ঢাকা, জানুয়ারী ২১, ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » আর্ন্তজাতিক » হত্যাকাণ্ড বা প্রতিবাদকে গুরুত্ব দেয়ার প্রয়োজন মনে করছে না- বিজিপি
বুধবার ● ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

হত্যাকাণ্ড বা প্রতিবাদকে গুরুত্ব দেয়ার প্রয়োজন মনে করছে না- বিজিপি

---বিবিসি২৪নিউজ,দিল্লি প্রতিনিধি:গণপিটুনিতে মোহাম্মদ আখলাকের মতো কেউ খুনই হোন আর অসহিষ্ণুতার প্রতিবাদে কেউ পুরস্কারই ফেরান, ক্ষমতায় আসবে বিজেপিই, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন।

বিরোধীদের মতে, হত্যাকাণ্ড বা প্রতিবাদকে গুরুত্ব দেয়ার প্রয়োজন আছে বলেই মনে করছে না বিজেপি।

ভোটমুখী রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরে বুধবার একটি সমাবেশ করেন ভারতীয় জনতা পার্টির সভাপতি। বিজেপির ফের ক্ষমতায় ফেরার সম্ভাবনা নিয়ে আরও সুর চড়ান তিনি। আর তা করতে গিয়ে টেনে আনেন উত্তরপ্রদেশের দাদরিতে গণপিটুনিতে হত্যার প্রসঙ্গ।

দাদরিতে স্বঘোষিত গোরক্ষকদের হাতে মোহাম্মদ আখলাকের হত্যার অভিযোগ নিয়ে বেকায়দায় পড়েছিল নরেন্দ্র মোদি সরকার।

দেশে অসহিষ্ণুতা বাড়ার প্রতিবাদে পুরস্কার ফিরিয়ে দেন বিশিষ্ট নাগরিকদের একাংশ। কিন্তু তার পরেও গত বছর উত্তরপ্রদেশে জয় পেয়েছে বিজেপি।

রাজস্থানের অলওয়ারেও স্বঘোষিত গোরক্ষকদের হামলায় মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। রাজসমুন্দে অভিযোগ উঠেছে লাভ জেহাদে জড়িত সন্দেহে পুড়িয়ে মারার। রাজস্থানের বিজেপি সরকার এ ধরনের ঘটনা রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ বিরোধীদের।

আজ জয়পুরের সভায় অমিত বলেন, যখনই ভোট আসে, তখনই এক দল লোক আখলাক হত্যার প্রসঙ্গ তোলেন। বিশিষ্টজনদের একাংশ পুরস্কার ফিরিয়ে দেন। কিন্তু এসব ঘটনায় বিজেপির জয় আটকানো যায়নি। আমরা আগেও জিতেছি। এবারও জিতব।

তার কথায়, মানুষকে প্রশ্ন করুন তারা রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রী, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আর মুলায়ম সিংহ যাদবকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান কিনা?

বিরোধী ও নাগরিক সমাজের একাংশের মতে, অমিতের বক্তব্য থেকে বোঝাই যাচ্ছে বিজেপি এখন ক্ষমতার দম্ভে মত্ত হয়ে রয়েছে।

বিজেপির ৫০ বছর দেশ শাসনের সম্ভাবনা প্রসঙ্গে কংগ্রেসের মুখপাত্র বলেছিলেন, মুঙ্গেরিলাল কি হাসিন স্বপ্নে সিরিয়ালের মুখ্য চরিত্রের মতোই দিবাস্বপ্ন দেখছেন অমিত।

এদিন বিজেপি সভাপতির পাল্টা খোঁচা, কংগ্রেসের নেতারা সব নার্সারি রাইমের হাম্পটি-ডাম্পটির মতো চরিত্র। অহঙ্কার ছাড়া তাদের মাথায় কিছু নেই।


আগামী একনেক সভায় ইভিএম প্রকল্পটি উঠছে

চট্টগ্রামে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় নিহত ২


এ বিভাগের আরো খবর...

এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী
পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই
নবম ওয়েজবোর্ড গঠনে ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে কমিটি নবম ওয়েজবোর্ড গঠনে ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে কমিটি
নোয়াখালীতে বাস-সিএনজি সংঘর্ষ নিহত ৪ নোয়াখালীতে বাস-সিএনজি সংঘর্ষ নিহত ৪
প্রতিবন্ধী কোটা আগের মতই আছে- শফিউল আলম প্রতিবন্ধী কোটা আগের মতই আছে- শফিউল আলম
তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২ তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২
প্রশাসনকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে- ফখরুল প্রশাসনকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে- ফখরুল
ইন্টারনেটের দাম কমানোর ইঙ্গিত দিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী ইন্টারনেটের দাম কমানোর ইঙ্গিত দিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী
আপনি স্বৈরাতান্ত্রিক প্রধানমন্ত্রী:দুদু আপনি স্বৈরাতান্ত্রিক প্রধানমন্ত্রী:দুদু
সৈয়দ আশরাফের আসনে ভোট নিয়ে বসছে ইসি সৈয়দ আশরাফের আসনে ভোট নিয়ে বসছে ইসি

সর্বাধিক পঠিত

এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী
শোয়েব মালিক বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখছেন শোয়েব মালিক বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখছেন
পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই
নবম ওয়েজবোর্ড গঠনে ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে কমিটি নবম ওয়েজবোর্ড গঠনে ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে কমিটি
নোয়াখালীতে বাস-সিএনজি সংঘর্ষ নিহত ৪ নোয়াখালীতে বাস-সিএনজি সংঘর্ষ নিহত ৪
প্রতিবন্ধী কোটা আগের মতই আছে- শফিউল আলম প্রতিবন্ধী কোটা আগের মতই আছে- শফিউল আলম
রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে- মন্ত্রীসভা রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে- মন্ত্রীসভা
তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২ তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২
প্রশাসনকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে- ফখরুল প্রশাসনকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে- ফখরুল
হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে স্বাস্থ্য পরিদর্শক নিহত হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে স্বাস্থ্য পরিদর্শক নিহত
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে