ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » গুছিয়ে মিথ্যা বলার গুণ আছে মওদুদের- হাছান মাহমুদ
বৃহস্পতিবার ● ২১ জুন ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

গুছিয়ে মিথ্যা বলার গুণ আছে মওদুদের- হাছান মাহমুদ

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের গুছিয়ে সুন্দর করে মিথ্যা কথা বলার বিশেষ গুণ রয়েছে, তিনি (মওদুদ আহমদ) মিথ্যা বলার পারদর্শিতার কারণেই জিয়াউর রহমান ও এরশাদ সরকারের খুব প্রিয় ব্যক্তি ছিলেন, আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন।আজ দুপুরে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের প্রচার ও প্রকাশনা উপ কমিটির বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন।তিনি বলেন, মওদুদ আহমদ জিয়াউর রহমানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। এরশাদ সাহেবেরও প্রধানমন্ত্রী এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন। জিয়াউর রহমানের পতনের মুহূর্তেই তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে এবং এরশাদের সময় তার দুর্নীতির শাস্তি হয়েছিলো। বঙ্গবন্ধু যখন রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিলেন তখনও দুর্নীতির অভিযোগে তার শাস্তি হয়েছিল। কিন্তু পল্লী কবি জসিম উদ্দিনের মেয়ের জামাতা হিসেবে পল্লী কবির অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে তার শাস্তি মওকুফ করা হয়েছিল। সুতরাং তিনি বহু আগে থেকেই একজন বিতর্কিত মানুষ।

ব্যারিস্টার মওদুদকে নিজ বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে এমন অভিযোগ মিথ্যা উল্লেখ করে সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী বলেন, কোম্পানীগঞ্জ বিএনপি কয়েকভাগে বিভক্ত। ঈদের দিন তার বাড়িতে, তার সামনে বিএনপির নেতাকর্মীরা মারামারি করেছেন। তার নিরাপত্তার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক ঘর হতে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। পরে তিনি এলাকায় গণসংযোগও করেছেন এবং তার প্রমাণ হিসেবে কোম্পানিগঞ্জের ছাত্রদলের এক নেতার দেওয়া মওদুদ আহমদের গণসংযোগের স্ট্যাটাসটিও সাংবাদিকদের দেখান তিনি।


প্রতিষ্ঠানকে কম সুদে ঋণ না দিলে সুবিধা পাবে না ব্যাংক- এনবিআর

বিটিভির জনপ্রিয়তা বেড়েছে


এ বিভাগের আরো খবর...

মুসলিমদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মোদি সরকারের স্বৈরাচারী পন্থা মুসলিমদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মোদি সরকারের স্বৈরাচারী পন্থা
উ’ কোরিয়ার সাথে আলোচনা ফের শুরু করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব উ’ কোরিয়ার সাথে আলোচনা ফের শুরু করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব
আজকে আইন প্রশাসনের অধীনে না: নজরুল আজকে আইন প্রশাসনের অধীনে না: নজরুল
রাধানীতে যানজট নিরসনে পরিকল্পনা হলেও বাস্তবায়ন নেই রাধানীতে যানজট নিরসনে পরিকল্পনা হলেও বাস্তবায়ন নেই
একমাসে রফতানি আয় কমেছে ৩৭ কোটি মার্কিন ডলার একমাসে রফতানি আয় কমেছে ৩৭ কোটি মার্কিন ডলার
ড. কামাল প্রত্যেক দলের প্রতিনিধি চান ড. কামাল প্রত্যেক দলের প্রতিনিধি চান
৩ লাখ মানুষ বছরে ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে- নাসিম ৩ লাখ মানুষ বছরে ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে- নাসিম
ইরান নয় সৌদি আরবই বিশ্বের জন্য হুমকি- বেঞ্জামিন ইরান নয় সৌদি আরবই বিশ্বের জন্য হুমকি- বেঞ্জামিন
উ’ কোরিয়াকে জ্বালানী দেয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করল- রাশিয়া উ’ কোরিয়াকে জ্বালানী দেয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করল- রাশিয়া
ইরানের সঙ্গে চুক্তি করতে চায়- আমেরিকা ইরানের সঙ্গে চুক্তি করতে চায়- আমেরিকা

সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশে ইন্টারনেট গ্রাহক ৯ কোটি, ৮ কোটি মোবাইলে বাংলাদেশে ইন্টারনেট গ্রাহক ৯ কোটি, ৮ কোটি মোবাইলে
মুসলিমদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মোদি সরকারের স্বৈরাচারী পন্থা মুসলিমদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মোদি সরকারের স্বৈরাচারী পন্থা
চারটি চরিত্রে ইশরাত রয় চৈতি চারটি চরিত্রে ইশরাত রয় চৈতি
উ’ কোরিয়ার সাথে আলোচনা ফের শুরু করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব উ’ কোরিয়ার সাথে আলোচনা ফের শুরু করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব
সংসদে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ বিল পাস সংসদে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ বিল পাস
ফেনীতে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের বিজয়ী সদর ফেনীতে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের বিজয়ী সদর
রজনীকান্ত ও অক্ষয়-মুখোমুখি রজনীকান্ত ও অক্ষয়-মুখোমুখি
আজকে আইন প্রশাসনের অধীনে না: নজরুল আজকে আইন প্রশাসনের অধীনে না: নজরুল
পার্টি ডাকলে সাড়া দেবো, সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত-জ্যোতি পার্টি ডাকলে সাড়া দেবো, সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত-জ্যোতি
রাধানীতে যানজট নিরসনে পরিকল্পনা হলেও বাস্তবায়ন নেই রাধানীতে যানজট নিরসনে পরিকল্পনা হলেও বাস্তবায়ন নেই
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!
খালেদা জিয়ার জামিন বহাল
বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে নেপালে প্রধানমন্ত্রী
আওয়ামী লীগের জন্য যা পেয়েছি তা ভয়ংকর!
‘ট্যঁর দ্যে ফ্যাম’ রিপোর্ট: জার্মানিতে যৌনাঙ্গচ্ছেদে শিকার-৬৫হাজার নারী