ঢাকা, মে ২৩, ২০১৮, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » অর্থ–শেয়ারবাজার » সস্তায় কয়লা বিক্রির চেষ্টায় উত্তর কোরিয়া
বৃহস্পতিবার ● ১৭ মে ২০১৮, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

সস্তায় কয়লা বিক্রির চেষ্টায় উত্তর কোরিয়া

---বিবিসি২৪নিউজ,অর্থনীতি ডেস্ক:আন্তর্জাতিক রাজনীতির মঞ্চে বর্তমানে বহুল উচ্চারিত নাম উত্তর কোরিয়া। নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে পারমাণবিক কর্মসূচি ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাওয়ায় বহুমুখী চাপে রয়েছে দেশটি। এ-সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞায় উত্তর কোরিয়া থেকে কয়লা রফতানি বন্ধ হয়ে গেছে। প্রধান রফতানি পণ্য কয়লার ওপর বিদ্যমান নিষেধাজ্ঞা বাড়তি চাপ তৈরি করেছে উত্তরের অর্থনীতিতে। সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পিয়ংইয়ংয়ের বরফ গলতে শুরু করেছে। আগামী ১২ জুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সিঙ্গাপুরে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং-উন। বৈঠক কেন্দ্র করে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা আংশিক কিংবা পুরোটা প্রত্যাহারের জোরালো সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। এ সম্ভাবনা সামনে রেখে আন্তর্জাতিক মূল্যের তুলনায় অনেক কম দামে কয়লা বিক্রির চেষ্টা করছেন উত্তরের রফতানিকারকরা। মূলত কয়লা রফতানির অর্থে চাপে থাকা অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করবে দেশটি— এমনটাই মনে করছেন বিশ্লেষকরা।উত্তর কোরিয়ার প্রধান বাণিজ্য অংশীদার চীন। ২০১৬ সালে চীনে মোট ২ কোটি ২৫ লাখ টন কয়লা রফতানি করেছিল পিয়ংইয়ং। এ বাবদ দেশটি ২০০ কোটি ডলারের বেশি আয় করেছিল। তবে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার মুখে গত অক্টোবর থেকে উত্তর কোরিয়ার কয়লা আমদানি বন্ধ রেখেছে বেইজিং। এটা পিয়ংইয়ংয়ের অর্থনীতির জন্য বড় একটি ধাক্কা হিসেবে বিবেচনা করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। বর্তমানে এ ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে আগ্রহী দেশটি। ট্রাম্পের সঙ্গে আসন্ন বৈঠকের আগেই বেইজিং সফর করেন কিম জং-উন। কিমের সফরকালে চীনের বাজারে কয়লা রফতানি নতুন করে শুরু করতে উদ্যোগী হয়েছেন উত্তরের রফতানিকারকরা। চীনের উত্তরাঞ্চলের একজন কয়লা ব্যবসায়ী রয়টার্সকে বলেন, ‘কিম জং-উনের সফরের সময়ই আমরা উত্তর কোরিয়ার রফতানিকারকদের কাছ থেকে কম দামে কয়লা বিক্রির প্রস্তাব পেয়েছি। তারা মাত্র ৩০-৪০ ডলারে প্রতি টন কয়লা বিক্রি করতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন। চীনে উত্তোলন হওয়া কয়লার তুলনায় এ দাম প্রায় এক-তৃতীয়াংশ কম। তাই এটা বেশ লাভজনক প্রস্তাব। এ বিষয়ে আমরা সরকারি (চীন সরকার) অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছি।’

একই অঞ্চলের অন্য দুই চীনা ব্যবসায়ীও উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে ছাড়কৃত মূল্যে (ডিসকাউন্ট) কয়লা কেনার প্রস্তাব পাওয়ার কথা রয়টার্সকে জানিয়েছেন। তারা জানান, ট্রাম্প-কিম বৈঠক কেন্দ্র করে বিদ্যমান নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার জোরালো সম্ভাবনা দেখছেন উত্তর কোরিয়ার রফতানিকারকরা। এজন্য সীমান্তের ওপারে তারা কয়লার মজুদ বাড়াচ্ছেন। নিষেধাজ্ঞা উঠলেই তুলনামূলক কম দামে এসব কয়লা রফতানি করা হবে।

চায়না সাবলাইম ইনফরমেশন গ্রুপের এক নোটে বলা হয়, চীনা ইস্পাত কারখানাগুলো বর্তমানে শাংসি প্রদেশ থেকে প্রতি টন কয়লা ১৬০-১৭২ ডলারে কিনছে। এমন পরিস্থিতিতে টনপ্রতি ৩০-৪০ ডলারে কয়লাপ্রাপ্তি এসব কারখানার জন্য বেশ লাভজনক হবে। তবে এক্ষেত্রে মূল বাধা আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা। তাই বিদ্যমান নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য অপেক্ষা করছেন দুপক্ষের ব্যবসায়ীরা। এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক চীনা আমদানিকারক বলেন, ‘এর আগে উত্তর কোরিয়া থেকে আসা পণ্যবাহী জাহাজ জব্দের ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে দাম অনেক কম থাকা সত্ত্বেও আমরা দেশটি থেকে কয়লা আমদানি করতে পারছি না।’

ক্যালির্ফোনিয়ার জেমস মার্টিন সেন্টার ফর নন-প্রোলিফারেশন স্টাডিজের গবেষণা সহকারী ক্যাথেরিন ডিল বলেন, আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার ফলে অর্থনীতির ওপর তৈরি হওয়া বাড়তি চাপ থেকে বেরিয়ে আসতে চাইছে উত্তর কোরিয়া। এক্ষেত্রে কয়লা রফতানি বাড়ানো ছাড়া দেশটির সামনে আর কোনো বিকল্প নেই। এ কারণে নিষেধাজ্ঞা ওঠার পর পুরনো বাজারে ছাড়কৃত মূল্যে কয়লা বিক্রির জন্য তোড়জোর শুরু করেছেন দেশটির রফতানিকারকরা। চীনা আমদানিকারকদের সঙ্গে তারা যোগাযোগ স্থাপন করেছেন। দুপক্ষের কথাবার্তাও হয়েছে। এখন শুধু নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার অপেক্ষা। এ কারণে আগামী ১২ জুন ট্রাম্প-কিম বৈঠকের দিকে সবার দৃষ্টি নিবন্ধিত। বৈঠক থেকে ভালো কোনো সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছেন দুপক্ষের খাতসংশ্লিষ্টরা।


নিম্নমুখী সূচকে লেনদেন বেড়েছে!

সেবা খাতে রফতানি আয় বেড়েছে ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ!


এ বিভাগের আরো খবর...

পদ্মা সেতু রেলসংযোগ প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে! পদ্মা সেতু রেলসংযোগ প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে!
সরকারি ব্যাংকের টাকাও ঋণ খেলাপি! সরকারি ব্যাংকের টাকাও ঋণ খেলাপি!
দরপতন অব্যাহত দেশের পুঁজিবাজারে দরপতন অব্যাহত দেশের পুঁজিবাজারে
যুবশক্তিকে কাজে লাগাতে খাদ্য ও কৃষি খাত বড় ভূমিকা রাখতে পারে! যুবশক্তিকে কাজে লাগাতে খাদ্য ও কৃষি খাত বড় ভূমিকা রাখতে পারে!
সয়াবিন উৎপাদনে শীর্ষ অবস্থানে উঠতে যাচ্ছে ব্রাজিল! সয়াবিন উৎপাদনে শীর্ষ অবস্থানে উঠতে যাচ্ছে ব্রাজিল!
চীন-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্যযুদ্ধ বন্ধে সম্মত! চীন-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্যযুদ্ধ বন্ধে সম্মত!
৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা  জমা শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে!‌ ৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা জমা শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে!‌
রমজানে যাত্রীদের বিশেষ সেবা প্রদান করছে এমিরেটস! রমজানে যাত্রীদের বিশেষ সেবা প্রদান করছে এমিরেটস!
দরপতনে পিই রেশিও কমেছে! দরপতনে পিই রেশিও কমেছে!
চীনে ১ লাখ টন ভুট্টা রফতানি কমতে পারে! চীনে ১ লাখ টন ভুট্টা রফতানি কমতে পারে!

সর্বাধিক পঠিত

চীন-উত্তর কোরীয় সীমান্তে কড়া নজরদারির আহবান ট্রাম্পের চীন-উত্তর কোরীয় সীমান্তে কড়া নজরদারির আহবান ট্রাম্পের
প্রাথমিকে ট্রাফিক আইন শিক্ষার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর প্রাথমিকে ট্রাফিক আইন শিক্ষার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর
ডিজিটালআইন নিয়ে উদ্বেগ দূর করার প্রতিশ্রুতি ডিজিটালআইন নিয়ে উদ্বেগ দূর করার প্রতিশ্রুতি
বিশেষ বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা আগামী জুলাইয়ে বিশেষ বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা আগামী জুলাইয়ে
অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ আর নেই অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ আর নেই
অর্থপাচারের অভিযোগে নাজিবকে জিজ্ঞাসাবাদ অর্থপাচারের অভিযোগে নাজিবকে জিজ্ঞাসাবাদ
দুই মামলায় খালেদার জামিন শুনানি আগামীকাল পর্যন্ত মুলতবি দুই মামলায় খালেদার জামিন শুনানি আগামীকাল পর্যন্ত মুলতবি
পদ্মা সেতু রেলসংযোগ প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে! পদ্মা সেতু রেলসংযোগ প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে!
সুহানার ১৮ তম জন্মদিনে শাহরুখ-গৌরির বিশেষ পরিকল্পনা! সুহানার ১৮ তম জন্মদিনে শাহরুখ-গৌরির বিশেষ পরিকল্পনা!
তদন্তেই প্রকৃত সত্য বের হবে- এ কে আজাদ তদন্তেই প্রকৃত সত্য বের হবে- এ কে আজাদ
অসহনীয় যানজট নিরসনে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নিন?
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট মহাকাশযাত্রা বাংলাদেশের জন্য মাইলফলক
বন জলবায়ু আলোচনায় যে সিদ্ধান্ত হয়েছে
জলবায়ু পরিবর্তনে প্যারিস চুক্তির সাথে চারশো বড় কোম্পানি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে
আবারও অশান্ত হয়ে উঠছে পাহাড়ি এলাকা?
কিম-মুনের ঐতিহাসিক বৈঠক-গোটা বিশ্বে এটি শান্তির পরিবেশ তৈরি করবে!
অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে
বিড়ি শিল্পে তামাকের ভয়াবহতা আর শিশুশ্রম বাড়ছে
প্লাস্টিক বিপর্যয়ের মুখে বাংলাদেশ, খাবারে ঢুকে পড়ছে প্লাস্টিক !
শিক্ষাকে কখনো পণ্য হিসেবে বিবেচনা করা উচিত নয়