ঢাকা, অক্টোবর ১৫, ২০১৮, ৩০ আশ্বিন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » পরিবহন-নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিন!
রবিবার ● ৫ আগস্ট ২০১৮, ৩০ আশ্বিন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

পরিবহন-নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিন!

---এম ডি জালাল, বাংলাদেশে উদ্বেগের বিষয়, ফিটনেস-সনদবিহীন, লাইসেন্স ছাড়া ১৬ লাখের বেশি বাস-ট্রাক গাড়ি সড়কে চলছে।আমাদের সড়ক পথে বছরের পর বছর নৈরাজ্য চলছে, এমনকি সড়ক মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে তাতে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল মহলের কোনো মাথাব্যথা আছে বলে মনে হয় না।দায়িত্বশীল মহল যদি যত্নবান হতো তবে কোনোভাবেই দেশে এ অবস্থা হতো না। আরও উদ্বেগের বিষয়, ফিটনেস সনদবিহীন ও লাইসেন্সধারী চালকবিহীন এসব গাড়ি চলছে পুলিশ ও পরিবহন সমিতিগুলোকে ‘ম্যানেজ’ করেই। পরিস্থিতি এমন বেপরোয়া হলে সড়ক মৃত্যুফাঁদে পরিণত হওয়াটা অস্বাভাবিক নয়। দেশবাসীর দাবি- যথেষ্ট হয়েছে, এবার যে কোনো মূল্যে সড়ক নিরাপদ করতে হবে।

সম্প্রতি রাজধানীর বিমানবন্দর রোডে দুটি বাস পাড়াপাড়ি করতে গিয়ে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস ফুটপাতে উঠে শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের এক ছাত্র ও এক ছাত্রীকে চাপা দিয়ে হত্যার পর স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীদের রাস্তায় নেমে আসা এবং গাড়ির চালকদের লাইসেন্স চেক করার ঘটনা বার্তা দিয়েছে যে সাধারণ মানুষ তো বটেই, পুলিশের কর্মকর্তা থেকে মন্ত্রী পর্যন্ত লাইসেন্সবিহীন চালক ও ফিটনেসবিহীন গাড়ি ব্যবহার করছেন দেদার।

রাস্তায় লেন এবং অ্যাম্বুলেন্সের জন্য পৃথক লেন বানিয়ে ছাত্ররা সবাইকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে রাস্তার শৃঙ্খলা কেমন হওয়া দরকার। এখন বিআরটিএ, যোগাযোগ মন্ত্রণালয়সহ দায়িত্বশীল সব পক্ষকে সড়কে নৈরাজ্য রোধে ফিটনেস সনদবিহীন গাড়ি ও লাইসেন্সবিহীন চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এগিয়ে আসা দরকার।

সড়ককে মৃত্যুফাঁদ বানিয়ে ফেলার পেছনের কারণ সড়ক দুর্ঘটনা, এমনকি সড়কে হত্যার শাস্তির জন্য কঠোর কোনো আইন না থাকা। এতদিন পুরনো মোটরযান আইনে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ ছিল মাত্র ২০ হাজার টাকা এবং নানা ফাঁকফোকরে পড়ে তা-ও বাস্তবায়ন হতো না।

আশার কথা, চূড়ান্ত হতে যাচ্ছে ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’। এতে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলে দণ্ডবিধি অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন ও বিভিন্ন সাজার বিধান রাখা হচ্ছে। এছাড়া ফিটনেস সনদবিহীন গাড়ি, লাইসেন্সবিহীন চালক এবং অন্যান্য নিয়ম-কানুন ভঙ্গের শাস্তিও বাড়ানো হচ্ছে।

আমরা মনে করি, কেবল আইন করলে হবে না, চূড়ান্ত হওয়ার পর আইনটি দ্রুত কার্যকর করার উদ্যোগও থাকতে হবে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে, বিভিন্ন সময় সংঘবদ্ধ হয়ে মানুষকে জিম্মি করে নিজেদের অন্যায় দাবি, এমনকি স্বার্থের জন্য খোদ আদালতের রায়ের বিরুদ্ধেও অবস্থান নিতে দেখা গেছে পরিবহন শ্রমিকদের। যখনই তাদের স্বার্থের বিরুদ্ধে গেছে, তখনই তারা ধর্মঘট করে মানুষকে জিম্মি করে ফেলেছে।বর্তমান সময়ে এমন নৈরাজ্য কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

সরকারের দায়িত্বশীল মহলের উচিত ফিটনেস সনদবিহীন গাড়ি, লাইসেন্সবিহীন চালকদের এবং এরূপ গাড়ির মালিকদের শাস্তির পাশাপাশি শ্রমিক সংগঠনগুলোকেও জবাবদিহির আওতায় আনা।


ফার্মগেটে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা!

জাতীয় সম্পদ কেলেঙ্কারির ঘটনা উদ্ঘাটিত হবে কি?


এ বিভাগের আরো খবর...

অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন? অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন?
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
নিম্নমানের ওষুধ মনিটরিংয়ে শক্তিশালী পদক্ষেপ নিন? নিম্নমানের ওষুধ মনিটরিংয়ে শক্তিশালী পদক্ষেপ নিন?
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি! রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!
খালেদা জিয়ার জামিন বহাল খালেদা জিয়ার জামিন বহাল
বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে নেপালে প্রধানমন্ত্রী বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে নেপালে প্রধানমন্ত্রী

সর্বাধিক পঠিত

সিমেন্টের দাম ১০% বাড়তে পারে-ভারতে সিমেন্টের দাম ১০% বাড়তে পারে-ভারতে
সিনেমায় শাবনূরের ২৫ বছর পার হল সিনেমায় শাবনূরের ২৫ বছর পার হল
পাকিস্তানে চাল উৎপাদন কমবে ১ লাখ টন পাকিস্তানে চাল উৎপাদন কমবে ১ লাখ টন
মূলধন বেড়েছে ব্যাংক বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মূলধন বেড়েছে ব্যাংক বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের
দায়িত্বশীল আচরণ দিয়ে যাত্রাকে নির্বিঘ্ন ও সুন্দর করে তুলতে পারি দায়িত্বশীল আচরণ দিয়ে যাত্রাকে নির্বিঘ্ন ও সুন্দর করে তুলতে পারি
এফএএস ফিন্যান্সের ডিএমডি মো. নূরুল হক গাজী এফএএস ফিন্যান্সের ডিএমডি মো. নূরুল হক গাজী
আবারও ইসির বৈঠক থেকে বেরিয়ে গেলেন- মাহবুব তালুকদার আবারও ইসির বৈঠক থেকে বেরিয়ে গেলেন- মাহবুব তালুকদার
জেনভায়ো ফার্মার আয়োজনে ক্যানসার সচেতনতাবিষয়ক কর্মসূচি জেনভায়ো ফার্মার আয়োজনে ক্যানসার সচেতনতাবিষয়ক কর্মসূচি
”ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন” সংশোধন চেয়ে সম্পাদক পরিষদের মানববন্ধন ”ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন” সংশোধন চেয়ে সম্পাদক পরিষদের মানববন্ধন
রাহসান নূর পাহাড়ি মেয়ে খোঁজে আছেন রাহসান নূর পাহাড়ি মেয়ে খোঁজে আছেন
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!
খালেদা জিয়ার জামিন বহাল
বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে নেপালে প্রধানমন্ত্রী
আওয়ামী লীগের জন্য যা পেয়েছি তা ভয়ংকর!
‘ট্যঁর দ্যে ফ্যাম’ রিপোর্ট: জার্মানিতে যৌনাঙ্গচ্ছেদে শিকার-৬৫হাজার নারী