ঢাকা, জুলাই ১৬, ২০১৮, ৩১ আষাঢ় ১৪২৫
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে জনসংখ্যা একটি বিরল সুযোগ
বুধবার ● ১১ জুলাই ২০১৮, ৩১ আষাঢ় ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে জনসংখ্যা একটি বিরল সুযোগ

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ এখন একটি সুবর্ণ সময়ে অবস্থান করছে, কেননা তার বিপুল সংখ্যক জনসংখ্যাকে বর্তমান সরকার সঠিকভাবে শক্তি হিসেবে ব্যবহার করতে পারছে।আজ রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় আয়োজিত উদ্বোধনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

স্পীকার বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে এই জনসংখ্যা একটি বিরল সুযোগ। এই সুযোগ একটি দেশের জন্য বারবার আসে না। বিশ্বের বিভিন্ন গবেষণাতেও দেখা গেছে, এই দিক থেকে বাংলাদেশ সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে। এই লক্ষ্যকেই সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। যে কারণে আমরা নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রেও সফলতা দেখছি। আমরা মাতৃ মৃত্যুহার ও শিশু মৃত্যুহার উল্লেখযোগ্য হারে কমাতে পরেছি। খুব শিগগিরই আমরা এটাকে শূন্যের কোটায় নিয়ে যেতে পারব বলে আশা করছি। আর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই সফলতা অর্জনে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে মিডিয়ার ভূমিকা অত্যন্ত উন্নয়ন বান্ধব ও উন্নয়ন সহায়ক। কেননা জনসচেতনতার মাধ্যমে এ কাজে এগিয়ে যেতে পেরেছি আমরা। তবে জনসচেতনতা সৃষ্টির এ কাজটিতে আরও অগ্রসর হতে হবে। একজন সুস্থ মা একটি সুস্থ জাতি উপহার দিতে পারে। এ ব্যাপারে জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিলের (ইউএনএফপিএ) সহযোগিতায় জাতীয় সংসদও ব্যাপক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। সংসদ সদস্যরা নিজস্ব এলাকায় ব্যাপক প্রচারণা চালানোর মাধ্যমে সক্রিয়ভাবে জনসংখ্যা বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টির সঙ্গে যুক্ত থাকছেন।

এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘পরিকল্পিত পরিবার সুরক্ষিত মানবাধিকার’কে সময়োপযোগী ও গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, জনসংখ্যা দিবসে যে মানবাধিকারের বিষয়টি যুক্ত করা হয়েছে তা সর্বপ্রথম ইরানের তেহরানে ১৯৬৮ সালে পরিলক্ষিত হয়েছিল। যা পরবর্তীতে আন্তর্জাতিকভাবে বারবার স্বীকৃতি দেওয়া হয়। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়েরও তা প্রতিফলিত হয়েছে। মানবাধিকারের সঙ্গে সঙ্গে পরিবার পরিকল্পনার বিষয়টি একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। যা দেশের সার্বিক উন্নয়নের সঙ্গে কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে নিবিড়ভাবে সম্পর্কিত। সম্পদের যথাযথ ব্যবহার, ব্যক্তির নিজস্ব উন্নতি ও সামাজিক অগ্রগতির জন্য এই বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি অর্জনের যে লক্ষ্যমাত্রা আমরা নির্ধারণ করেছি সেখানেও পরিবার পরিকল্পনাকে মানবাধিকার হিসেবে আখ্যা দিয়ে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। অতএব এক্ষেত্রে আমাদের সফলতা অর্জন অবশ্য কর্তব্য।

শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জিএম সালেহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক কাজী মোস্তফা সারোয়ার, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব সিরাজুল হক খান, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, ইউএনএফপিএ’র বাংলাদেশ প্রতিনিধি ড. আসা টোরকেলসন প্রমুখ।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০১৮ উদযাপন উপলক্ষে আইইএম ইউনিট, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের নির্মিত থিম সং রিলিজের মাধ্যমে দিবসটির উদ্বোধন করেন স্পীকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

এছাড়া অনুষ্ঠানে ২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৮ সালের মার্চ পর্যন্ত পরিবার পরিকল্পনা, মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবায় বিশেষ অবদানের জন্য জাতীয়ভাবে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ কর্মী ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হয়।


এতিমের টাকা খাওয়া নারীর জন্য কলঙ্ক- প্রধানমন্ত্রী

শিক্ষকদের অনশন ভাঙালেন আনিসুজ্জামান ও রাশেদা


এ বিভাগের আরো খবর...

ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা! ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা!
বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু
উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক
পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার
অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল? অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল?
বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি
মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী
হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন! হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন!
১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল ১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল
আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী

সর্বাধিক পঠিত

ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা! ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা!
বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু
উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক
পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার
অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল? অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল?
বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি
মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী
হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন! হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন!
১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল ১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল
আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী
রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে-গুতেরেস
শিশু মৃত্যু দায়ী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন?
প্রকল্প বাস্তবায়নে-দুর্নীতির দিকে নজর দিন?
মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?
আর্জেন্টিনা ১-০ নাইজেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া ০-০ আইসল্যান্ড
ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন?
প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটির মামলার প্রকৌশলীদের জামিন মঞ্জুর
কাঙ্খিত ফল পেতে হলে,ভেজালবিরোধী অভিযান চালু রাখতে হবে?
মাদকযুদ্ধে কেন হারবে বাংলাদেশ?
টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের দুই ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ৩