ঢাকা, জানুয়ারী ২২, ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » আর্ন্তজাতিক » রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!
রবিবার ● ২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!

---বিবিসি২৪নিউজ, আন্তর্জাতিক ডেস্ক; জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস কড়া অবস্থানে থেকে বলা হয়েছে,রোহিঙ্গাদের হত্যার সঙ্গে জড়িতদের বিচার হতেই হবে।রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকেও সত্যের পক্ষ নিতে হবে।জাতিসংঘ মানবাধিকার সংস্থার একটি সত্যানুসন্ধানী দল রোহিঙ্গা নিধনযজ্ঞকে গণহত্যা অভিহিত করে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর শীর্ষ ছয় জেনারেলকে বিচারের মুখোমুখি করার সুপারিশ করার পর সেই প্রতিবেদনের আলোকে মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের এক উন্মুক্ত আলোচনায় রোহিঙ্গা নিধনযজ্ঞের জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন অ্যান্তোনিও গুতেরেস।

তিনি জোর দিয়ে বলেছেন, উন্মুক্ত আলোচনায় নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্য ছাড়াও বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের প্রতিনিধিরাও বক্তব্য দিয়েছেন। জাতিসংঘ মহাসচিব তার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের অভিজ্ঞতার মর্মস্পর্শী বর্ণনা দিয়ে আরও বলেছেন, রোহিঙ্গা সংকটের এক বছর পেরিয়ে গেছে এবং এ সমস্যা অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত চলতে পারে না। তার মতে, যেভাবে শক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে, তাকে কোনো যুক্তিতেই ন্যায়সঙ্গত প্রমাণ করা যাবে না।

নিরাপত্তা পরিষদের উন্মুক্ত আলোচনায় জাতিসংঘ মহাসচিব বর্তমান বিশ্বের একজন যথার্থ অভিভাবকের ভূমিকায়ই অবতীর্ণ হয়েছেন। মিয়ানমারের যেসব শীর্ষস্থানীয় সেনাকর্মকর্তা রোহিঙ্গাদের ওপর হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে, কোনো যুক্তিতেই বা কোনো অজুহাতেই তাদের ক্ষমা করা যায় না।

মানবসভ্যতার এক কলঙ্কজনক অধ্যায় রচনা করেছেন তারা। এ ঘাতকরা শুধু রোহিঙ্গাদের হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি, লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে তাদের আবাসভূমি থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য করেছে। তারা বাড়িঘর জ্বালিয়েছে, রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করেছে। জাতিসংঘ মহাসচিব দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়ে

---কফি আনান কমিশনের সুপারিশমালার পূর্ণ বাস্তবায়নেরও তাগিদ দিয়েছেন। এ কমিশনের সুপারিশগুলোর অন্যতম হল রোহিঙ্গাদের বাধাহীনভাবে স্বদেশে প্রত্যাবর্তন।

বস্তুত রোহিঙ্গা নিধনের জন্য দায়ীদের শাস্তি এবং রোহিঙ্গাদের স্বদেশে প্রত্যাবাসন এখন বিশ্বমানবতার দাবি। এ দাবির পক্ষে বিশ্বজনমত দিন দিন শক্তিশালী হচ্ছে। বিশেষত রোহিঙ্গা নিধনের ওপর জাতিসংঘের প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর বিশ্বজনমত দ্রুতই রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের পক্ষে জোরালো হচ্ছে।

তবে আমরা গভীর দুঃখবোধের সঙ্গে লক্ষ করছি, চীন ও রাশিয়া এখন পর্যন্ত রোহিঙ্গা সংকট প্রশ্নে কাক্সিক্ষত ভূমিকা পালন করছে না। উদীয়মান পরাশক্তি হিসেবে আমরা চীনের কাছ থেকে বিষয়টিতে অগ্রণী ভূমিকা আশা করেছিলাম। কিন্তু আমাদের সেই আকাক্সক্ষার প্রতি দেশটি যথাযথ গুরুত্ব দিচ্ছে না। মিয়ানমারের ছয় জেনারেল যে অপরাধ করেছে, তার বিচারের প্রশ্নে চীন ও রাশিয়ার অনাগ্রহ কেন, তা বোধগম্য নয়।

মিয়ানমার সরকারেরও উচিত দোষীদের উন্মুক্ত শাস্তির বিধান করে কলঙ্কমুক্ত হওয়া। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সসহ অনেক রাষ্ট্রই মিয়ানমারের ছয় জেনারেলের বিচারের দাবিকে সমর্থন করেছে। চীন ও রাশিয়া সমর্থন দিলে এ দাবি পূরণ হওয়া কঠিন কিছু হবে না। আমরা আশা করব, চীন ও রাশিয়াকে প্রকৃত সত্য অনুধাবনে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জোরালো কূটনৈতিক তৎপরতা চালানো হবে। রোহিঙ্গা ইস্যুটিকে বিশ্বমানবতার ইস্যু বিবেচনা করে সমগ্র বিশ্বই দোষীদের শাস্তি ও রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে একসঙ্গে কাজ করবে।


চ্যাম্পিয়ন হওয়াই টাইগারদের মূল লক্ষ্য

প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে ১৯ লাখ আবেদন


এ বিভাগের আরো খবর...

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায় প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায়
১১ হাসপাতালে দুদকের অভিযান, ৪০ শতাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত ১১ হাসপাতালে দুদকের অভিযান, ৪০ শতাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত
তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২ তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২
বিশ্বের অর্ধেক মানুষের সম্পদ ২৬ ধনীর হাতে বিশ্বের অর্ধেক মানুষের সম্পদ ২৬ ধনীর হাতে
নাইকো মামলার পরবর্তী শুনানি ৪ ফেব্রুয়ারি নাইকো মামলার পরবর্তী শুনানি ৪ ফেব্রুয়ারি
সংসদে যেতে পারছেন না তৃতীয় লিঙ্গের কেউ সংসদে যেতে পারছেন না তৃতীয় লিঙ্গের কেউ
কৃত্রিম উল্কা বৃষ্টি ছিটাবে- জাপান কৃত্রিম উল্কা বৃষ্টি ছিটাবে- জাপান
নতুন ২৫০ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে- সৌদি আরব নতুন ২৫০ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে- সৌদি আরব

সর্বাধিক পঠিত

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস
বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা
রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা
বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ
প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায় প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায়
বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে