ঢাকা, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » News & Events » প্রবাসীরা অধিকার প্রতিষ্ঠায় সরকারের পদক্ষেপ চায়- ইউকে মানিকগঞ্জ সমিতি
বৃহস্পতিবার ● ১৯ জুলাই ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

প্রবাসীরা অধিকার প্রতিষ্ঠায় সরকারের পদক্ষেপ চায়- ইউকে মানিকগঞ্জ সমিতি

---বিবিসি২৪নিউজ,এম ডি জালাল, লন্ডন থেকে ফিরে: প্রাণের টানে শিকড়ে গানে, এসো মাতি মিলন উৎসবে’ বাঙালি যেখানেই যায়, সেখানেই তার শিকড় সংস্কৃতি নিয়েই যায়।যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশীদের জীবন-যাপনে কোন না কোন ভাবে মাতৃভূমিকে ধারণ করে আছেন। বাঙালি জীবন সংস্কৃতি, সামাজিক, ইতিহাস ঐতিহ্য লালন ও বিকাশে বিলেতে বাংলাদেশেরে একটা শক্ত ভিত্তি তৈরী করেছেন। শুধু তাই নয়, কর্ম প্রদচারণাও খুবই উজ্জলতর,খোদ লোকাল অথরিটি থেকে শুরু করে ব্রিটেনের মেইনষ্ট্রিম রাজনীতি পর্যন্ত আলোকিত ভাবে বিস্তৃত বাংলাবাসীরা।

সাম্প্রতি লন্ডনের একটি হোটেলে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ কমিউনিটি মানিকগঞ্জ জেলা সমিতির আয়োজনে বিবিসি২৪নিউজ- মিড দ্যা প্রেস আলোচনায়, প্রবাসীরা তাদের নানা সমস্যা তুলে ধরেন।তারা বলেন, প্রবাসীরা সব সময় দেশের বিপদ-দূর্যোগে সবার আগে এগিয়ে আসেন, কিন্তু তারা দেশে অবহেলিত। তারা তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র, ভোটের অধিকার, বাংলাদেশে নানা হয়রানিসহ বেশ কিছু দাবি তুলে ধরেন।

এছাড়া যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ কমিউনিটি মানিকগঞ্জ জেলা সমিতির সভাপতি বাদশা মিয়া তার বক্তব্য বলেন, মানিকগঞ্জ জেলা সমিতি ইউকে ২০১৬ সালে ১৬-জুলাই শিক্ষা, শান্তি, ঐক্য এবং প্রগতির শ্লোগান নিয়ে স্হাপিত হয়। আমাদের উদ্দেশ্য ইউরোপ সহ সারাবিশ্বে বাংলাদেশের মানিকগঞ্জ জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতিকে তুলে ধরা । এছাড়া বাংলাদেশ যেকোন প্রকৃতিক দূর্যোগ-বন্যা, মহামারি ঘূর্ণিরঝড়, সাইক্লোনসহ, দূগর্ত মানুষের সহযোগীতা এগিয়ে আসা।

---পৃথক বক্তব্য সংঘটনটির মহা সচিব মোহাম্মদ মফিজ উদ্দিন বলেন, আমরা গতবছর আসহায় বিপদগ্রস্ত রোহিঙ্গাদের সাহায্যে টাকা ও পোশাক বিতরন করেছি। মানিকগঞ্জ জেলার যেকোন উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ডে সাহায্য করার পরিকল্পনা রয়েছে।এছাড়াও বাংলা সাংস্কৃতি ইফতার, পিকনিক, ঈদমেলা, একুশের ফেব্রুয়ারি, স্বধীনতা দিবস, বাংলা নববর্ষ, পালনসহ ইউকেতে চ্যারেটি রেজেষ্টশন ও একটি বাংলা স্কুল করার পরিকল্পনা আছে। তিনি আরোও বলেন, আমরা বাংলাদেশে গেলে বিমানবন্দর থেকে হয়রানি শিকার শুরু হয়ে সমস্ত অফিস আদালত পর্যন্ত হয়রানি শিকার হতে হচ্ছে। এ বিষয়ে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

লন্ডনের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা বিশিষ্টজনেরা তাদের বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে বন্যা, সিডর, রানাপ্লাজা,এসিড ভিকটিম অথবা সাম্প্রতিক রোহিঙ্গা শরণার্থিদের পাশে দাড়ানো সহ সবখানেই সবার আগে দুহাত বাড়িয়ে পাশে থাকায়। ব্রিটেনে বাংলাদেশিরা প্রসংসিত ।

বিশ্বের বহু জাতিক শহর হিসাবে খ্যাত লন্ডন শহরে ইতিহাস ঐতিহ্যের রত্নগর্ভা বারার নাম টাওয়ার হ্যামলেটস। এই বারাতে সংখ্যাগরিষ্ট এ্যাথনিক কমিউনিটি হলো বাংলাদেশী। যোগ্যতায় , ল্যোকাল কাউন্সিল, সরকারের অবৈতনিক সেবামূলক সংস্থা, প্রতিষ্টান, কমিউনিটির বিভিন্ন কাজে তাঁরা নি:স্বার্থভাবে তাদের পাড়া- প্রতিবেশীদের জন্য কাজ করেন, বিপদে- আপদে পাশে দাড়ান বলেই ভিন্নভাষা ভাষিদের-ও জানা হয়ে গেছে যে, এই সংখ্যাগরিষ্টদের জন্মমাটি বাংলাদেশ।

নাগরিক বর্ণমালা নিয়ে ব্রিটিশরা বহুল প্রচলিত ভাষা হিসাবে ধারাবাহিক গবেষণা করছে। রয়েছে শিক্ষা, সামাজিক,রাজনীতি ও সংস্কৃতি চর্চার নিজস্ব পিরামিডসম ভিত্তি। বিলেতে বাংলাদেশটা বিশ্বে তুলে ধরেছেন নিহারিকার মতো। বাংলাদেশের ফুল, পাখি, ফল, লতাপাতা সবকিছুই ব্রিটেনে বাংলাদেশী প্রধানত প্রসার ও ভিত্তি গড়েছেন। বঙ্গবন্ধু প্রাইমরী স্কুল,ওসমানী প্রাইমারী স্কুল, কবি নজরুল প্রাইমারী স্কুল, বাংলা টাউন, ক্যারী ক্যাপিটাল ব্রিকলেন ,আলতাব আলী পার্ক, বাংলা বর্ণমালায় ষ্ট্রিট ইত্যাদিসহ কঠিক দূরপ্রসারী কাজগুলো নিখাঁদ দেশপ্রেমে বাংলাবাসীরা করেছেন।

বিলেতের প্রায় সবকটি অঞ্চলেই বাংলাদেশেীদের কমবেশী বাস। রাজধানী লন্ডন ছাড়াও বার্মিংহাম, ম্যানচেষ্টার, কার্ডিফ, ওয়েলস শহর সহ গোটা ব্রিটেনে আছে বাংলাদেশীদের প্রদচারনা।
টাওয়ার হ্যামলেটস এ অলগেইট টু মাইল্যান্ড-ষ্ট্রাটফোর্ড-ইলফোর্ড; অল্প-বিস্তর দূরত্বের মাঝেই খুঁজে পাওয়া যাবে শত বাঙালি নাম খুদাই করা আছে। বিভিন্ন প্রতিষ্টান, দোকান বা রেস্তুরায়। শাপলা, দোয়েল, মাছবাজার, হাটবাজার, কাঁচাবাজার, বন্দরবাজার, সিলেট বাজার, পানসি, বনফুল, রাজমহল, পানভান্ডার, গ্রামবাংলা ইত্যাদি। প্রায় শতাধিক ধর্মীয় ও সেবামুলক প্রতিষ্টান এর নাম সিলেটিরা রেখেছেন ধর্মীয় আধ্যাতিক নেতা- হযরত শাহজালাল রহ: এর নামে। দুস্প্রাপ্য হলেও এখানে বাংলাদেশী সংস্কৃতি ঘনিষ্ট সব কিছু পাওয়া যায়।

নতুন প্রজন্মের অনেকে বাংলাভাষায় কথা বলতে না পারলেও তাদের কথ্যভাষা বলতে পারেন এবং স্বাচ্ছন্দও বোধ করেন।( বাংলাভাষার প্রতি এখানে কারোই অনিহা স্পষ্টত নেই।বাঙালির মহান মুক্তিযুদ্ধে ব্রিটেন প্রবাসীদের অবদান ইতিহাসে চিরস্বরনীয় হয়ে আছে। লন্ডনে বাংলাদেশীদের রয়েছে এক অদ্ভুদ নাড়ির টান। ব্রিনেটবাসী বাংলাদেশ যেন দুটি দেশে একপ্রাণ।লন্ডনে বহুল ভাবে উচ্চারিত,প্রসংসিত বাংলাবাসীরা।

বাদশা মিয়া সভাপতিত্বে ও মোহাম্মদ মফিজ উদ্দিনের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আন্তর্জাতিক সাংবাদিক এম ডি জালাল মিয়া, বিশেষ অতিথি ছিলেন জার্মান থেকে আগত আবু আইয়ুব চৈাধুরী মুকুল। মোবারক হোসেন খান, খলিল কাজী, নুরুল আলম, আব্দুস সালাম, ফরহাদ খান, হুমায়ন হোসেন খানঁ, জুলিয়া হক,জাকির হোসেন, মো: মুক্তার হোসেন, মো: টিপুখানঁ, আব্দুর রহমান, জালাল আহমেদ, রাসেল মিয়া, সেলিম এস খানঁ, শামীমা আক্তার রুপা, হীরা খানম, ফরিদা ইয়াসমিন, মাহফুজা আক্তার মুক্তি, মাহবুব উদ্দিন ভূইয়া, মুন্নু মিয়া, নাসির উদ্দিন লাভলু, সালমান আহমেদ,ইলিয়াস আহমেদ, লেবু মিয়া, আনোয়ার হোসেন, মামুনুর রহমান। অনুষ্ঠানে যোগ দেন বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা বিশিষ্টজনেরা। এ যেন দেশের বাইরে দ্বিতীয় এক বাংলাদেশ।এ বিষয়ে সরকারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীরা বিবিসি২৪নিউজকে বলেন,

---প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে অভিবাসী কর্মীদের অবদান অপরিসীম, তাঁদের হয়রানি বন্ধে সবাইকে তৎপর হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। বিমানবন্দর ও বিদেশে পদে পদে প্রবাসীদের হয়রানি প্রসঙ্গে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বলেন, ‘দূতাবাসগুলো নিয়ন্ত্রণ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বিমানবন্দরও আমাদের এখতিয়ারে নয়। তারপরও আমরা সবাইকে নির্দেশনা দিয়েছি কোথাও যেন প্রবাসীরা হয়রানির শিকার না হন। এ জন্য প্রয়োজনে নজরদারি করা হবে। দেশে তাঁদের সম্পদ বা বাড়িঘর দখল হয়ে যাচ্ছে, এমন অভিযোগ পেলেও আমরা ব্যবস্থা নেব।’

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিছুল হক বলেন, দ্বৈত নাগরিকত্ব বিলে প্রবাসীদের বিরুদ্ধে যায় এমন কোন আইন পাস করা হবেনা। যদি কোন কিছু থাকে তাহলে সেগুলো সংশোধন করা হবে। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবাসী বাংলাদেশীদের স্বার্থবিরোধী কোন আইন যাতে পাস না হয় সেদিকে খুবই যত্নশীল। সে কারণে নাগরিকত্ব আইন প্রবাসীদের স্বার্থক্ষুন্ন হওয়ার কিছুই নেই‘‘। এছাড়া তিনি বলেন,বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানের জেল থেকে ছাড়া পাবার পর লন্ডন প্রবাসী বাংলাদেশী কাছে প্রথম এসেছিলেন।এমন কোন আইন করা হবেনা যাতে আপনাদের ক্ষতি হয়।

তিনি আরো বলেন ‘‘দ্বৈত নাগরিকত্ব আইন কোন ভাবেই প্রবাসীদের স্বার্থ খর্ব করবে না,আইন সকল বাংলাদেশী ও প্রবাসী বাংলাদেশীদের সমঅধিকার থাকবে। এ আইনের মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সম্পত্তির অধিকার কোন ভাবেই ক্ষুন্ন হবেনা।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার করতে দ্বৈত নাগরিকত্বকে প্রধান সমস্যা হিসেবে দেখছেন‘বর্তমানে প্রক্সি ভোট ও পোস্টাল ভোটের নিয়ম আছে। এর মাধ্যমে প্রবাসীরা ভোট দিতে পারেন। আগামী নির্বাচনের আগে এসব পদ্ধতি নিয়ে প্রচার প্রচারণা হবে।

বাংলাদেশের এক কোটিরও বেশি নাগরিক পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বসবাস করেন। তাদের ভোটাধিকার নিশ্চিতে দীর্ঘদিন ধরে দাবি আছে। কে এম নূরুল হুদা নেতৃত্বাধীন বর্তমান কমিশন প্রবাসী ভোটার করতে নতুন করে উদ্যোগ নিয়েছে।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে বিশেষ করে যারা দীর্ঘদিন ধরে উন্নত বিশ্বে অবস্থান করছেন, তাদের একটি বড় অংশ সে দেশেরও নাগরিকত্ব নিয়েছেন। আবার তারা বাংলাদেশের নাগরিকত্বও বাদ দেননি।
এই বিষয়টির উল্লেখ করে ‘দ্বৈত নাগরিকদের ভোট দেয়া সংবিধান অনুমতি দেয়নি। এজন্য এটা আলোচনা না করাই ভাল। প্রবাসীদের ভোট দেয়ার অধিকার, তাদের কীভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করা যায় সেটা আলোচনা করা দরকার।’

পোস্টাল ভোট পদ্ধতিতে একজন প্রবাসী তার পছন্দমত যেকোনো জায়গা থেকে ভোট দিতে পারেন। আবেদন করলে ওই ঠিকানায় আগে থেকে ব্যালট পেপার সরবরাহ করা হয়। ভোট দেয়ার পর তা দেশে ডাকযোগে পাঠিয়ে দেয়া হয়। এ পদ্ধতি প্রবাসীদের জন্য ২০০৮ সাল থেকে চালু আছে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছেন,প্রবাসীদের জটিলতাসহ যেকোনো সমস্যা সমাধানে কাজ করছে সরকার।প্রবাসীরা যেন হয়রানির শিকার না হন সেদিকে খেয়াল রাখতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।প্রবাসী আয় জাতীয় উন্নয়নের অগ্রগতিকে আরও ত্বরান্বিত করছে। বিমানবন্দর কিংবা দূতাবাসে কোথাও যেন তাঁরা হয়রানির শিকার না হন।’‘বাংলাদেশ অর্থনৈতিক উন্নয়ন বিবেচনায়  আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। আমাদের এ সাফল্যে প্রবাসী কর্মীদের প্রেরিত অর্থ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। ক্রমান্বয়ে প্রবাসী আয় বাড়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকে সঞ্চিত বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আমাদের অর্থনীতিকে দাঁড় করিয়েছে শক্ত ভিত্তির ওপর।’


শতভাগ পাস ৪০০ প্রতিষ্ঠানে, পাস করেনি ৫৫টিতে

সোনা নিয়ে কথা বলা বিএনপির মুখে শোভা পায় না- কাদের


এ বিভাগের আরো খবর...

বিশ্লেষকরা ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহারকে ‘ফাঁকা বুলি’ বলছেন কেন? বিশ্লেষকরা ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহারকে ‘ফাঁকা বুলি’ বলছেন কেন?
বিএনপির প্রার্থী শূন্য ঢাকা-২০ আসনে বিএনপির প্রার্থী শূন্য ঢাকা-২০ আসনে
নেইমারের সমালোচনায় পেলে নেইমারের সমালোচনায় পেলে
ঐক্যফ্রন্টের  ইশতেহারে ১৪ প্রতিশ্রুতি ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহারে ১৪ প্রতিশ্রুতি
পর্যবেক্ষণ অব্যাহত রাখবে অ্যালায়েন্স পর্যবেক্ষণ অব্যাহত রাখবে অ্যালায়েন্স
বিএনপির প্রার্থীরা প্রচারে কৌশল অবলম্বন করছে কেন? বিএনপির প্রার্থীরা প্রচারে কৌশল অবলম্বন করছে কেন?
আজ গৌরবময় বিজয় দিবস আজ গৌরবময় বিজয় দিবস
প্রথম শ্রেণীর প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ১২ ক্ষুদে শিক্ষার্থী লড়বে প্রথম শ্রেণীর প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ১২ ক্ষুদে শিক্ষার্থী লড়বে
ভিডিও কনফারেন্সে নির্বাচনি প্রচার চালাবেন-শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সে নির্বাচনি প্রচার চালাবেন-শেখ হাসিনা
কিশোর-কিশোরীর মরদেহ কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর মরদেহ কুড়িগ্রামে

সর্বাধিক পঠিত

মা ক্যানসারে আক্রান্ত ছেলে আসছেন কেকেআরএ মা ক্যানসারে আক্রান্ত ছেলে আসছেন কেকেআরএ
চাহিদার অতিরিক্ত কফি: ইউএসডিএ চাহিদার অতিরিক্ত কফি: ইউএসডিএ
দেশে ১০১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন দেশে ১০১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন
মাহবুব তালুকদারের কথা সত্য নয়- সিইসি মাহবুব তালুকদারের কথা সত্য নয়- সিইসি
আইসিএসবিতে বিজয় দিবস পালন আইসিএসবিতে বিজয় দিবস পালন
নিলামে বড় প্রশ্ন যুবরাজকে নিয়ে নিলামে বড় প্রশ্ন যুবরাজকে নিয়ে
ঢাকায় ধানের শীষের প্রার্থী সালাহউদ্দিনের প্রচারে হামলা! ঢাকায় ধানের শীষের প্রার্থী সালাহউদ্দিনের প্রচারে হামলা!
নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে- বিএনপি নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে- বিএনপি
আইপিএলের নিলাম শুরু আইপিএলের নিলাম শুরু
ছয় মাসের  জামিন পেয়েছে- মইনুল ছয় মাসের জামিন পেয়েছে- মইনুল
নেইমারের সমালোচনায় পেলে
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে
জলবায়ু পরিবর্তনের যুদ্ধে নারীর অংশগ্রহণ করতে হবে-প্যাট্রিসিয়া
বিএনপির দুটি আসনের পরিবর্তন
কলেজ শিক্ষক আলী হোসেন হত্যা দুইজনের ত্যুদণ্ড
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল