ঢাকা, আগস্ট ১৬, ২০১৮, ১ ভাদ্র ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » পরিবেশ ও জলবায়ু » কাঙ্খিত ফল পেতে হলে,ভেজালবিরোধী অভিযান চালু রাখতে হবে?
বুধবার ● ১৩ জুন ২০১৮, ১ ভাদ্র ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

কাঙ্খিত ফল পেতে হলে,ভেজালবিরোধী অভিযান চালু রাখতে হবে?

---এমডি জালাল: ভেজাল বর্তমানে অবস্থা এমন ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে যে,ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত হোটেল, রেস্টুরেন্ট- সর্বত্রই ভেজালের ছড়াছড়ি। একজন অসুস্থ ব্যক্তি কিংবা শিশুর জন্য আমরা যে ফল ক্রয় করছি, তা কতটা বিষমুক্ত এ নিয়েও ভাবতে হয়।

এখন আমরা বাজারে মৌসুমি ফল দেখলে আতঙ্কিত হয়ে ভাবতে থাকি, উৎপাদন পর্যায় থেকে খুচরা বিক্রেতার হাত পর্যন্ত আসতে এ ফলে কতবার ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ মেশানো হয়েছে? কিছু অসাধু মানুষের কাছে ভোক্তারা এখন অসহায়।
বর্তমানে খাদ্যে ভেজাল এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, বাজারে ভেজালমুক্ত খাবার পাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে। বস্তুত খাদ্যে ভেজালের ইস্যুটি অনেক পুরনো হলেও কর্তৃপক্ষ ভেজালমুক্ত খাদ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে পারেনি।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ভেজালযুক্ত খাদ্যের কারণে মানবদেহে ক্যান্সারসহ বিভিন্ন জটিল রোগের মাত্রা অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে। শিশু বিশেষজ্ঞদের মতে, সাম্প্রতিক সময়ে শিশুদের বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার মাত্রা অনেক বেড়ে গেছে। অনেক শিশু নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার পরও হঠাৎ জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, খাদ্যে ভেজালের কারণেই এমনটা হচ্ছে।

অসাধু ব্যবসায়ীরা নানা ক্ষতিকর উপাদান মিশিয়ে বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য তৈরি করায় ভোক্তারা প্রতারিত হচ্ছেন। বস্তুত অসাধু ব্যবসায়ীদের এসব অপতৎপরতা দীর্ঘদিন ধরেই চলছে।

প্রশ্ন হল, এদের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ কঠোর অভিযান পরিচালনা করছে না কেন? মৌসুমি ফলে উৎপাদনের পর্যায় থেকে শুরু করে ধাপে ধাপে কিভাবে ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ মেশানো হয় তা বহুল আলোচিত।
অসাধু ব্যবসায়ী চক্রের এই অপতৎপরতা রোধে কর্তৃপক্ষ কঠোর পদক্ষেপ না নিলে ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ মিশ্রিত ফল খেয়ে মানুষ বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত হবে। দেশে নিরাপদ খাদ্যের সরবরাহ নিশ্চিত করতে একটি বিশেষ প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলেও পর্যাপ্ত জনবল ও সরঞ্জাম না থাকায় প্রতিষ্ঠানটি ভেজালের বিরুদ্ধে কাক্সিক্ষত ভূমিকা রাখতে পারছে না।

কিছু অসাধু ব্যক্তি এতটাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে যে, তারা মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির মতো অপকর্মের সঙ্গেও যুক্ত থাকে। বিভিন্ন সময় ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হলেও অসাধু ব্যবসায়ীদের অপতৎপরতা মোটেই কমছে না।এক্ষেত্রে কাক্সিক্ষত ফল পেতে হলে ভেজালবিরোধী জোরালো অভিযান সারা বছর চালু রাখতে হবে।


উ. কোরিয়া শীর্ষ সম্মেলনটি তাইওয়ানের সম্পর্কের না- চীন

ফ্লাইট অপারেশনে কর্মঘণ্টা লঙ্ঘন হচ্ছে?


এ বিভাগের আরো খবর...

অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল এলিয়েন? অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল এলিয়েন?
সুস্থ ও সবল গরু চেনার উপায় কী? সুস্থ ও সবল গরু চেনার উপায় কী?
নাইজেরিয়ার মেয়েরা একা বাসা ভাড়া পায় না কেন? নাইজেরিয়ার মেয়েরা একা বাসা ভাড়া পায় না কেন?
তৃতীয় লিঙ্গদের আইনি স্বীকৃতি দিল-জার্মান তৃতীয় লিঙ্গদের আইনি স্বীকৃতি দিল-জার্মান
যুক্তরাষ্ট্রের পাদ্রীরা শিশু যৌন নির্যাতনের সাথে জড়িত যুক্তরাষ্ট্রের পাদ্রীরা শিশু যৌন নির্যাতনের সাথে জড়িত
বেলজিয়াম থেকে সপরিবারে হত্যাকাণ্ডের খবর শুনে: শেখ হাসিনা বেলজিয়াম থেকে সপরিবারে হত্যাকাণ্ডের খবর শুনে: শেখ হাসিনা
বাঙ্গালি জাতির কালো অধ্যায় ১৫ আগস্ট বাঙ্গালি জাতির কালো অধ্যায় ১৫ আগস্ট
রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত দিতে পারে-ট্রাম্প প্রশাসন রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত দিতে পারে-ট্রাম্প প্রশাসন
খেলাপি ঋণের বৃত্তে ব্যাংকিং খাত খেলাপি ঋণের বৃত্তে ব্যাংকিং খাত
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ভূমিকা কতটুকু? রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ভূমিকা কতটুকু?

সর্বাধিক পঠিত

অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল এলিয়েন? অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল এলিয়েন?
সুস্থ ও সবল গরু চেনার উপায় কী? সুস্থ ও সবল গরু চেনার উপায় কী?
যেকোনও সময় সাইবার হামলার ঝুকিঁতে ব্যাংক গুলো- কেন্দ্রীয় ব্যাংক যেকোনও সময় সাইবার হামলার ঝুকিঁতে ব্যাংক গুলো- কেন্দ্রীয় ব্যাংক
প্রধানমন্ত্রীর মুখাবয়বে ফুটে ওঠে আত্মবিশ্বাসের ছাপ প্রধানমন্ত্রীর মুখাবয়বে ফুটে ওঠে আত্মবিশ্বাসের ছাপ
বাজারে পেঁয়াজের দাম স্থিতিশীল রয়েছে- সাঈদ খোকন বাজারে পেঁয়াজের দাম স্থিতিশীল রয়েছে- সাঈদ খোকন
নগরীর বস্তিবাসীরা পাবে দুই রুমের ফ্ল্যাট নগরীর বস্তিবাসীরা পাবে দুই রুমের ফ্ল্যাট
রাজধানীতে ২ লাখ ৭ হাজার ১০০ পিস ইয়াবা আটক ছয় রাজধানীতে ২ লাখ ৭ হাজার ১০০ পিস ইয়াবা আটক ছয়
জনতা ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল! জনতা ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল!
শেষ কার্যদিবস পুঁজিবাজারে বড় উত্থান শেষ কার্যদিবস পুঁজিবাজারে বড় উত্থান
অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল এলিয়েন?
তৃতীয় লিঙ্গদের আইনি স্বীকৃতি দিল-জার্মান
রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত দিতে পারে-ট্রাম্প প্রশাসন
খেলাপি ঋণের বৃত্তে ব্যাংকিং খাত
বাংলাদেশের টিভি চ্যানেলগুলোতে বিদেশি ছবির হিড়িক
জার্মানের নদীতে ভেসে উঠছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অস্ত্র-শস্ত্র
জলবায়ু পরিবর্তনে-নিউ ইয়র্ক ও সিডনির কোন দ্বীপে বসতি থাকবে না
পরীক্ষার খাতায় ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ লিখলেন শিক্ষার্থীরা!
শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ফায়দা লুঠতে ব্যস্ত কারা!
শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে কী ঘটেছিল সেই দিন?