ঢাকা, জানুয়ারী ২২, ২০১৯, ৯ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » জাতীয় » সংসদে ভূমিধস মোকাবিলায় ৭ সুপারিশ
সোমবার ● ১৪ মে ২০১৮, ৯ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

সংসদে ভূমিধস মোকাবিলায় ৭ সুপারিশ

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:মিয়ানমারের অধিবাসী রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে কক্সবাজারের বনভূমি ও পাহাড় ধ্বংস করায় ভূমিধসের আশঙ্কা আরও বেড়েছে। এ কারণে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় ও সংসদীয় কমিটিও তোড়জোড় শুরু করেছে। আর পার্বত্য এলাকা পরিদর্শন করে ভূমি ধসের পাঁচটি কারণ জানিয়েছে এ সংক্রান্ত সাব-কমিটি। একই সঙ্গে ভূমিধস মোকাবিলায় তুলে ধরেছে সাত সুপারিশ।জাতীয় সংসদ ভবনে রোববার অনুষ্ঠিত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে পার্বত্য জেলায় ভূমিধসের কারণ ও প্রতিকারের উপায় তুলে ধরে এ সংক্রান্ত সাব-কমিটি। এর আগে কমিটির সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপিকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের একটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়। বৈঠকে সাব-কমিটির প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, সাব-কমিটি চলতি বছরের জানুয়ারিতে চট্টগ্রাম, রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলা পরিদর্শন করে। এ সময় তারা গত বছরের পাহাড় বা ভূমিধসের বিভিন্ন জায়গায় যান। সংসদীয় কমিটি তদন্ত করে ভূমিধসের যে কারণগুলো খুঁজে পায় সেগুলো হলো-

১। পাহাড়ের তলদেশে ঘর তৈরি করে বসবাসরত ছিন্নমূল মানুষদের ওপর অতিবৃষ্টি, বজ্রপাত ও মৃদু ভূমিকম্পের কারণে মাটি ধসে মানুষের মৃত্যু।
২। স্থানীয় প্রভাবশালী চক্র পাহাড় থেকে মাটি কেটে নিয়ে যাওয়ায় পাহাড় ধসের সৃষ্টি হয়।
৩। প্রভাবশালী ব্যক্তিদের সহায়তায় পাহাড় কেটে গড়ে উঠা ইটের ভাটার কারণে পাহাড় ধস হচ্ছে।
৪। অবৈধ বসতি স্থাপন ও অপরিকল্পিতভাবে অবকাঠামো এবং নির্বিচারে বৃক্ষ নিধন করা এবং
৫। দুর্বল মাটির গঠন ও ভূমিকম্প।

সংসদীয় কমিটি ওই তিন জেলার জেলা প্রশাসক, স্থানীয় নেতা ও স্থানীয় ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে ভূমি বা পাহাড় ধস বন্ধে সাতটি সুপারিশ করেছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি জাগো নিউজকে বলেন, আগামীতে যাতে পাহাড় ধসে হতাহতের ঘটনা না ঘটে সেজন্য এসব সুপারিশ করেছে সাব-কমিটি। ভূমিধসের কারণ উল্লেখসহ আশ্রয়হীন ও যারা পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করছে তাদের জন্য স্থায়ীভাবে বাড়িঘর নির্মাণের সুপারিশ করেছে কমিটি।

সুপারিশগুলো হলো-
১। পাহাড়ে বসবাসকারী ছিন্নমূল মানুষদের জন্য স্থায়ী আবাসন নির্মাণে জায়গা নির্ধারণ
২। রাঙামাটি জেলায় আশ্রয়হীন এবং যারা পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করছে তাদের জন্য ছোট ছোট টিলাগুলো সমতল করে সেখানে তাদের বসবাসের জন্য সরকারি অর্থায়নে স্থায়ীভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ
৩। পাহাড়ের পাদদেশে নতুন করে ঘরবাড়ি নির্মাণ বন্ধ
৪। পাহাড়ে অধিক পরিমাণে পরিবেশবান্ধব এবং পাহাড় রক্ষাকারী বৃক্ষ ও বাঁশ রোপণ
৫। রাঙামাটি-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দুই পাশের পাহাড়গুলোতে যেকোনো ধরনের স্থাপনা তৈরির অনুমতি সম্পূর্ণভাবে রহিত করা এবং বর্তমান স্থাপনাগুলো পর্যায়ক্রমে নিরাপদ ও দূরবর্তী স্থানে স্থানান্তর করা
৬। ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের জন্য আশ্রয়ণ প্রকল্প গ্রহণ
৭। পাহাড় থেকে মাটি কেটে ও ইটভাটায় কাঠ পোড়ানো বন্ধ করার জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা।

প্রসঙ্গত, গত কয়েক বছর ধরেই বর্ষায় পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসে প্রাণহানি ঘটছে। গত বছরের জুনে কয়েকদিনের টানা বর্ষণে চট্টগ্রাম, রাঙামাটি ও বান্দরবানের পাহাড়ি এলাকার কয়েকটি স্থানে ধস দেখা দেয়। এতে নিহত হয়েছে শতাধিক।


কোটা আন্দোলন স্থগিত, ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন চলবে

ডিএসই’র চুক্তি সই চীনা জোটের সঙ্গে


এ বিভাগের আরো খবর...

দুর্নীতির দায়ে দুদক পরিচালক বরখাস্ত দুর্নীতির দায়ে দুদক পরিচালক বরখাস্ত
এসএসসি পরীক্ষা প্রশ্নফাঁসমুক্ত করতে চান : শিক্ষামন্ত্রী এসএসসি পরীক্ষা প্রশ্নফাঁসমুক্ত করতে চান : শিক্ষামন্ত্রী
ইটিপি ছাড়া শিল্পনগরী অনুমোদন পাবে না-প্রধানমন্ত্রী ইটিপি ছাড়া শিল্পনগরী অনুমোদন পাবে না-প্রধানমন্ত্রী
বিআরটিসির ‘অনিয়ম-দুর্নীতি’ নিয়ে সড়ক মন্ত্রীর ক্ষোভ! বিআরটিসির ‘অনিয়ম-দুর্নীতি’ নিয়ে সড়ক মন্ত্রীর ক্ষোভ!
বিএনপি জয়নুলের কাদায় আটকে পড়া গরুর গাড়ি: কাদের বিএনপি জয়নুলের কাদায় আটকে পড়া গরুর গাড়ি: কাদের
অনৈতিকতার পথে হেঁটে কখনো ভালো ফল পাওয়া যায় না- শিক্ষামন্ত্রী অনৈতিকতার পথে হেঁটে কখনো ভালো ফল পাওয়া যায় না- শিক্ষামন্ত্রী
রাশিয়ার উপকূলে ২ জাহাজে আগুন, নিহত ১৪ রাশিয়ার উপকূলে ২ জাহাজে আগুন, নিহত ১৪
ওবায়দুল কাদের সর্বকালের ব্যর্থ একজন সড়কমন্ত্রী- রিজভী ওবায়দুল কাদের সর্বকালের ব্যর্থ একজন সড়কমন্ত্রী- রিজভী
ছিন্নমূল শিশুরা শিক্ষার অধিকার কতটা পাচ্ছে ! ছিন্নমূল শিশুরা শিক্ষার অধিকার কতটা পাচ্ছে !
বুলবুল পুত্রের দাবি-বাবাকে যেনো মিরপুর বুদ্ধিজীবী করবস্থানে দাফন করা হয় বুলবুল পুত্রের দাবি-বাবাকে যেনো মিরপুর বুদ্ধিজীবী করবস্থানে দাফন করা হয়

সর্বাধিক পঠিত

দুর্নীতির দায়ে দুদক পরিচালক বরখাস্ত দুর্নীতির দায়ে দুদক পরিচালক বরখাস্ত
এসএসসি পরীক্ষা প্রশ্নফাঁসমুক্ত করতে চান : শিক্ষামন্ত্রী এসএসসি পরীক্ষা প্রশ্নফাঁসমুক্ত করতে চান : শিক্ষামন্ত্রী
ঢাকা সিটির উপনির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা সিটির উপনির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি
ইটিপি ছাড়া শিল্পনগরী অনুমোদন পাবে না-প্রধানমন্ত্রী ইটিপি ছাড়া শিল্পনগরী অনুমোদন পাবে না-প্রধানমন্ত্রী
বিআরটিসির ‘অনিয়ম-দুর্নীতি’ নিয়ে সড়ক মন্ত্রীর ক্ষোভ! বিআরটিসির ‘অনিয়ম-দুর্নীতি’ নিয়ে সড়ক মন্ত্রীর ক্ষোভ!
ওস্তাদের মার শেষ রাতেকিন্তু ‘ওস্তাদ’ হতে পারলেন না গেইল ওস্তাদের মার শেষ রাতেকিন্তু ‘ওস্তাদ’ হতে পারলেন না গেইল
কঙ্গনা ফুঁসে উঠলেন কঙ্গনা ফুঁসে উঠলেন
ব্র্যাড পিট-থেরন প্রেম করছেন ব্র্যাড পিট-থেরন প্রেম করছেন
শান্ত আজ হঠাৎ করেই একটু অশান্ত শান্ত আজ হঠাৎ করেই একটু অশান্ত
বাংলাদেশের কেউ নেই আইসিসির বর্ষসেরা টেস্ট দলে বাংলাদেশের কেউ নেই আইসিসির বর্ষসেরা টেস্ট দলে
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে