ঢাকা, মে ২৩, ২০১৮, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে
মঙ্গলবার ● ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে

---আবদুল মালেক শিপন:রাজধানীবাসীকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রকল্পের কাজ থাকায়। দুর্ভোগ অনেকটাই লাঘব করা সম্ভব হতো, যদি সময়মতো প্রকল্পের কাজ শেষ করা যেত। কিন্তু ধীরগতিতে প্রকল্প চলবে এবং বারবার সময় বাড়ানো হবে।মেট্রোরেলসহ রাজধানীজুড়ে বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে। এসব কাজের অংশ হিসেবে রাস্তাঘাট খোঁড়াখুঁড়ি, কাটা-ছেঁড়ায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে। এ এটা যেন অলিখিত নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে আর এক মাস পরই বর্ষা মৌসুম শুরু হতে যাচ্ছে। এর মধ্যে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটাতে না পারলে রাজধানীবাসীকে যে এ সময় চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হবে, তা সহজেই অনুমেয়।

বছরজুড়েই রাজধানীতে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ চলে, যার বেশির ভাগের জন্য রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ির প্রয়োজন হয়। পানি সরবরাহ বা নিষ্কাশন থেকে শুরু করে গ্যাস সরবরাহ, টেলিফোন সেবা, তথ্যপ্রযুক্তি সেবা— সবকিছুর জন্যই রাস্তা খুঁড়তে হয়। উড়াল সেতুর জন্য যেমন রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি করতে হয়েছে, মেট্রোরেলের ক্ষেত্রেও তা-ই। এসব কাজের ফলে পাড়া-মহল্লার রাস্তাঘাটে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। আবার দেখা যায়, এক সংস্থার কাজ শেষে কিছুদিন যেতেই আরেক সংস্থা কাজে নেমে পড়ে।

আর এসব কাজ সময়মতো শেষ করতে না পারায় নগরবাসীর দুর্ভোগের ইতি ঘটে না। উপরন্তু, বছরজুড়ে কাজ চললেও বর্ষার সময় রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি যেন বেড়ে যায়। অন্যদিকে বেশির ভাগ সময় দেখা যায়, যেসব সংস্থা নিজেদের কাজে রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি করে, তারা সেসব স্থান তেমনই রেখে যায় বা দায়সারাভাবে মাটি চাপা দেয়। এগুলো ঠিক হতে লাগে দীর্ঘ সময়। এমন কাজের ফলে নগরবাসীকে যে দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে যেতে হয়, সংশ্লিষ্টরা কি তা অনুধাবন করেন না? প্রতি বছর এমন কাজের পুনরাবৃত্তি দেখে মনে হয়, তারা জনগণের এ দুর্ভোগ বিবেচনায় নেন না।

রাস্তাঘাটের দুরবস্থার কারণে নগরবাসীকে শুধু চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হয় না, শারীরিক ও আর্থিক ক্ষতির মধ্য দিয়েও যেতে হয়। জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে বিভিন্ন রোগবালাইয়ের উপদ্রব ঘটে। ভাঙাচোরা ও খানাখন্দময় রাস্তাঘাটে চলাচল করতে গিয়ে নানা দুর্ঘটনায় পড়তে হয় মানুষকে। অন্যদিকে যানজট মারাত্মক আকার ধারণ করে নষ্ট হয় মানুষের মূল্যবান কর্মঘণ্টা। প্রতি বছর উন্নয়নের নামে বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করা হয়, কিন্তু নগরবাসীর দুর্ভোগ কমে না। এ থেকে কি নগরবাসীর মুক্তি নেই?

নগরবাসীর দুর্ভোগ ও ক্ষতি লাঘবে জরুরি ভিত্তিতে উদ্যোগ নেয়া উচিত। আসন্ন বর্ষা মৌসুমে দুর্ভোগ কমাতে চলমান প্রকল্পগুলোর কাজ দ্রুত শেষ করতে হবে। আপাতত রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ির কাজ বন্ধ রাখা যেতে পারে, গর্ত ও খানাখন্দময় রাস্তাগুলো জরুরি ভিত্তিতে মেরামত করতে হবে। অন্যদিকে পানি নিষ্কাশনের জন্য নালা-নর্দমা পরিষ্কার রাখার ওপর জোর দিতে হবে।

তবে সমস্যা সমাধানে আমাদের দীর্ঘমেয়াদি ও টেকসই পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। এজন্য সবার আগে বিভিন্ন সংস্থা ও কর্তৃপক্ষের কাজের মধ্যে যে সমন্বয়হীনতা রয়েছে, তা দূর করতে হবে। পরিকল্পনা নিতে হবে সম্মিলিতভাবে।


হাওড়ের ফলন ১০ শতাংশ নষ্ট হওয়ার শঙ্কা

কানাডায় গাড়ির নিচে চাপা পড়ে নিহত ১০ আহত ১৫ জন!


এ বিভাগের আরো খবর...

অসহনীয় যানজট নিরসনে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নিন? অসহনীয় যানজট নিরসনে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নিন?
অনুমোদন বাতিল হওয়া দরকার ১২২ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের? অনুমোদন বাতিল হওয়া দরকার ১২২ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের?
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট মহাকাশযাত্রা বাংলাদেশের জন্য মাইলফলক বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট মহাকাশযাত্রা বাংলাদেশের জন্য মাইলফলক
বন জলবায়ু আলোচনায় যে সিদ্ধান্ত হয়েছে বন জলবায়ু আলোচনায় যে সিদ্ধান্ত হয়েছে
জলবায়ু পরিবর্তনে প্যারিস চুক্তির সাথে চারশো বড় কোম্পানি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে জলবায়ু পরিবর্তনে প্যারিস চুক্তির সাথে চারশো বড় কোম্পানি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে
আবারও অশান্ত হয়ে উঠছে পাহাড়ি এলাকা? আবারও অশান্ত হয়ে উঠছে পাহাড়ি এলাকা?
কিম-মুনের ঐতিহাসিক বৈঠক-গোটা বিশ্বে এটি শান্তির পরিবেশ তৈরি করবে! কিম-মুনের ঐতিহাসিক বৈঠক-গোটা বিশ্বে এটি শান্তির পরিবেশ তৈরি করবে!
অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে
বিড়ি শিল্পে তামাকের ভয়াবহতা আর শিশুশ্রম বাড়ছে বিড়ি শিল্পে তামাকের ভয়াবহতা আর শিশুশ্রম বাড়ছে
প্লাস্টিক বিপর্যয়ের মুখে বাংলাদেশ, খাবারে ঢুকে পড়ছে প্লাস্টিক ! প্লাস্টিক বিপর্যয়ের মুখে বাংলাদেশ, খাবারে ঢুকে পড়ছে প্লাস্টিক !

সর্বাধিক পঠিত

চীন-উত্তর কোরীয় সীমান্তে কড়া নজরদারির আহবান ট্রাম্পের চীন-উত্তর কোরীয় সীমান্তে কড়া নজরদারির আহবান ট্রাম্পের
প্রাথমিকে ট্রাফিক আইন শিক্ষার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর প্রাথমিকে ট্রাফিক আইন শিক্ষার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর
ডিজিটালআইন নিয়ে উদ্বেগ দূর করার প্রতিশ্রুতি ডিজিটালআইন নিয়ে উদ্বেগ দূর করার প্রতিশ্রুতি
বিশেষ বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা আগামী জুলাইয়ে বিশেষ বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা আগামী জুলাইয়ে
অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ আর নেই অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ আর নেই
অর্থপাচারের অভিযোগে নাজিবকে জিজ্ঞাসাবাদ অর্থপাচারের অভিযোগে নাজিবকে জিজ্ঞাসাবাদ
দুই মামলায় খালেদার জামিন শুনানি আগামীকাল পর্যন্ত মুলতবি দুই মামলায় খালেদার জামিন শুনানি আগামীকাল পর্যন্ত মুলতবি
পদ্মা সেতু রেলসংযোগ প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে! পদ্মা সেতু রেলসংযোগ প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে!
সুহানার ১৮ তম জন্মদিনে শাহরুখ-গৌরির বিশেষ পরিকল্পনা! সুহানার ১৮ তম জন্মদিনে শাহরুখ-গৌরির বিশেষ পরিকল্পনা!
তদন্তেই প্রকৃত সত্য বের হবে- এ কে আজাদ তদন্তেই প্রকৃত সত্য বের হবে- এ কে আজাদ
অসহনীয় যানজট নিরসনে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নিন?
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট মহাকাশযাত্রা বাংলাদেশের জন্য মাইলফলক
বন জলবায়ু আলোচনায় যে সিদ্ধান্ত হয়েছে
জলবায়ু পরিবর্তনে প্যারিস চুক্তির সাথে চারশো বড় কোম্পানি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে
আবারও অশান্ত হয়ে উঠছে পাহাড়ি এলাকা?
কিম-মুনের ঐতিহাসিক বৈঠক-গোটা বিশ্বে এটি শান্তির পরিবেশ তৈরি করবে!
অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে
বিড়ি শিল্পে তামাকের ভয়াবহতা আর শিশুশ্রম বাড়ছে
প্লাস্টিক বিপর্যয়ের মুখে বাংলাদেশ, খাবারে ঢুকে পড়ছে প্লাস্টিক !
শিক্ষাকে কখনো পণ্য হিসেবে বিবেচনা করা উচিত নয়