ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » News & Events » শীর্ষ ধনীরা নামকরা সংবাদপত্র কিনে নিচ্ছে কেন?
বুধবার ● ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

শীর্ষ ধনীরা নামকরা সংবাদপত্র কিনে নিচ্ছে কেন?

---বিবিসি২৪নিউজ,আন্তর্জাতিক ডেস্ক:যারা বিশ্বের শীর্ষ ধনী, যাদের সব কিছু আছে, তারা আর কি চায়? উত্তর: মনে হচ্ছে এরা সবাই যেন কোন না কোন নামকরা সংবাদপত্র বা সংবাদ সাময়িকীর মালিক হতে চায়।এক্ষেত্রে সর্বশেষ উদাহারণ হচ্ছেন মার্কিন ধনকুবের মার্ক বেনিওফ এবং তার স্ত্রী। দুজনে মিলে কিনে নিয়েছেন টাইম ম্যাগাজিন। মিস্টার বেনিওফ হচ্ছেন বিজনেস সফ্টওয়্যার কোম্পানি সেলসফোর্স ডট কমের মালিক। তিনি যুক্তরাষ্ট তথা বিশ্বের সবচেয়ে নামকরা এই সংবাদ সাময়িকী কিনে নিয়েছেন ১৯ কোটি ডলারে।

তার আগে আমাজনের মালিক জেফ বেজোস কিনে নিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকা।ঐ একই বছরে আরেক মার্কিন ধনকুবের জন হেনরি কিনেছেন বস্টন গ্লোব পত্রিকা।

এরকম উদাহারণ সাম্প্রতিক সময়ে আরও অনেক। অ্যাপলের প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের বিধবা স্ত্রী লরেন পাওয়েল আটলান্টিক ম্যাগাজিনের সংখ্যাগরিষ্ঠ শেয়ার কিনেছেন। বায়োটেক বিলিওনিয়ার প্যাট্রিক সুন শিয়ং কিনেছেন লস এঞ্জেলেস টাইমস সহ যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট কোস্টের আরও কয়েকটি নামকরা কাগজ।

বিশ্ব জুড়েই বড় বড় সংবাদপত্রগুলির এখন দুর্দিন চলছে। সংবাদপত্রের সার্কুলেশন কমছে। অনলাইনে বিজ্ঞাপনের জন্য তাদের তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হচ্ছে অন্যদের সঙ্গে। কাজেই এই দুর্দিনে বড় বড় ধনকুবেররা যখন বিশাল অংকের টাকা নিয়ে এগিয়ে আসছে, তখন তাতে সাড়া না দিয়ে উপায় থাকছে না তাদের।

মিডিয়া এনালিস্ট কোম্পানি ‘এনডার্স অ্যানালাইস’ এর ডগলাস ম্যাকাবে বলছেন, সংবাদপত্রগুলি এখন বিপুল চাপের মুখে আছে। কারণ তারা শুরুতে অনলাইন সংস্করণ ফ্রি করে দিয়ে ভুল করেছিল। আর এখন ডিজিটাল বিজ্ঞাপন বাবদ তারা যা আয় করছে তা আসলে প্রিন্ট সংস্করণে পাওয়া বিজ্ঞাপন থেকে অনেক কম।

ফলে বিনিয়োগকারীদের কাছে এখন সংবাদপত্র শিল্প আর আগের মতো আকর্ষণীয় নয়।তাহলে বিশ্বের নামকরা ধনীরা কেন এক্ষেত্রে বিনিয়োগে এগিয়ে আসছেন? কিসের আকর্ষণে?

মিস্টার ম্যাকাবে মনে করেন, অর্থ নয়, নামকরা সংবাদপত্রগুলোর প্রভাব-প্রতিপত্তির আকর্ষণেই তারা এটা করছেন।

“বিত্তশালীরা সবসময়েই সংবাদ মাধ্যমের প্রতি আগ্রহী ছিলেন। বিশেষ করে সেসব প্রভাবশালী পত্রিকা, যার মাধ্যমে তারা প্রতিপত্তি অর্জন করতে পারবেন।”

তবে বস্টনের নর্থওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতার অধ্যাপক ড্যান কেনেডি বলছেন, প্রতিপত্তি শুধু নয়, অন্য কারণও আছে সংবাদ মাধ্যম কেনার জন্য ধনকুবেরদের এই আগ্রহের পেছনে। মিস্টার কেনেডি সম্প্রতি এ নিয়ে একটি বই লিখেছেন, যার শিরোণাম, “হাউ জেফ বেজোস এন্ড জন হেনরি আর রিমেকিং নিউজপেপার্স ফর দ্য টুয়েন্টি ফার্স্ট সেঞ্চুরি।

আমি বলবো এটি তাদের অহমিকা এবং ভালো কিছু করার সত্যিকারের বিশ্বাস, এই দুয়ের সম্মিলন। এরা মনে করছে এসব সংবাদপত্রের আসলে যেটা ঘাটতি তা হলো আর্থিক বিচক্ষণতা। যদি তারা মালিক হতে পারে, তাহলে এসব সংবাদপত্র আবারও ভালো করবে।

ওয়াশিংটন পোস্টের বেলায় এই আত্মবিশ্বাস যে ফল দিচ্ছে তাতে সন্দেহ নেই। জেফ বেজোস তার আমাজনকে ব্যবহার করে ওয়াশিংটন পোস্টের গ্রাহক সংখ্যা বাড়িয়েছেন। এটি এখন নিউ ইয়র্ক টাইমসের সত্যিকারের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে।

জেফ বেজোসের এই সাফল্য হয়তো অন্যদের অনুপ্রাণিত করেছে, বলছেন মিস্টার কেনেডি।

প্যাট্রিক সুন শিয়ং যখন এই গ্রীস্মে বস্টন গ্লোব পত্রিকা কিনে নেন, তখন তিনি বলেছিলেন, এর পেছনে কাজ করেছে তার দক্ষিণ আফ্রিকায় বেড়ে উঠার সময়কালের অভিজ্ঞতা। বর্ণবাদের যুগে সেখানে সংবাদপত্রের কোন স্বাধীনতা ছিল না।

মিস্টার সুন শিয়ং ‘ফেক নিউজ’ বা ভুয়া খবরের বিরুদ্ধেও যুদ্ধের ঘোষণা দেন। তার ভাষায় এটি ‘এই যুগের ক্যান্সার’। তিনি বলেন, তার পত্রিকা হবে সম্পাদকীয় সততা এবং স্বাধীনতার দুর্গ।

জেফ বেজোস যখন ওয়াশিংটন পোস্ট কেনেন, তখন তিনিও এরকম মহতী উদ্দেশ্যের কথা বলেছিলেন।

এই ধনকুবেররা যে নামকরা সব সংবাদপত্র কিনে নিচ্ছেন তা কি এসব সংবাদপত্রের জন্য সুখবর?

মিস্টার কেনেডি বলছেন, এই প্রশ্নের উত্তর দেবার আগে বিকল্প কি সেটা ভাবতে হবে।

“গত অর্ধ শতক ধরে আমরা দেখছি সংবাদপত্রগুলো তাদের সংবাদকর্মীদের কেবলই ছাঁটাই করে চলেছে মুনাফার জন্য। সেই অর্থে এটা ভালো খবর যে জনকল্যাণের ব্রত নিয়ে এই বিত্তশালীরা এসব সংবাদপত্র কিনছে।”

কিন্তু তার মানে এই নয় যে এদের মিশন সফল হবে।

ফেসবুকের সহ প্রতিষ্ঠাতা ক্রিস হিউজেস একশো বছরের পুরোনো ম্যাগাজিন দ্য নিউ রিপাবলিক কিনে নিয়েছিল ২০১২ সালে। কিন্তু সেখানে দুই কোটি ডলার ঢালার পর তাকে এই পত্রিকা বিক্রি করে দিতে হয়।মিস্টার কেনেডি বলছেন, টাইম ম্যাগাজিনের নতুন মালিক মিস্টার বেনিওফকেও শুরুর কয়েকবছর লোকসানের ঝুঁকি নিতেই হবে।


ধীরে ধীরে ঠগির পর্দা খুলছেন আমির খান

প্রথম পর্যটক হিসেবে চাঁদে যাবেন জাপানের এক কোটিপতি


এ বিভাগের আরো খবর...

মশা নিধনে ব্যর্থ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন? মশা নিধনে ব্যর্থ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন?
১০ কোটি টাকার হিসাব চায় ঢাবি- শিক্ষার্থীরা ১০ কোটি টাকার হিসাব চায় ঢাবি- শিক্ষার্থীরা
আর কোনওদিন সাজিদ খানের সঙ্গে কাজ করব না-বিদ্যা বালন আর কোনওদিন সাজিদ খানের সঙ্গে কাজ করব না-বিদ্যা বালন
এখনও আতঙ্ক কাটছে না চকবাজার বাসীর! এখনও আতঙ্ক কাটছে না চকবাজার বাসীর!
সব পুড়ে ছাই, আগুনের ছোঁয়াও লাগেনি মসজিদে! সব পুড়ে ছাই, আগুনের ছোঁয়াও লাগেনি মসজিদে!
শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় ভাষা শহীদদের স্মরণ শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় ভাষা শহীদদের স্মরণ
আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি) আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি)
উপজেলা নির্বাচন: ৩৩ উপজেলায় কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই উপজেলা নির্বাচন: ৩৩ উপজেলায় কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই
শপথ নিলেন সংরক্ষিত আসনের নারী এমপিরা শপথ নিলেন সংরক্ষিত আসনের নারী এমপিরা
সৌদি আরবের কাছ থেকে কী কী পেলেন- ইমরান খান সৌদি আরবের কাছ থেকে কী কী পেলেন- ইমরান খান

সর্বাধিক পঠিত

যবিপ্রবির ২০ বিভাগের চেয়ারম্যানের একযোগে পদত্যাগ! যবিপ্রবির ২০ বিভাগের চেয়ারম্যানের একযোগে পদত্যাগ!
গণশুনানির নামে ‘ঘুমানো চক্র’ ষড়যন্ত্র করছে: আইনমন্ত্রী গণশুনানির নামে ‘ঘুমানো চক্র’ ষড়যন্ত্র করছে: আইনমন্ত্রী
সাবেক মন্ত্রীর সাথে বিয়ের পিঁড়িতে সানাই সাবেক মন্ত্রীর সাথে বিয়ের পিঁড়িতে সানাই
কেন শ্রীদেবীর শাড়ি নিলামে তুললেন তার স্বামী ? কেন শ্রীদেবীর শাড়ি নিলামে তুললেন তার স্বামী ?
বানসালী-সালমান ১৯ বছর পর এক সঙ্গে ! বানসালী-সালমান ১৯ বছর পর এক সঙ্গে !
৬০০০ ইয়াবা পাচার লবণ বোঝাই ট্রাকে ! ৬০০০ ইয়াবা পাচার লবণ বোঝাই ট্রাকে !
জম্মু - কাশ্মীরজুড়ে ভীতিকর অবস্থা! জম্মু - কাশ্মীরজুড়ে ভীতিকর অবস্থা!
যুবরাজ মুখ খুললেন দীপিকার সঙ্গে ব্রেকআপ নিয়ে যুবরাজ মুখ খুললেন দীপিকার সঙ্গে ব্রেকআপ নিয়ে
ভারতে বিমান ঘাঁটিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৩০০ গাড়ি পুড়ে ছাই ভারতে বিমান ঘাঁটিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৩০০ গাড়ি পুড়ে ছাই
কক্সবাজারে জমির বিরোধে দুই পক্ষের গুলিতে নিহত ২ কক্সবাজারে জমির বিরোধে দুই পক্ষের গুলিতে নিহত ২
প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে!
খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই
৫ জনই ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?