ঢাকা, জানুয়ারী ২২, ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » News & Events » বাড়তি চারগুণ টাকায় মিলছে আকাশ পথে ঈদের টিকিট
সোমবার ● ২৩ জুলাই ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

বাড়তি চারগুণ টাকায় মিলছে আকাশ পথে ঈদের টিকিট

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:এবারের ঈদেও অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনাকারী এয়ারলাইন্সগুলো ঘরমুখো যাত্রীদের কাছ থেকে তিন থেকে চারগুণ টাকা আদায় শুরু করেছে। নিয়ন্ত্রণ সংস্থার এ সংক্রান্ত কোনো নির্দেশনা না থাকায় এয়ারলাইন্সগুলো নিজেদের ইচ্ছেমতো ঈদের আগে ও পরের দুই সপ্তাহ চড়া মূল্যে টিকিট বিক্রি করছে।আকাশপথে বাড়তি অর্থ আদায় যেন নিয়মে পরিণত হয়েছে। ঈদ আসতে এখনও একমাস বাকি। অথচ এখনই বলা হচ্ছে টিকিট নেই। আকাশ পরিবহনের বাজারে তৈরি করা হয়েছে টিকিটের কৃত্রিম সঙ্কট। ন্যায্যমূল্যের টিকিট নেই, আছে চড়া বা বাড়তি মূল্যের টিকিট। আড়াই হাজার টাকার ওয়ানওয়ে ভাড়া নেয়া হচ্ছে ৮ থেকে ৯ হাজার টাকা।এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউএস-বাংলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরার আসিফ বলেন, বাংলাদেশে অভ্যন্তরীণ রুটে উড়োজাহাজ চালানো চ্যালেঞ্জের বিষয়। গত সাত মাসে তিন দফা ফুয়েলের দাম বাড়ায় ছোটখাটো রুট পরিচালনা ব্যয়বহুল হয়ে পড়েছে।

ঈদে ভাড়া বাড়ার দ্বিতীয় কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ঈদে এয়ারলাইন্সগুলোর একমুখী যাত্রী পরিবহন করতে হয়। বলতে পারেন ডেডিকেটেড ফ্লাইট। ঈদের আগের কয়েকদিন যেমন ফিরতি যাত্রী পাওয়া যায় না তেমনি ঈদের পরে রাজধানী থেকে যাত্রী পাওয়া যায় না।

অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনাকারী একাধিক এয়ারলাইন্স সূত্রে জানা গেছে, আকাশপথে ঈদের আগের প্রায় ৯০ শতাংশ টিকিট শেষ। কিছু টিকিট অবশিষ্ট থাকলেও সেগুলো নিয়মিত ভাড়ার চেয়ে তিনগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে। ঢাকা থেকে সৈয়দপুর রুটে যাত্রীদের ভাড়া (ওয়ানওয়ে) গুণতে হচ্ছে ৮ হাজার ৫০০ থেকে ৯ হাজার টাকা। অন্য সময়ে একই টিকিট বিক্রি হতো সর্বোচ্চ ৩ হাজার ৪০০ টাকায়।একইভাবে ঢাকা থেকে যশোর রুটের ২ হাজার ৫০০ টাকার টিকিট বিক্রি হচ্ছে ৮ হাজার ৪০০ টাকায় এবং ঢাকা থেকে বরিশালের ৩ হাজার টাকার টিকিট নেয়া হচ্ছে সাড়ে ৭ হাজার থেকে সাড়ে ৮ হাজার টাকা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ওয়েবসাইটে দেখা গেছে, ঈদের আগের দিন ২২ আগস্ট বিজি-৪৯১ ফ্লাইটে ঢাকা থেকে রাজশাহীর ওয়ানওয়ে ভাড়া ৮ হাজার টাকা। অথচ এই রুটের নিয়মিত ভাড়া আড়াই হাজার টাকা।


জার্মান দল থেকে পদত্যাগ করলেন ওজিল

স্বাধীনতার প্রশ্নে ‘নিউক্লিয়াস’ও বঙ্গবন্ধুর মধ্যে কী ঘটেছিলো?


এ বিভাগের আরো খবর...

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস
বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা
বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ
বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী
পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই

সর্বাধিক পঠিত

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস
বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা
রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা
বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ
প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায় প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায়
বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে