ঢাকা, জুলাই ১৬, ২০১৮, ৩১ আষাঢ় ১৪২৫
---
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » শিক্ষকদের অনশন ভাঙালেন আনিসুজ্জামান ও রাশেদা
বুধবার ● ১১ জুলাই ২০১৮, ৩১ আষাঢ় ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

শিক্ষকদের অনশন ভাঙালেন আনিসুজ্জামান ও রাশেদা

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:এমপিওভুক্তির দাবিতে খোলা আকাশের নিচে অবস্থানরত শিক্ষকদের পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙালেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান এবং গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী।আজ বিকাল ৩ টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রাস্তায় অনশনে থাকা শিক্ষক-কর্মচারীদের মাঝে উপস্থিত হয়ে তাদের অনশন ভাঙান এই দুই শিক্ষাবিদ।এ সময় জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান বলেন, ‘আপনারা দীর্ঘ দিন ধরে খোলা আকাশের নিচে না খেয়ে আন্দোলন করে যাচ্ছেন। এটি জাতির জন্য কষ্টদায়ক ব্যাপার।’ তিনি বলেন, ‘আপনাদের দাবির যৌক্তিকতা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সংসদে আপনাদের বিষয়টি নিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। আমরা আশা করছি বিষয়টি দ্রুত সমাধান হবে। আপনাদের সমস্যা সমাধানে শিক্ষা মন্ত্রণালয় একটি উপায় বের করবে, যেন দ্রুত এমপিওভুক্তিকরণ করা সম্ভব হয়। আপনারা শিক্ষার্থীদের কথা ভাবুন, দেশের মানুষের কথা ভাবুন। আপনারা ক্লাসে ফিরে যান।

এ সময় উপস্থিত গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনাদের দাবি যৌক্তিক। আপনারা শিক্ষার্থীদের কথা ও সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে অনশন ভেঙে পাঠদানে মনোযোগ দিন। দ্রুত আপনাদের দাবি বাস্তবায়ন করা হবে।’ এরপর রাশেদা কে চৌধুরী একজন মহিলা শিক্ষককে পানি খাইয়ে অনশন ভাঙেন।

এর আগে সকালে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সঙ্গে ৫ জন শিক্ষক নেতা দেখা করেন। সভায় এমপিওভুক্তির সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন জানিয়ে তাদের আন্দোলন স্থগিতের অনুরোধ করেন শিক্ষামন্ত্রী।
অনশন ভাঙানোর পর বাংলাদেশ নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভূষণ রায় বলেন, ‘আমরা আন্দোলন স্থগিত করেছি। আজ অধ্যাপক আনিসুজ্জামান ও রাশেদা কে চৌধুরী সরকারের পক্ষ থেকে এসেছেন। আমরা তাদের কাছ থেকে আশ্বাস পেয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে খুশির বার্তা দেওয়া হয়েছে, দাবি বাস্তবায়নে আগামী এক থেকে দুই মাস সময় লাগতে পারে। জুলাই থেকে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীকে এমপিও সুবিধা দেওয়া হবে বলে জেনেছি। ফলে আমরা এখন থেকে আন্দোলন স্থগিত করেছি, কাল থেকে পাঠদানে মনোযোগী হবো।’


বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে জনসংখ্যা একটি বিরল সুযোগ

খালেদা-গয়েশ্বরের বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা


এ বিভাগের আরো খবর...

ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা! ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা!
বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু
উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক
পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার
অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল? অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল?
বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি
মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী
হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন! হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন!
১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল ১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল
আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী

সর্বাধিক পঠিত

ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা! ইতিহাস গড়ে চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা!
বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু বিশ্বকাপে ৩৮ মিলিয়ন ডলারের লড়াই শুরু
উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক উ’ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাদের বৈঠক
পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার পুতিনকে ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টের জার্সি উপহার
অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল? অতীতে বাংলাদেশ-ক্রোয়েশিয়া ছিল একই মানের দল?
বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি বিএনপি রাজনীতি থেকে মাইনাস- দীপু মনি
মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমার রাজি থাকলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাস্তবে নেই- প্রধানমন্ত্রী
হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন! হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অাগুন!
১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল ১৯৯৮ বিশ্বকাপেরই পুনরাবৃত্তি যেন এই ফাইনাল
আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী আমাকে যারা নিরাপত্তা দেয় তাদের নিয়ে আমি চিন্তিত- প্রধানমন্ত্রী
রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে-গুতেরেস
শিশু মৃত্যু দায়ী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন?
প্রকল্প বাস্তবায়নে-দুর্নীতির দিকে নজর দিন?
মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন- আমলে নিন?
আর্জেন্টিনা ১-০ নাইজেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া ০-০ আইসল্যান্ড
ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকে কোন পথে নিয়ে যাচ্ছেন?
প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটির মামলার প্রকৌশলীদের জামিন মঞ্জুর
কাঙ্খিত ফল পেতে হলে,ভেজালবিরোধী অভিযান চালু রাখতে হবে?
মাদকযুদ্ধে কেন হারবে বাংলাদেশ?
টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের দুই ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ৩