ঢাকা, নভেম্বর ১৩, ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » পরিবেশ ও জলবায়ু » পরিবেশ দূষণে বাংলাদেশে ১ বছরে মারা গেছে ৮০ হাজার মানুষ!
রবিবার ● ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

পরিবেশ দূষণে বাংলাদেশে ১ বছরে মারা গেছে ৮০ হাজার মানুষ!

---বিবিসি২৪নিউজ,শাহাদাত হোসেন:বাংলাদেশে প্রতি বছর যতো মানুষের মৃত্যু হয় তার ২৮ শতাংশই মারা যায় পরিবেশ দূষণজনিত অসুখবিসুখের কারণে, বিশ্ব ব্যাংক জানিয়েছে। কিন্তু সারা বিশ্বে এধরনের মৃত্যুর গড় মাত্র ১৬ শতাংশ।আজ বিশ্বব্যাংকের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দূষণ ও পরিবেশগত ঝুঁকির কারণে যেসব দেশ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত তার একটি বাংলাদেশ।

গবেষণায় আরো বলা হয়েছে, ৭ থেকে ৮ প্রবৃদ্ধির একটি উচ্চতর মধ্যম আয়ের দেশ হয়ে উঠতে হলে বাংলাদেশকে এখনই, বিশেষ করে শহর এলাকায় দূষণ রোধ করতে ও পরিবেশ রক্ষায় ব্যবস্থা নিতে হবে।

বিশ্বব্যাংক ২০১৫ সালের এক পরিসংখ্যান তুলে ধরে বলেছে, শহরাঞ্চলে এই দূষণের মাত্রা উদ্বেগজনক পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে তারা বলছে, দূষণের কারণে ২০১৫ সালে বাংলাদেশের বিভিন্ন শহরে ৮০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে তুলনা করতে গিয়ে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, পরিবেশ দুষণজনিত কারণে বাংলাদেশে যেখানে ২৮ শতাংশ মৃত্যু হয় সেখানে মালদ্বীপে এই হার ১১ দশমিক ৫ শতাংশ।

ভারতে ২৬ দশমিক ৫। পাকিস্তানে ২২ দশমিক ২। আফগানিস্তানে ২০ দশমিক ৬। শ্রীলঙ্কায় ১৩ দশমিক ৭।

এর আগে ইকোনমিক ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের একটি গবেষণায় ঢাকাকে বসবাসের জন্যে দ্বিতীয় অযোগ্য শহর হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল। এক নম্বরে ছিল যুদ্ধ-বিধ্বস্ত সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক।

বিশ্বব্যাংক বলছে, দূষণের কারণে বাংলাদেশের বছরে ৬৫০ কোটি ডলার ক্ষতি হয় - যা মোট জাতীয় উৎপাদন বা জিডিপির প্রায় সাড়ে তিন শতাংশ।

বাংলাদেশে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর রাজশ্রী পারালকার বলেছেন, “নগরাঞ্চলে দূষণ ও পরিবেশের অবনতি হওয়ার কারণে বাংলাদেশকে অনেক মূল্য দিতে হচ্ছে। এর ফলে দেশটির ভালো প্রবৃদ্ধিও এখন হুমকির মুখে।”

এজন্যে বিশ্বব্যাংক জলাভূমি দখল, ক্ষতিকর বর্জ্য ঠিকমতো না ফেলা ইত্যাদিকে দায়ী করা হয়েছে। আর এর ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে নারী, শিশু এবং দরিদ্র মানুষের।

বিশ্বব্যাংকের হিসেবে দেখা গেছে, যে গার্মেন্ট খাত থেকে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করেই সেই খাত থেকেই প্রতি বছর ২৮ লাখ টনেরও বেশি বর্জ্য তৈরি হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে প্রায় ১০ লাখ মানুষ, যাদের বেশিরভাগই দরিদ্র, সীসা দূষণের ঝুঁকিতে রয়েছে। এর ফলে শিশুদের বুদ্ধির বিকাশসহ স্নায়ু-জনিত ক্ষতি হতে পারে।

গবেষণাটি বলছে, এর ফলে নারীর গর্ভপাত এবং মৃত শিশুর জন্মদানের ঝুঁকিও বৃদ্ধি পেতে পারে।

বলা হচ্ছে, বৃহত্তর ঢাকার যেসব এলাকা ভারী ধাতবের কারণে দূষিত সেখানে সাধারণত দরিদ্র মানুষেরাই বসবাস করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঢাকা শহরে যতো জলাভূমি ছিল গত ৪০ বছরে তার ৭৫ শতাংশ হারিয়ে গেছে। এসব জলাভূমি ভরাট করে সেখানে বাড়িঘর তোলার কারণে শহরের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়ে যাওয়ার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

অপরিকল্পিত নগরায়নের কারণে ছোট ছোট শহরগুলোও পরিবেশ দূষণের শিকার হচ্ছে।এরকম একটি উদাহরণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে পাবনার কথা।


দুর্নীতির অভিযোগ হোসনি মুবারকের ২ ছেলে আটক

আত্মহত্যা করেছিলেন তাসফিয়া- পুলিশ


এ বিভাগের আরো খবর...

৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি ৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি
বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট
খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা
সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ! সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ!
পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা
নির্বাচনের তফসিল নিয়ে এখনও সংকট কাটেনি! নির্বাচনের তফসিল নিয়ে এখনও সংকট কাটেনি!
সু চির খেতাব প্রত্যাহার করল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সু চির খেতাব প্রত্যাহার করল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল
খালেদার প্রার্থীতা নিয়ে বিতর্ক খালেদার প্রার্থীতা নিয়ে বিতর্ক
রোহিঙ্গাদের প্রথম দলকে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে- মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের প্রথম দলকে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে- মিয়ানমার
সিঙ্গাপুরে আরসেপ বৈঠক শুরু সিঙ্গাপুরে আরসেপ বৈঠক শুরু

সর্বাধিক পঠিত

৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি ৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি
পুলিশ প্লাজায় ফ্লোর কিনবে এসিআই পুলিশ প্লাজায় ফ্লোর কিনবে এসিআই
বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট বিএনপির কাছে যে ১০০ আসন চায় ঐক্যফ্রন্ট
খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা খাসোগির হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করবে- আমেরিকা
সৎমায়ের কাছ থেকে পেশাদারত্ব শিখতে চাই-সারা সৎমায়ের কাছ থেকে পেশাদারত্ব শিখতে চাই-সারা
সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ! সৌদির বাদশাহ হচ্ছেন আহমেদ!
পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা পাকিস্তানের আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায়- কানাডা
বিনিয়োগকারী সব স্টেকহোল্ডারের আলাদা আলাদা দায়িত্ব —বিএসইসি চেয়ারম্যান বিনিয়োগকারী সব স্টেকহোল্ডারের আলাদা আলাদা দায়িত্ব —বিএসইসি চেয়ারম্যান
অ্যাকশন দৃশ্যে কঙ্গনা টম ক্রুজের মতো অ্যাকশন দৃশ্যে কঙ্গনা টম ক্রুজের মতো
হোন্ডার নতুন কারখানা উদ্বোধন মোনেম ইকোনমিক হোন্ডার নতুন কারখানা উদ্বোধন মোনেম ইকোনমিক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!