ঢাকা, নভেম্বর ১৫, ২০১৮, ১ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » বিশ্বের বসবাসের জন্য অযোগ্য শহর ঢাকা কেন?
বৃহস্পতিবার ● ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

বিশ্বের বসবাসের জন্য অযোগ্য শহর ঢাকা কেন?

---এম ডি জালাল : ইকোনমিক ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) গ্লোবাল লিভেবল ইনডেক্স বা বিশ্বের বাসযোগ্য শহরগুলোর তালিকায় এ বছর বসবাসের জন্য সবচেয়ে অযোগ্য শহর সিরিয়ার দামেস্ক, তারপরই দ্বিতীয় স্থানে আছে আমাদের রাজধানী ঢাকা। প্রতি বছরের মতো এবারও বাসযোগ্য শহরের তালিকার তলানিতে রয়েছে ঢাকা।যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের পরই এর অবস্থান। কেবল এ বছরই নয়, ২০১২ সাল থেকে নিয়মিতই ঢাকা বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকার শেষ দশের মধ্যে স্থান পেয়ে আসছে।

২০১১ সাল থেকে সিরিয়ায় দেশি-বিদেশি বহুমুখী যুদ্ধ চলছে। বিমান হামলা, বোমা বিস্ফোরণ, এমনকি রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহারও হচ্ছে সেখানে। ফলে দামেস্কের বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকায় এক নম্বরে থাকা অস্বাভাবিক নয়; কিন্তু উন্নয়নশীল দেশের রাজধানী ঢাকা বছরের পর বছর বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকার তলানিতে থাকে কীভাবে, তা আমাদের বোধগম্য নয়। যদি সিরিয়ায় যুদ্ধ না থাকত তবে ঢাকা যে বসবাস অযোগ্য নগরীর তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করত, তা বলাই বাহুল্য।

পাঁচটি বিভাগের প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে বাসযোগ্য নগরীর ক্রম নির্ধারণ করে ইআইইউ। এগুলো হল- স্থিতিশীলতা, স্বাস্থ্যসেবা, সংস্কৃতি ও পরিবেশ, শিক্ষা এবং অবকাঠামো। ১৪০টি শহরের মধ্যে এসব বিভাগে সর্বোচ্চ ৯৯ দশমিক ১ পয়েন্ট পেয়ে সবচেয়ে বাসযোগ্য শহরের তালিকায় এক নম্বরে আছে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা। অন্যদিকে ৩০ দশমিক ৭ পয়েন্ট নিয়ে ১৪০তম দামেস্ক এবং ৩৮ পয়েন্ট নিয়ে ১৩৯তম ঢাকা। বিস্ময়কর তথ্যই বটে, যুদ্ধবিধ্বস্ত দামেস্ক আর আমাদের ঢাকা স্বাস্থ্যসেবা খাতে সমান অবস্থানে রয়েছে। বিপুলসংখ্যক মানুষ ভারতসহ বিভিন্ন দেশে চিকিৎসার জন্য যাওয়ার পরও এ খাতটিতে মনোযোগ নেই! বাকি চারটি খাতেও দামেস্কের সঙ্গে ঢাকার তফাত সামান্য।

অবকাঠামো (যার অন্যতম রোড-পরিবহনও), শিক্ষা, চিকিৎসা, সংস্কৃতি ও স্থিতিশীলতার মতো বিষয়ে নিজেদের অবস্থান উন্নত করা একটি চলমান প্রক্রিয়া। এগুলোয় আমাদের বিভিন্ন প্রকল্প চলছে, আরও নেয়া হচ্ছে। দায়িত্বশীল মহল যদি ইতিবাচক হয় এবং জনসচেতনতা তৈরির উদ্যোগ নেয় তবে আমাদের রাজধানী শহরটিকে আরও বেশি বাসযোগ্য করে তোলা কঠিন কিছু নয়। বিদেশি জরিপে খারাপ ফল এসেছে বলে নয়, নিজেদের ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের স্বার্থে ঢাকাকে মনোরম নগরী হিসেবে গড়ার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা নেয়া হোক অবিলম্বে।জীবনযাত্রার মান বাড়ানোর লক্ষ্যে নিরলস কাজ করে যাচ্ছি- এমন বক্তব্য প্রায়ই শোনা যায় শীর্ষকর্তাদের মুখে, তারপরও কেন ঢাকা বাসযোগ্য নগরীতে পরিণত হচ্ছে না, তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া দরকার।


বিশ্বের বসবাসের জন্য অযোগ্য শহর ঢাকা কেন?

ইরানের পাশে ইউরোপ, কোনঠাসা আমেরিকা


এ বিভাগের আরো খবর...

নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়? বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়?
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল? বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয় বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয়
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি? শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক? দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক?
অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন? অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন?
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার

সর্বাধিক পঠিত

ইউনাইটেড পাওয়ার ও  ইউনাইটেড এনার্জি লি: ৯৯ শতাংশ শেয়ার অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত ইউনাইটেড পাওয়ার ও ইউনাইটেড এনার্জি লি: ৯৯ শতাংশ শেয়ার অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত
#মিটু অভিযোগ পেয়েই আমাজন শো থেকে বাদ দিল গুরসিমরান খাম্বাকে #মিটু অভিযোগ পেয়েই আমাজন শো থেকে বাদ দিল গুরসিমরান খাম্বাকে
বিএনপি নির্বাচন বানচাল করতে অস্থিরতা সৃষ্টি করছে- কাদের বিএনপি নির্বাচন বানচাল করতে অস্থিরতা সৃষ্টি করছে- কাদের
একনজরে জেনে টিভি পর্দার খেলার সময় একনজরে জেনে টিভি পর্দার খেলার সময়
রিশাদ,রবিউল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে সুযোগ পেয়েছেন রিশাদ,রবিউল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে সুযোগ পেয়েছেন
ভোটের ২ থেকে ১০ দিন আগে সেনা মোতায়েন- ইসি সচিব ভোটের ২ থেকে ১০ দিন আগে সেনা মোতায়েন- ইসি সচিব
পুলিশের গাড়িতে আগুন: ২ যুবক ‘শনাক্ত’ পুলিশের গাড়িতে আগুন: ২ যুবক ‘শনাক্ত’
এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়া দলটি মুখ থুবড়ে পড়ল বিশ্বকাপে এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়া দলটি মুখ থুবড়ে পড়ল বিশ্বকাপে
৪৪৩ রানের লক্ষ্যে পঞ্চম ও শেষ দিন ব্যাট করছে জিম্বাবুয়ে ৪৪৩ রানের লক্ষ্যে পঞ্চম ও শেষ দিন ব্যাট করছে জিম্বাবুয়ে
প্রবাসীর স্ত্রীর গোসলের ভিডিও ছড়িয়ে দিল অন্য প্রবাসী প্রবাসীর স্ত্রীর গোসলের ভিডিও ছড়িয়ে দিল অন্য প্রবাসী
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে