ঢাকা, নভেম্বর ১৮, ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » অর্থ–শেয়ারবাজার » দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বব্যাংকের ঋণ ১৬০০ মিলিয়ন ডলার- অর্থমন্ত্রী
বৃহস্পতিবার ● ২১ জুন ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বব্যাংকের ঋণ ১৬০০ মিলিয়ন ডলার- অর্থমন্ত্রী

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানিয়েছেন, দেশের উপকূলীয় অঞ্চলের দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বব্যাংক গত এক দশকে চার প্রকল্পে ১৬০০ দশমিক ৭৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিয়েছে ।আজ জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের উত্থাপিত প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান।মুহিত বলেন, সিডরের পরে দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বব্যাংক ‘ইমারজেন্সি সাইক্লোন রিকভারি এ- রেস্টোরেশন প্রজেক্টে ৩০৫ দশমিক ৭৮ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেয়। যা শুরু হয় ২০০৮ সালে এবং আগামী ৩০ জুন শেষ হবে। এর অগ্রগতির হার ৯৭ দশমিক ৭৮ শতাংশ।দ্বিতীয়ত: ‘এমপ্লয়মেন্ট জেনারেশন প্রোগ্রাম ফর দা পুয়োরেস্ট’ শীর্ষক প্রকল্পে ১৫০ মিলিয়ন ডলার, যা ২০১১ সালে শুরু হয় এবং ২০১৪ সালের ৩০ জুন শেষ হয়েছে।

তৃতীয়ত: সেফটি নেট সিস্টেম ফর দা পুওরেস্ট প্রকল্পে বিশ্বব্যাংক ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিয়েছে, যা শেষ হবে ২০১৯ সালের ৩০ জুন। এ প্রকল্পের অগ্রগতি ৮৯ শতাংশ, আবার এর এডিশনাল প্রকল্পে পুনরায় ২৪৫ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিয়েছে, যার অগ্রগতি ৪ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

শেষ প্রকল্পটি হলো ‘কোস্টাল এমবার্কিং ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্ট, ফেস-১ এ ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিয়েছে, যা জুন ২০২০ সালে শেষ হবে। এর অগ্রগতি ১৯ শতাংশ।

সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য বেগম উম্মে রাজিয়া কাজলের প্রশ্নের জবাবে মুহিত জানান, বিশ্বব্যাংক ‘লো-ইনকাম কমিউনিটি হাউজিং সাপোর্ট’ প্রকল্পে সোয়া ৪০০ কোটি টাকার সমপরিমাণ ৫০ মিলিয়ন ডলার বা ৫ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছে। ২০১৬ সালের ৩০ জুন বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে এ সংক্রান্ত ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

তিনি জানান, এ প্রকল্পের আওতায় দুই সিটি কর্পোরেশন ও একটি পৌরসভায় ১৯ কমিউনিটিতে দরিদ্র বস্তিবাসীদের জন্য আবাসন সুবিধা তৈরিতে সহায়তা, বিদ্যুৎ পানি সরবরাহ, পয়ঃনিষ্কাশন, রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ প্রভৃতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে বস্তিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নের সুযোগ সৃষ্টি করা হবে।

জাতীয় পার্টির সদস্য সালমা ইসলামের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী জানান, ২০০৯ সালের ১ জুলাই থেকে ২০১৭ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে ৭৩৩টি চুক্তি হয়েছে। এরমধ্যে ২৬৩টি ঋণ চুক্তি এবং ৪৭০টি অনুদান চুক্তি। এসব চুক্তির সঙ্গে জড়িত অর্থের পরিমাণ ৫৫ হাজার ৬৮৪ দশমিক ৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মধ্যে ঋণ ৫০ হাজার ৩৬১ দশমিক ৬১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ও অনুদান ৫ হাজার ৩২২ দশমিক ৪৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।


বিটিভির জনপ্রিয়তা বেড়েছে

বিএনপির মেয়র পদে সাক্ষাৎকার শুরু


এ বিভাগের আরো খবর...

বাণিজ্যযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে বাংলাদেশকে বাণিজ্যযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে বাংলাদেশকে
শীর্ষ বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষণা প্রকাশে ব্যর্থ- এপেক শীর্ষ বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষণা প্রকাশে ব্যর্থ- এপেক
আগামী বছর উত্তর কোরিয়া সফরে যাবেন-শি জিন পিং আগামী বছর উত্তর কোরিয়া সফরে যাবেন-শি জিন পিং
শিগগিরই খাসোগি হত্যাকারীদের নাম জানাবে- আমেরিকা শিগগিরই খাসোগি হত্যাকারীদের নাম জানাবে- আমেরিকা
ভারতে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে ১৭.৪ টন ভারতে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে ১৭.৪ টন
চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩% চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩%
মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান
ইউনাইটেডের ইপিএস ৩ টাকা ৭১ পয়সা ইউনাইটেডের ইপিএস ৩ টাকা ৭১ পয়সা
এবার কোথাও থার্টি ফার্স্ট নাইট পালন করা যাবে না- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবার কোথাও থার্টি ফার্স্ট নাইট পালন করা যাবে না- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বিডি সার্ভিসেসের লভ্যাংশ সভা ২৫ নভেম্বর বিডি সার্ভিসেসের লভ্যাংশ সভা ২৫ নভেম্বর

সর্বাধিক পঠিত

বাণিজ্যযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে বাংলাদেশকে বাণিজ্যযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে বাংলাদেশকে
শীর্ষ বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষণা প্রকাশে ব্যর্থ- এপেক শীর্ষ বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষণা প্রকাশে ব্যর্থ- এপেক
আগামী বছর উত্তর কোরিয়া সফরে যাবেন-শি জিন পিং আগামী বছর উত্তর কোরিয়া সফরে যাবেন-শি জিন পিং
শিগগিরই খাসোগি হত্যাকারীদের নাম জানাবে- আমেরিকা শিগগিরই খাসোগি হত্যাকারীদের নাম জানাবে- আমেরিকা
বগুড়ায় মেলায় বিশালাকৃতির মাছের পসরা বসেছে বগুড়ায় মেলায় বিশালাকৃতির মাছের পসরা বসেছে
ভারতে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে ১৭.৪ টন ভারতে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে ১৭.৪ টন
টেস্টে ক্যাপ্টেন হওয়ার পর ধোনির কৃর্তী ফাঁস করলেন লক্ষ্মণ! টেস্টে ক্যাপ্টেন হওয়ার পর ধোনির কৃর্তী ফাঁস করলেন লক্ষ্মণ!
চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩% চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩%
মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান
“জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে বাঁচতে চাই” “জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে বাঁচতে চাই”
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে