ্য প্রার্থী না পাওয়া গেলে ১ শতাংশ প্রতিবন্ধীদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে। অর্থাৎ মেধার ভিত্তিতে চাকরির সুযোগ রয়েছে মাত্র ৪৪ শতাংশ চাকরিপ্রার্থীর। মেধার চেয়ে কোটা বেশি হওয়ায় মেধাবী চাকরিপ্রার্থীদের একটি অংশ সরকারি চাকরি থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

গত রোববার কোটা আন্দোলনকারীদের দিনভর শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি রাতে সহিংস হয়ে উঠেছিল। এ সময় রাজধানীর শাহবাগ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় অবস্থান নেয়া শিক্ষার্থীদের পুলিশ তুলে দিতে চাইলে দু’পক্ষে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হন। আহত হয়েছেন কয়েকজন পুলিশ সদস্যও। শিক্ষার্থীরা এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের ভবনে ভাংচুর করে এবং গাড়ি ও আসবাবপত্রে আগুন লাগিয়ে দেয়। পুলিশ অনেককে আটক করছে বলেও জানা গেছে। সোমবারও আন্দোলনকারীরা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় মিছিল-সমাবেশ করেছেন। মিছিলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছেন বলে জানা গেছে। শুধু রাজধানী নয়, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে চট্টগ্রাম, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মিছিল-অবরোধের ঘটনা ঘটেছে।

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবি জোরদার হয়ে ওঠার পরিপ্রেক্ষিতে আন্দোলনকারীদের প্রতিনিধির সঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বৈঠক হয়। বৈঠকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর আগামী এক মাসের মধ্যে কোটা পদ্ধতি সংস্কারের আশ্বাস দেয়া হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আন্দোলনকারীরা এক মাসের জন্য আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করেছে। অপরদিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বৃহৎ অংশ তাদের দাবির প্রতি অনড়। তারা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

চাকরিপ্রার্থীরা কোটা সংস্কারের জন্য যে পাঁচ দফা দাবিতে আন্দোলন করছেন, সেই দাবিগুলো ন্যায্য।
এ বিষয়ে কারও দ্বিমত নেই যে, একটা সময় পর্যন্ত জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান-সন্ততি ও নারীসহ পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য চাকরিতে কোটা পদ্ধতির প্রয়োজন ছিল। তবে সময়ের পরিক্রমায় পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটেছে। বিশ্বের সর্বত্র এখন মেধাকে দেয়া হয় সর্বাধিক গুরুত্ব। আমাদের দেশেও প্রশাসনসহ সরকারি কর্মকাণ্ডে দক্ষতা বাড়াতে মেধার প্রতি গুরুত্ব বাড়ানোর বিকল্প নেই। চাকরি ক্ষেত্রে বৈষম্যের অবসানেও এর প্রয়োজন। সংবিধানের ১৯ (১), ২৯ (১) ও ২৯ (২) অনুচ্ছেদে চাকরির ক্ষেত্রে সব নাগরিকের সমান সুযোগের কথা বলা হয়েছে। আবারও এটিও সত্য, পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে নিয়ে আসার জন্য সংবিধানে কোটার বিষয়ে বলা রয়েছে।

আজ বাংলাদেশে সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিল করেছে । সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে বারবার আন্দোলন হতে পারে, আর যাতে এ ধরনের দুর্ভোগের সৃষ্টি না হয়, সেজন্য কোটা পদ্ধতি বাতিল বলে সংসদকে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চাকরি ক্ষেত্রে কোটা পদ্ধতির দরকার নেই উল্লেখ করে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কোটা থাকলেই আবার সংস্কার। তাহলে কোটা থাকারই দরকার নাই। কোটা থাকলেই বার বার আন্দোলন হবে। ক্লাস বন্ধ, পড়াশোনা বন্ধ, সাধারণ মানুষের কষ্ট। বার বার মানুষ কষ্ট পাবে। বার বার মানুষ কষ্ট পাবে কেন? তার চেয়ে বাদ দেয়াই তো ভালো।আন্দোলনকারীদের উদ্দেশ্যে শেখ হাসিনা বলেন, “আন্দোলন যথেষ্ট করেছে, এবার তারা বাড়ি ফিরে যাক।আজ বিকেলে জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারাদেশে ছাত্ররা যেহেতু আর কোটা ব্যবস্থা চায় না সেহেতু এখন থেকে বাংলাদেশে আর কোটা ব্যবস্থা থাকবে না। এখন থেকে মেধার ভিত্তিতে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দেয়া হবে।


আন্দোলন স্থগিত, বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা

আন্দোলনটি ছিল ছাত্রদের পুঞ্জিভূত ক্ষোভের প্রতিফলন- মওদুদ


এ বিভাগের আরো খবর...

দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয় খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে! মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে? ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন! বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
ইশতেহার নয়, কাজে বিশ্বাস করে দেশবাসী ইশতেহার নয়, কাজে বিশ্বাস করে দেশবাসী

সর্বাধিক পঠিত

ওস্তাদের মার শেষ রাতেকিন্তু ‘ওস্তাদ’ হতে পারলেন না গেইল ওস্তাদের মার শেষ রাতেকিন্তু ‘ওস্তাদ’ হতে পারলেন না গেইল
কঙ্গনা ফুঁসে উঠলেন কঙ্গনা ফুঁসে উঠলেন
ব্র্যাড পিট-থেরন প্রেম করছেন ব্র্যাড পিট-থেরন প্রেম করছেন
শান্ত আজ হঠাৎ করেই একটু অশান্ত শান্ত আজ হঠাৎ করেই একটু অশান্ত
বাংলাদেশের কেউ নেই আইসিসির বর্ষসেরা টেস্ট দলে বাংলাদেশের কেউ নেই আইসিসির বর্ষসেরা টেস্ট দলে
বিএনপি জয়নুলের কাদায় আটকে পড়া গরুর গাড়ি: কাদের বিএনপি জয়নুলের কাদায় আটকে পড়া গরুর গাড়ি: কাদের
আইসিসিও মেনে নিচ্ছে কোহলির শ্রেষ্ঠত্ব আইসিসিও মেনে নিচ্ছে কোহলির শ্রেষ্ঠত্ব
অনৈতিকতার পথে হেঁটে কখনো ভালো ফল পাওয়া যায় না- শিক্ষামন্ত্রী অনৈতিকতার পথে হেঁটে কখনো ভালো ফল পাওয়া যায় না- শিক্ষামন্ত্রী
রাশিয়ার উপকূলে ২ জাহাজে আগুন, নিহত ১৪ রাশিয়ার উপকূলে ২ জাহাজে আগুন, নিহত ১৪
সিরাজগঞ্জে গৃহবধূ হত্যায় স্বামীসহ ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে- আদালত সিরাজগঞ্জে গৃহবধূ হত্যায় স্বামীসহ ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে- আদালত
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে