ঢাকা, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৮, ৩০ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » ফের পেছাচ্ছে ‘২০ মিনিটে ঢাকা-গাজীপুর’ প্রকল্প
রবিবার ● ২৪ জুন ২০১৮, ৩০ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

ফের পেছাচ্ছে ‘২০ মিনিটে ঢাকা-গাজীপুর’ প্রকল্প

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:আবার ২ বছর পিছিয়ে যাচ্ছে ‘২০ মিনিটে ঢাকা-গাজীপুর’ প্রকল্পের নির্মাণ কাজ। সঠিক সময়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে জয়দেবপুর চৌরাস্তা থেকে রাজধানীর বিমানবন্দর রেলস্টেশনে মাত্র ২০ মিনিটে ভ্রমণ করা সম্ভব বলে দাবি করছেন সংশ্লিষ্টরা।সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ২০১২ সালে ‘গ্রেটার ঢাকা সাসটেইনেবল আরবান ট্রান্সপোর্ট’ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। বারবার সময় বাড়ানোর পর চলতি বছরের ডিসেম্বরে ‘গাজীপুর থেকে ২০ মিনিটে ঢাকা’ নামে পরিচিত এ প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা। কিন্তু এ পর্যন্ত মাত্র ২০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। তাই আবারও সময় বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ সড়ক ও জনপথ অধিদফতর (সওজ)।

প্রকল্পের পরিচালক সানাউল হক বলেন, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব নয়। সেজন্য আশা করছি ২০২০ সালের জুনে প্রকল্পের কাজ শেষ করতে পারবো। এজন্য সময়ের আবেদন করা হয়েছে। সময় বাড়ায় প্রকল্পের ব্যয়ও বেড়ে যাবে।তিনি বলেন, প্রকল্পের এখনও অনেক কাজ বাকি। বর্তমান সময় পর্যন্ত মোট অগ্রগতি ২০ শতাংশ। সমস্ত কাজ শেষ করতে আরও সময় ও ব্যয় প্রয়োজন।সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এর আগেও জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদনসহ দুইবার সময় ও ব্যয় বাড়ানো হয়েছে। এখন প্রকল্পের মোট ব্যয় বেড়ে দাঁড়াচ্ছে ৪ হাজার ২৬৪ কোটি ৮২ লাখ ১৪ টাকা। আর সময় বাড়ছে ২০২০ সাল ৩০ জুন পর্যন্ত।

প্রথমে ২০১২ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের কথা ছিল। কিন্তু পরে তা ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।সর্বশেষ মূল প্রকল্প নির্মাণের ব্যয় ধরা হয় ২ হাজার ৪০ কোটি টাকা। গত ছয় বছরে ব্যয় হয়েছে ১৩৮ কোটি টাকা। এ ব্যয় হয়েছে সড়ক প্রশস্তকরণ, সার্ভিস সড়ক ও গাজীপুরে তিন কিলোমিটার ড্রেনেজ নির্মাণ, আট লেনের টঙ্গী সেতু ও ফ্লাইওভার নির্মাণে।

সরকারের পাশাপাশি এই প্রকল্পে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি), ফরাসি দাতা সংস্থা এএফডি ও গ্লোবাল এনভায়রনমেন্ট ফ্যাসিলিটি (জিইএফ) অর্থায়ন করছে।প্রকল্প নির্মাণের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রকল্পের আওতায় ২০ দশমিক ৫০ কিলোমিটার আলাদা রুটের কাজ এক শতাংশও বাস্তবায়ন হয়নি। ছয়টিফ্লাইওভারের ৫ শতাংশ ও উড়াল সড়কের ১০ শতাংশ কাজ এগিয়েছে। তবে ৬৮ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বাস ডিপোর।

আর ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা নির্মাণের কাজ ৫ দশমিক ১৪ শতাংশ ও লিংক রোডের ১০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। সব মিলিয়ে এর অগ্রগতি মাত্র ২০ শতাংশ।কর্মকর্তারা বলছেন, নানা কারণে প্রকল্পটি সংশোধন করা হচ্ছে। প্রথমে সওজ এর আওতায় ঢাকা বাস র‌্যাপিড কোম্পানি লিমিটেড এই প্রকল্পের কাজ হাতে নেয়। কিন্তু পরবর্তীতে এটি আলাদা কোম্পানি হয়ে যায়। এজন্য এডিবি’র সঙ্গে ঋণ জটিলতাও তৈরি হয়। তাই প্রকল্পটি সংশোধন করা হচ্ছে। এতে ৪৫ কোটি টাকা বাড়তি ব্যয় হবে।স্বল্প খরচে দ্রুত যাতায়াত নিশ্চিতে উন্নত বিশ্বের আদলে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো এমন বাস সার্ভিস চালু করছে সরকার। বাস র‌্যাপিট ট্রানজিট (বিআরটি) লেনে চলাচলকারী বাসগুলো নির্দিষ্ট স্টপেজ ছাড়া কোথাও থামবে না।ফলে বিমানবন্দর স্টেশন থেকে জয়দেবপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত ২০ দশমিক ৫০ কিলোমিটার আসা-যাওয়া করতে সময় লাগবে মাত্র ২০ মিনিট।

দুইপ্রান্ত অর্থাৎ গাজীপুর ও বিমানবন্দর স্টেশনে থাকবে দুটি মূল টার্মিনাল। আর মাঝ পথে হবে ২৫টি স্টেশন। প্রতি দুই থেকে ৫ মিনিট পরপর স্টেশন থেকে বাস ছাড়বে। এ সার্ভিসে ভাড়া আদায় হবে স্মার্ট কার্ডে।


ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন?

বিশ্বকাপে আজকের ম্যাচগুলো


এ বিভাগের আরো খবর...

ভিডিও কনফারেন্সে নির্বাচনি প্রচার চালাবেন-শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সে নির্বাচনি প্রচার চালাবেন-শেখ হাসিনা
চাকরি না হওয়া পযর্ন্ত বেকার যুবকদের ভাতা দেয়া হবে- ফখরুল চাকরি না হওয়া পযর্ন্ত বেকার যুবকদের ভাতা দেয়া হবে- ফখরুল
নৌকা হচ্ছে শান্তির প্রতীক, নৌকা হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক- শেখ হাসিনা নৌকা হচ্ছে শান্তির প্রতীক, নৌকা হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক- শেখ হাসিনা
স্লোভাকিয়ার সামরিক অ্যাটাশে বহিষ্কার করল- রাশিয়া স্লোভাকিয়ার সামরিক অ্যাটাশে বহিষ্কার করল- রাশিয়া
ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে- খসরু ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে- খসরু
জয় পেতে যা করণীয় তাই করা হবে- মাশরাফি জয় পেতে যা করণীয় তাই করা হবে- মাশরাফি
আ’লীগ নয়, আমাদের প্রতিপক্ষ পুলিশ- বিএনপি আ’লীগ নয়, আমাদের প্রতিপক্ষ পুলিশ- বিএনপি
খালেদার আইনজীবীদের অনাস্থা নতুন বেঞ্চের প্রতি খালেদার আইনজীবীদের অনাস্থা নতুন বেঞ্চের প্রতি
গাজীপুরে বিএনপির প্রার্থী ফজলুল হক গ্রেফতার গাজীপুরে বিএনপির প্রার্থী ফজলুল হক গ্রেফতার
নির্বাচনে তিন স্তরের নিরাপত্তা, সেনা মোতায়েন ২৪ ডিসেম্বর নির্বাচনে তিন স্তরের নিরাপত্তা, সেনা মোতায়েন ২৪ ডিসেম্বর

সর্বাধিক পঠিত

ভিডিও কনফারেন্সে নির্বাচনি প্রচার চালাবেন-শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সে নির্বাচনি প্রচার চালাবেন-শেখ হাসিনা
উত্তেজনার মধ্যে রাজধানীতে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টের প্রচারণা শুরু উত্তেজনার মধ্যে রাজধানীতে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টের প্রচারণা শুরু
বিএন‌পি-জামায়াতকে ভোট দিয়ে লাভ নেই- শামীম বিএন‌পি-জামায়াতকে ভোট দিয়ে লাভ নেই- শামীম
চাকরি না হওয়া পযর্ন্ত বেকার যুবকদের ভাতা দেয়া হবে- ফখরুল চাকরি না হওয়া পযর্ন্ত বেকার যুবকদের ভাতা দেয়া হবে- ফখরুল
সবদলকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলা উচিত সবদলকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলা উচিত
নৌকা হচ্ছে শান্তির প্রতীক, নৌকা হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক- শেখ হাসিনা নৌকা হচ্ছে শান্তির প্রতীক, নৌকা হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক- শেখ হাসিনা
স্লোভাকিয়ার সামরিক অ্যাটাশে বহিষ্কার করল- রাশিয়া স্লোভাকিয়ার সামরিক অ্যাটাশে বহিষ্কার করল- রাশিয়া
ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে- খসরু ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে- খসরু
জয় পেতে যা করণীয় তাই করা হবে- মাশরাফি জয় পেতে যা করণীয় তাই করা হবে- মাশরাফি
আ’লীগ নয়, আমাদের প্রতিপক্ষ পুলিশ- বিএনপি আ’লীগ নয়, আমাদের প্রতিপক্ষ পুলিশ- বিএনপি
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে
জলবায়ু পরিবর্তনের যুদ্ধে নারীর অংশগ্রহণ করতে হবে-প্যাট্রিসিয়া
বিএনপির দুটি আসনের পরিবর্তন
কলেজ শিক্ষক আলী হোসেন হত্যা দুইজনের ত্যুদণ্ড
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার