ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
বৃহস্পতিবার ● ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার

---এম ডি জালাল: সরকার ২০১৭ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি এক আদেশে দেশের ২২০টি কোম্পানিতে গ্যাস সংযোগের অনুমোদন দেয়। এর আগে আরও সাড়ে ৫শ’র মতো শিল্পপ্রতিষ্ঠানে গ্যাস সংযোগের অনুমোদন দেয়া হলেও বিতরণ লাইনের অভাবে ওই দুই তালিকার অধিকাংশ শিল্পপ্রতিষ্ঠানে গ্যাস সংযোগ দেয়া সম্ভব হয়নি।

গ্যাস সংযোগের অনুমোদন পাওয়ার দীর্ঘদিন পরও বিতরণ বা সার্ভিস লাইন নির্মাণ না করার বিষয়টি উদ্বেগজনক। এর ফলে কেবল শিল্পকারখানার মালিক ও উদ্যোক্তারাই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন না, একইসঙ্গে সরকারও বিপুল অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ছে।

এরই মধ্যে এলএনজি আমদানি সামনে রেখে আরও ২ হাজারের বেশি শিল্পকারখানাকে গ্যাস সংযোগের অনুমোদন দেয়া হয়েছে, যাদের অধিকাংশেরই বিতরণ লাইন নেই। দীর্ঘ ২০ মাস অতিবাহিত হলেও সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান কেন বিতরণ লাইন নির্মাণ করেনি কিংবা শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো নিজস্ব অর্থায়নে বিতরণ লাইন নির্মাণের অনুমতি চাইলেও অনুমোদন কেন দেয়া হয়নি- এ প্রশ্নের জবাব কী?

দুঃখজনক হল, বিতরণ লাইন না থাকায় একদিকে অনুমোদন পেয়েও সংশ্লিষ্ট গ্রাহকরা গ্যাস পাচ্ছেন না, অন্যদিকে সরকার উচ্চমূল্যের এলএনজি (তরল প্রাকৃতিক গ্যাস) আমদানি করে তা বিক্রি করতে পারছে না এবং এর ফলে সরকারের বিপুল পরিমাণ অর্থ গচ্চা যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, এলএনজিবাহী প্রথম জাহাজ দেশে পৌঁছার পর গত রোববার ১ লাখ ৩৮ হাজার ঘনমিটার এলএনজি নিয়ে দ্বিতীয় জাহাজটি মহেশখালীর মাতারবাড়ি টার্মিনালে ভিড়েছে। সব ধরনের প্রস্তুতি থাকা সত্ত্বেও মাঠপর্যায়ে পর্যাপ্ত পাইপলাইন, সঞ্চালনলাইন ও অবকাঠামো না থাকায় এলএনজি সরবরাহ করা যাচ্ছে না।

এর ফলে শত শত কোটি টাকার গ্যাস নষ্ট হচ্ছে। বলার অপেক্ষা রাখে না, অনুমোদনপ্রাপ্ত শিল্পপ্রতিষ্ঠানের আঙিনা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ লাইন নির্মাণ অথবা শিল্পকারখানাগুলোর নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণের অনুমতি দিলে এলএনজি সরবরাহ নিয়ে এমন বিপাকে পড়তে হতো না। আমরা মনে করি, এজন্য সংশ্লিষ্টদের জবাবদিহিতার আওতায় আনা উচিত।

দেখা যাচ্ছে, সরকার ব্যবসাবান্ধব হলেও দেশের গ্যাস ও জ্বালানি খাতের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান পেট্রোবাংলা যেন তার উল্টো পথে হাঁটছে। এর পেছনে সুগভীর কোনো ষড়যন্ত্র রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা দরকার। অর্থনৈতিক উন্নয়ন গতিশীল করতে হলে অবশ্যই বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে।

বেসরকারি খাতে আশানুরূপ বিনিয়োগ না হওয়ার অন্যতম কারণ চাহিদা অনুযায়ী শিল্পকারখানায় গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ না পাওয়া। অনেক উদ্যোক্তা শিল্প স্থাপন করে বিদ্যুৎ ও গ্যাসের অভাবে সেগুলো চালু করতে পারছেন না, যা মেনে নেয়া কষ্টকর। দেশের উন্নয়নে মন্থরগতি বা স্থবিরতার কারণ অনুসন্ধান করেছেন অনেকে।

সুপরিকল্পিত উন্নয়ন প্রক্রিয়ার আওতায় বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তথা অবকাঠামোগত উন্নয়ন ঘটিয়ে দেশের বিপুল জনগোষ্ঠীর দক্ষতা কাজে লাগানো সম্ভব হলে আমাদের উন্নয়নের স্বপ্ন বাস্তবে রূপলাভ করবে, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

বস্তুত নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহে এবং রেল, সড়ক ও নৌপথের যথাযথ উন্নয়নে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে বেসরকারি খাতের উদ্যোক্তাদের মুনাফা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়তে হবে না।


শার্লট এডওয়ার্ডসকে পেছনে ফেলে ইতিহাস গড়লেন মিতালি

প্রায় ২ মাস পর বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপাদন শুরু


এ বিভাগের আরো খবর...

প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে! প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে!
খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই
জনতা ব্যাংকে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে জনতা ব্যাংকে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে
খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল ও ক্ষতিকর উপাদান রোধে নিতে হবে কঠোর পদক্ষেপ! খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল ও ক্ষতিকর উপাদান রোধে নিতে হবে কঠোর পদক্ষেপ!
৫ জনই ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা ৫ জনই ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা
পুলিশ সপ্তাহের পর প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিফলন কতটুকু ঘটবে? পুলিশ সপ্তাহের পর প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিফলন কতটুকু ঘটবে?
স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি: আমলে নিতে হবে? স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি: আমলে নিতে হবে?
নতুন মুদ্রানীতিতে কি হতে পারে? নতুন মুদ্রানীতিতে কি হতে পারে?
কর্মস্থলে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতি শাস্তিযোগ্য আপরাধ! কর্মস্থলে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতি শাস্তিযোগ্য আপরাধ!
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স

সর্বাধিক পঠিত

গেইলের ছক্কার বিশ্বরেকর্ড আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে গেইলের ছক্কার বিশ্বরেকর্ড আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে
আজহার, সৌরভ, কেউই ক্রিকেট চায় না পাকিস্তানের সঙ্গে আজহার, সৌরভ, কেউই ক্রিকেট চায় না পাকিস্তানের সঙ্গে
শাপলা-শালুক জামদানী শাপলা-শালুক জামদানী
সেন্টমার্টিনে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ, আটক ১১ সেন্টমার্টিনে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ, আটক ১১
মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার এভ্রিলকে সঙ্গে নিয়ে আসিফ মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার এভ্রিলকে সঙ্গে নিয়ে আসিফ
অভিনেতা প্রতীক বব্বর স্ত্রীর সঙ্গে অর্ধনগ্ন ছবি পোষ্ট করে বিপাকে অভিনেতা প্রতীক বব্বর স্ত্রীর সঙ্গে অর্ধনগ্ন ছবি পোষ্ট করে বিপাকে
আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি) আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি)
কিম কার্দাশিয়ান উন্মুক্ত দেহে ঝড় তুললেন! কিম কার্দাশিয়ান উন্মুক্ত দেহে ঝড় তুললেন!
বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা
এবার ইয়ামিকে দেখা যাবে বিকিনিতে এবার ইয়ামিকে দেখা যাবে বিকিনিতে
প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে!
খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই
৫ জনই ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?