ঢাকা, নভেম্বর ১৩, ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রিয়দেশ » সাপে কামড়ানো রোগীকে বাঁচাতে করণীয়?
রবিবার ● ৫ আগস্ট ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

সাপে কামড়ানো রোগীকে বাঁচাতে করণীয়?

---বিবিসি২৪নিউজ,এমডি রনি:প্রত্যেক বছর দেশে মানুষের মৃত্যু হয় সাপের কামড়ে। তার মধ্যে বেশির ভাগ মৃত্যুই সাপ কামড়ানোর পর পরই রোগীর যত্নে গলদ থাকার জন্য।শুধু গ্রাম বলেই নয়, শহরাঞ্চলেও মানুষের ভ্রান্ত ধারণা ও কু-সংস্কারের বশবর্তী হয়ে অনেক রোগীর মৃত্যু হয়। সাপে কামড়ালে অধিকাংশ মানুষেরই যে ভয় ও জ্বালায় হৃদস্পন্দন বন্ধ হয়ে মৃত্যু হয় এ কথা অনেকেই জানেন। কিন্তু অনেক কিছু জানার পরেও যে বিশেষ বিষয়গুলোয় আমরা ভুল করে থাকি তাতেই ঘটে হিতে বিপরীত।

সরকারি উদ্যোগে সারা বছরই কম-বেশি প্রচার চলে সাপের কামড়ের পর অবশ্য করণীয় নিয়ে। আরও এক বার জেনে নিন সাপে কামড়েলে কী কী করলে তা ডেকে আনতে পারে বিপদ।
জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ সুবর্ণ গোস্বামীর মতে:

শরীরের যেখানে সাপ কামড়াবে, সেই জায়গাটিকে বেশি নাড়াচাড়া করবেন না। হাঁটা-চলা করানোর চেষ্টা তো একেবারেই নয়। বেশি নাড়াচাড়ার শরীরের পেশীতে টান পড়ে। রক্ত চলাচল বাড়ে। ফলে বিষ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে শরীরে।

অনেকেই সাপে কামড়ানোর ক্ষতের পাশে কিছুটা জায়গা চিরে বা কেটে দেন। ভাবেন, এতে ক্ষতে থাকা বিষ বেরিয়ে যাবে। একেবারেই ভুল ধারণা। বরং এমন করলে রক্তে আরও দ্রুত বিষ ছড়িয়ে পড়ার সুযোগ পায়। এতে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে।

ব্যথা হবেই। কিন্তু ব্যথা কমানোর ওষুধ কখনও দেবেন না এ ক্ষেত্রে। এতে রোগীর প্রকৃত অবস্থা বোঝা যাবে না, চিকিৎসায় ব্যাঘাত ঘটবে।

স্ট্রেচারে শোওয়ানোর মতো করে সোজা করে রোগীকে শোওয়ান। কাত করে, বেশি হাত-পা নাড়িয়ে শোয়াবেন না। লক্ষ রাখতে হবে কোনও ভাবেই যেন বিষ ছড়িয়ে পড়ার কোনও সম্ভাবনা না তৈরি হয়।

সাপে কামড়ালে সব চেয়ে প্রয়োজন দ্রুত চিকিৎসার। কোনও রকম কু-সংস্কারের ফাঁদে পা না দিয়ে যত দ্রুত সম্ভব রোগীকে নিয়ে যান হাসপাতালে।


কাজলের দৈনন্দিনে ‘হেলিকপ্টার এলা’র রং

শাহ আমানতে ১৩৫টি সোনারসহ আটক ১


এ বিভাগের আরো খবর...

তৃতীয় দিন প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করছে জিম্বাবুয়ে তৃতীয় দিন প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করছে জিম্বাবুয়ে
মিস ওয়ার্ল্ডের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে চীনে- ঐশী মিস ওয়ার্ল্ডের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে চীনে- ঐশী
টিভি পর্দার খেলার সূচী টিভি পর্দার খেলার সূচী
দারুণ ব্যাটিংয়ে তিনশ রানের স্বস্তিতে বাংলাদেশ দারুণ ব্যাটিংয়ে তিনশ রানের স্বস্তিতে বাংলাদেশ
মুশফিক ১০৯ ও মুমিনুল ১৪৮ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মুশফিক ১০৯ ও মুমিনুল ১৪৮ রান নিয়ে ব্যাট করছেন
সিরিজ জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী মাসাকাদজা সিরিজ জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী মাসাকাদজা
মোহাম্মদপুরে আওয়ামী লীগের সংঘর্ষে ২ জন নিহত মোহাম্মদপুরে আওয়ামী লীগের সংঘর্ষে ২ জন নিহত
যুবকের গোপনাঙ্গ কেটে নিলেন যুবতি! যুবকের গোপনাঙ্গ কেটে নিলেন যুবতি!
জেলায় জেলায় পাঠানো হচ্ছে  নির্বাচনী সরঞ্জাম জেলায় জেলায় পাঠানো হচ্ছে নির্বাচনী সরঞ্জাম
জাতির উদ্দেশে সিইসির ভাষণ সরাসরি দেখুন কিক্ল করে জাতির উদ্দেশে সিইসির ভাষণ সরাসরি দেখুন কিক্ল করে

সর্বাধিক পঠিত

ঐক্যফ্রন্টের জরুরি বৈঠক চলছে ঐক্যফ্রন্টের জরুরি বৈঠক চলছে
তৃতীয় দিন প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করছে জিম্বাবুয়ে তৃতীয় দিন প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করছে জিম্বাবুয়ে
বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ের দুরবস্থা বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ের দুরবস্থা
কাট্টলী টেক্সটাইলের লেনদেন শুরু কাট্টলী টেক্সটাইলের লেনদেন শুরু
৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি ৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি
পুলিশ প্লাজায় ফ্লোর কিনবে এসিআই পুলিশ প্লাজায় ফ্লোর কিনবে এসিআই
বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট
খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা
সৎমায়ের কাছ থেকে পেশাদারত্ব শিখতে চাই-সারা সৎমায়ের কাছ থেকে পেশাদারত্ব শিখতে চাই-সারা
সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ! সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ!
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!