ঢাকা, নভেম্বর ১৩, ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » এক্সক্লুসিভ » রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশের নতুন কৌশল
রবিবার ● ২৬ আগস্ট ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশের নতুন কৌশল

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক:মিয়ানারকে চাপ দিতে নতুন কৌশল নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।।আট মাস গড়িয়ে গেলেও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের কোনো অগ্রগতি দেখা না দেওয়ায় এ কোশল নিতে যাচ্ছে।এই কৌশলের একটি হতে পারে ‘আইআইএম; যা সিরিয়া সঙ্কটের প্রেক্ষাপটে জাতিসংঘে এই পদ্ধতিটি গৃহীত হয়েছিল। এর আওতায় যে কোনো ফৌজদারি অপরাধের ভবিষ্যত বিচারে তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করা হয়।

২০১৬ সালের ২১ ডিসেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে গৃহীত প্রস্তাব অনুসারে প্রতিষ্ঠিত হয় ‘ইন্টারন্যাশনাল, ইমপার্শিয়াল অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট মেকানিজম (আইআইআইএম)’।

সিরিয়ায় ২০১১ সালের পর সংঘটিত ভয়ানক অপরাধের তদন্ত এবং জড়িতদের বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর লক্ষ্যে সহায়তার জন্যই আইআইআইএম প্রতিষ্ঠা।

সিরিয়া প্রশ্নে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে দ্বিধাবিভক্তির মধ্যেই আইআইআইএম প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। মিয়ানমার প্রশ্নেও নিরাপত্তা পরিষদ দ্বিধাবিভক্ত।

মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সেনা অভিযানে দমন-পীড়নের মুখে ২০১৭ সালের ২৫ অগাস্ট বাংলাদেশ সীমান্তে নামে রোহিঙ্গাদের ঢল। কয়েক মাসেই শরণার্থীর সংখ্যা ৭ লাখ ছাড়িয়ে যায়।

রাখাইনে অভিযানকে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ হিসেবে মিয়ানমার তুলে ধরতে চাইলেও জাতিসংঘ একে জাতিগত নিধনযজ্ঞ হিসেবেই দেখছে।

এর আগেও বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে ছিল চার লাখ রোহিঙ্গা। নতুন আসাদের নিয়ে এই সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়ে যায়।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ব্যাপক সমালোচনার মুখে রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে গত বছরের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তি করে মিয়ানমার। তবে প্রত্যাবাসন শুরুর ক্ষেত্রে এখনও অগ্রগতি নেই।

মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের তাদের নাগরিক হিসেবে মানতে নারাজ, আর এই শরণার্থীদের ফেরত দেওয়ার ক্ষেত্রে এই বিষয়টিতে জোর দিতে চাইছে বাংলাদেশ।

কেননা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে নিরাপদে বসবাসের সুযোগ নিশ্চিত হলে ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা ঘটবে না।

আর তাই বাংলাদেশ চাইছে, রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর আগে তাদের নাগরিকত্বের বিষয়টির সমাধান করতে এবং তাদের উপর নির্যাতনে যারা জড়িত তাদের যেন বিচার হয়।

সাম্প্রতিক পদক্ষেপগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ ইতোমধ্যে সায় দিয়েছে যে, লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে বিতাড়িত করে যেভাবে সীমান্ত পেরিয়ে আশ্রয় নিতে বাধ্য করা হয়েছে, তার বিচার করার এখতিয়ার আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের আছে। যদিও মিয়ানমার আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের সদস্য নয়।

আইআইআইএম অবশ্য কোনো আদালত নয়, তারা কেবল সিরিয়ায় সংঘটিত অপরাধের তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ করে ভবিষ্যতের বিচার প্রক্রিয়াকে সহায়তা করবে।

আগামী সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের পরবর্তী অধিবেশনে মিয়ানমারকে নিয়েও এই ধরনের কিছু একটি গঠনের তৎপরতা থাকবে বলে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা বলেন, “সাধরণ পরিষদে বিশ্বের সব দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা থাকবেন। ওই সময় এরকম একটি মেকানিজম প্রতিষ্ঠায় আমরা তৎপরতা চালাব, যাতে মিয়ানমার চাপ অনুভব করে।”

এই ‘মেকানিজমের’ উদ্দেশ্য হবে, রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতনের মাধ্যমে যে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন ও মানবাধিকার খর্ব করা হয়েছে, তার তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ করা এবং তা নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করে রাখা, যা বিচারের ক্ষেত্রে সহায়ক হয়।

মিয়ানমার নানা অজুহাত দেখালেও পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়ে আশাবাদী।


মার্কিন সিনেটর জন ম্যাককেইন আর নেই

ট্যানারি মালিকদের কারণে চামড়ার বাজারে ধস


এ বিভাগের আরো খবর...

৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি ৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি
বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট
খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা
সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ! সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ!
পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা
নির্বাচনের তফসিল নিয়ে এখনও সংকট কাটেনি! নির্বাচনের তফসিল নিয়ে এখনও সংকট কাটেনি!
সু চির খেতাব প্রত্যাহার করল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সু চির খেতাব প্রত্যাহার করল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল
খালেদার প্রার্থীতা নিয়ে বিতর্ক খালেদার প্রার্থীতা নিয়ে বিতর্ক
রোহিঙ্গাদের প্রথম দলকে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে- মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের প্রথম দলকে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে- মিয়ানমার
সিঙ্গাপুরে আরসেপ বৈঠক শুরু সিঙ্গাপুরে আরসেপ বৈঠক শুরু

সর্বাধিক পঠিত

কাট্টলী টেক্সটাইলের লেনদেন শুরু কাট্টলী টেক্সটাইলের লেনদেন শুরু
৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি ৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি
পুলিশ প্লাজায় ফ্লোর কিনবে এসিআই পুলিশ প্লাজায় ফ্লোর কিনবে এসিআই
বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট
খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা
সৎমায়ের কাছ থেকে পেশাদারত্ব শিখতে চাই-সারা সৎমায়ের কাছ থেকে পেশাদারত্ব শিখতে চাই-সারা
সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ! সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ!
পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা
বিনিয়োগকারী সব স্টেকহোল্ডারের আলাদা আলাদা দায়িত্ব —বিএসইসি চেয়ারম্যান বিনিয়োগকারী সব স্টেকহোল্ডারের আলাদা আলাদা দায়িত্ব —বিএসইসি চেয়ারম্যান
অ্যাকশন দৃশ্যে কঙ্গনা টম ক্রুজের মতো অ্যাকশন দৃশ্যে কঙ্গনা টম ক্রুজের মতো
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!