ঢাকা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » খেলাধুলা » ডেনমার্ক অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচ ড্র
বৃহস্পতিবার ● ২১ জুন ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

ডেনমার্ক অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচ ড্র

---বিবিসি২৪নিউজ, ডেস্ক:ডেনমার্ককে রুখে দিয়ে এবারের আসরে প্রথম পয়েন্ট পেল অস্ট্রেলিয়া।সামারায় আজ ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচটি ড্র হয়েছে ১-১ গোলে।সামারা অ্যারেনায় আজ সপ্তম মিনিটে এগিয়ে যায় ডেনমার্ক। নিকোলাই ইয়োরগেনসেনের কাছ থেকে বল পেয়ে ম্যাথিউ রায়ানকে পরাস্ত করেন ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন।দেশের হয়ে টটনেহ্যাম হটস্পার মিডফিল্ডার এরিকসেনের সবশেষ ১৫ ম্যাচে এটি ত্রয়োদশ গোল।২৪তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ আসে ইয়োরগেনসেনের সামনে। তবে সঙ্গে থাকা ডিফেন্ডারকে এড়িয়ে তার হেড লক্ষ্যে থাকেনি।

ডেনমার্কের রক্ষণে দারুণ চাপ তৈরি করা অস্ট্রেলিয়া ৩৮তম মিনিটে সমতা ফেরায়। স্পট কিক থেকে এবারের আসরে দেশের ও নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন ইয়েডিনাক। এ নিয়ে বিশ্বকাপে টানা তিন ম্যাচে গোল পেলেন তিনি, তিনটিই স্পট কিক থেকে।ম্যাথিউ লেকির হেড ইউসুফ ইউরারি পৌলসেনের হাতে লাগলে ভিএআর প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে স্পট কিকের সিদ্ধান্ত দেন রেফারি।

সার্বিয়ার মিলান দুদিচের (২০০৬) পর পৌলসেনের জন্য বিশ্বকাপের এক আসরে দুটি পেনাল্টি পেল প্রতিপক্ষ। ডেনিশ এই ফরোয়ার্ডের ফাউলের জন্য আগের ম্যাচ পেনাল্টি পেয়েছিল পেরু। তবে গোল করতে পারেনি তারা।

গত নভেম্বরের পর এই প্রথম ডেনিশদের জালে গেল বল। সব মিলিয়ে ৫৭২ মিনিট পর গোল খেল ডেনমার্ক।

দ্বিতীয়ার্ধে ৫৪তম মিনিটে পিওনে সিস্টো বিপজ্জনক জায়গায় বল পেলেও লক্ষ্য রাখতে পারেননি শট। দুই মিনিট পর অস্ট্রেলিয়ার ভাল একটি আক্রমণ ব্যর্থ করে দেন ইয়েনস লারসেন।

৭৬তম মিনিটে দুই জনকে কাটিয়ে ডি বক্সে ঢুকে পড়েন ম্যাচ জুড়ে দারুণ খেলা লেকি। কিন্তু দুর্বল শট নিয়ে ভাল একটি সুযোগ হাতছাড়া করেন এই ফরোয়ার্ড।এবারই প্রথম অস্ট্রেলিয়া-ডেনমার্কের কোনো ম্যাচ ড্র হল। আগের তিন ম্যাচের দুটিতে জিতেছিল ডেনমার্ক, অন্যটি অস্ট্রেলিয়া।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে পেরুকে ১-০ গোলে হারায় ডেনমার্ক। ১৯৮৬ আসরের পর প্রথমবারের মতো শুরুর দুই ম্যাচে জয়ের আশা জাগালেও শেষ পর্যন্ত পারল না তারা।

ফ্রান্সের কাছে ২-১ গোলের হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপে টানা চার হারের পর ড্র করতে পারল তারা।


২০০ মার্কিন সেনার দেহাবশেষ ফেরত দিয়েছে- উ. কোরিয়া

আইসিআরসি প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ সফরে আসছেন


এ বিভাগের আরো খবর...

চার নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাকে চায় না- আওয়ামী লীগ চার নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাকে চায় না- আওয়ামী লীগ
কেউ বৈধ অস্ত্র প্রদর্শন ও বহন করতে পারবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেউ বৈধ অস্ত্র প্রদর্শন ও বহন করতে পারবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে- শেখ হাসিনা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে- শেখ হাসিনা
‘বিএনপি প্রথম দিনেই এক লাখ লোক মারবে- তোফায়েল ‘বিএনপি প্রথম দিনেই এক লাখ লোক মারবে- তোফায়েল
বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শেখ হাসিনা
কিছুই করতে পারছেন না বলেই সিইসি অসহায় ও বিব্রত-  সেলিমা রহমান কিছুই করতে পারছেন না বলেই সিইসি অসহায় ও বিব্রত- সেলিমা রহমান
২ কর্মীকে খুন করেছে বিএনপি , প্রমাণও আছে- কাদের ২ কর্মীকে খুন করেছে বিএনপি , প্রমাণও আছে- কাদের
ভোটারদের মন জয় করতে নেমেছি: মির্জা আব্বাস ভোটারদের মন জয় করতে নেমেছি: মির্জা আব্বাস
যতই নির্যাতন করুক মাঠ ছাড়ব না- মওদুদ যতই নির্যাতন করুক মাঠ ছাড়ব না- মওদুদ
নাজিবের বিরুদ্ধে নতুন দুর্নীতির মামলা নাজিবের বিরুদ্ধে নতুন দুর্নীতির মামলা

সর্বাধিক পঠিত

চার নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাকে চায় না- আওয়ামী লীগ চার নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাকে চায় না- আওয়ামী লীগ
কেউ বৈধ অস্ত্র প্রদর্শন ও বহন করতে পারবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেউ বৈধ অস্ত্র প্রদর্শন ও বহন করতে পারবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে- শেখ হাসিনা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে- শেখ হাসিনা
‘বিএনপি প্রথম দিনেই এক লাখ লোক মারবে- তোফায়েল ‘বিএনপি প্রথম দিনেই এক লাখ লোক মারবে- তোফায়েল
সিলেটে কামালসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতারা সিলেটে কামালসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতারা
অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদনের পথে চীন অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদনের পথে চীন
বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শেখ হাসিনা
কিছুই করতে পারছেন না বলেই সিইসি অসহায় ও বিব্রত-  সেলিমা রহমান কিছুই করতে পারছেন না বলেই সিইসি অসহায় ও বিব্রত- সেলিমা রহমান
২ কর্মীকে খুন করেছে বিএনপি , প্রমাণও আছে- কাদের ২ কর্মীকে খুন করেছে বিএনপি , প্রমাণও আছে- কাদের
ভোটারদের মন জয় করতে নেমেছি: মির্জা আব্বাস ভোটারদের মন জয় করতে নেমেছি: মির্জা আব্বাস
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে
জলবায়ু পরিবর্তনের যুদ্ধে নারীর অংশগ্রহণ করতে হবে-প্যাট্রিসিয়া
বিএনপির দুটি আসনের পরিবর্তন
কলেজ শিক্ষক আলী হোসেন হত্যা দুইজনের ত্যুদণ্ড
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার