ঢাকা, নভেম্বর ১৮, ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?
বুধবার ● ২৭ জুন ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?

---এম ডি জালাল: ২০১৫ সালের নভেম্বরে মানি লন্ডারিং আইন সংশোধন করে তদন্তকারী সংস্থা হিসেবে দুদকের পাশাপাশি সিআইডি, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর ও সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে দায়িত্ব দেয়া হলেও বিধির অভাবে সংস্থাগুলোর কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হচ্ছিল।কিন্ত দেরিতে হলেও সরকার ‘মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ বিধিমালা ২০১৮’ প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে, এটি স্বস্তিদায়ক। সরকারের প্রস্তাবিত বিধিমালায় সুনির্দিষ্টভাবে ২১ জায়গায় সংশোধনের প্রস্তাব দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক মানি লন্ডারিং আইনের একটি খসড়া বিধিমালা প্রস্তুতের পর অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ এপ্রিলে দুদক, সিআইডি, এনবিআর ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরসহ অংশীজনের মতামত চাইলে দুদক আনুষ্ঠানিকভাবে খসড়া বিধিমালায় নিজস্ব অভিমত তুলে ধরে, যা আমলে নেয়া উচিত বলে আমরা মনে করি।উদ্বেগের বিষয় হল, বহুল আলোচিত পানামা ও প্যারাডাইস পেপার্সসহ মালয়েশিয়া, লন্ডন, সিঙ্গাপুর, কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, দুবাইসহ বিভিন্ন দেশে প্রচুর বাংলাদেশি বাড়ি-ফ্ল্যাটসহ বিভিন্ন ব্যবসা-বাণিজ্যে হাজার হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছেন।

পুঁজি পাচারের ঘটনা ঘটে মূলত সঞ্চয় ও বিনিয়োগের মধ্যে ভারসাম্যহীনতা সৃষ্টির পরিপ্রেক্ষিতে। আশঙ্কার বিষয় হল, দেশে সঞ্চয় বাড়লেও বিনিয়োগ বাড়ছে না। এছাড়া টাকা পাচারের আরেকটি বড় কারণ হল দুর্নীতি। দুর্নীতি বেড়েছে বলেই অর্থ পাচারের হারও দিন দিন বাড়ছে।
এতদিন আইনে শুধু ‘ঘুষ দুর্নীতি’ শিরোনামে একটি অপরাধের তদন্তের এখতিয়ার দেয়ায় দুদক অর্থ পাচারের বিরুদ্ধে শক্ত কোনো ব্যবস্থা নিতে পারেনি। অন্যদিকে সিআইডি ও এনবিআরসহ চারটি সংস্থার তদন্ত শেষে অর্থ পাচারসংক্রান্ত অপরাধের মামলার চার্জশিট অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ কে হবে- সেটাও নির্ধারিত ছিল না।

এ বাস্তবতায় সরকার ‘মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ বিধিমালা ২০১৮’ চূড়ান্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যেখানে তদন্ত সংস্থাগুলোর অনুসন্ধান ও তদন্তসংক্রান্ত দায়িত্ব বিস্তারিতভাবে উল্লেখ থাকবে। তবে এক্ষেত্রে সংস্থাগুলোর মধ্যে যাতে সমন্বয়ের অভাব না ঘটে, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে। এবং পরিবর্তিত সে ব্যবস্থায় দেশ থেকে টাকা পাচারকারীদের আইনের আওতায় আনার পাশাপাশি বিদেশ থেকে পাচারকৃত অর্থ ফেরত আনার কাজ অনেকটাই সহজ হবে। কিন্ত তদন্ত সংক্রান্ত দায়িত্ব বণ্টন ও পালনের ক্ষেত্রে সরকারের বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে সমন্বয়হীনতার ঘটনা প্রায়ই ঘটছে। মূলত ফাইল ম্যানেজমেন্টে কেন্দ্রীয় ব্যবস্থাপনার অনুপস্থিতি, দুর্বল মনিটরিং সিস্টেম, ডাটাবেজ না থাকা এবং ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে কার্যক্রম পরিচালনার জন্যই এ ধরনের সমন্বয়হীনতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। সংস্থাগুলো নিজস্ব ডাটাবেজ তৈরি ও মনিটরিং ব্যবস্থা শক্তিশালী করার পাশাপাশি যদি অটোমেশন সিস্টেম ডেভেলপ করে, তবে অবস্থার পরিবর্তন হবে।


মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থেকে অব্যাহতি চায়- জাপান

এবার বোরকা নিষিদ্ধ করল নেদারল্যান্ড?


এ বিভাগের আরো খবর...

নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়? বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়?
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল? বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয় বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয়
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি? শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক? দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক?
অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন? অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন?
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার

সর্বাধিক পঠিত

বাণিজ্যযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে বাংলাদেশকে বাণিজ্যযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে বাংলাদেশকে
শীর্ষ বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষণা প্রকাশে ব্যর্থ- এপেক শীর্ষ বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষণা প্রকাশে ব্যর্থ- এপেক
আগামী বছর উত্তর কোরিয়া সফরে যাবেন-শি জিন পিং আগামী বছর উত্তর কোরিয়া সফরে যাবেন-শি জিন পিং
শিগগিরই খাসোগি হত্যাকারীদের নাম জানাবে- আমেরিকা শিগগিরই খাসোগি হত্যাকারীদের নাম জানাবে- আমেরিকা
বগুড়ায় মেলায় বিশালাকৃতির মাছের পসরা বসেছে বগুড়ায় মেলায় বিশালাকৃতির মাছের পসরা বসেছে
ভারতে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে ১৭.৪ টন ভারতে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে ১৭.৪ টন
টেস্টে ক্যাপ্টেন হওয়ার পর ধোনির কৃর্তী ফাঁস করলেন লক্ষ্মণ! টেস্টে ক্যাপ্টেন হওয়ার পর ধোনির কৃর্তী ফাঁস করলেন লক্ষ্মণ!
চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩% চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩%
মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান
“জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে বাঁচতে চাই” “জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে বাঁচতে চাই”
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে