ঢাকা, অক্টোবর ২১, ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » ড. কামালের ‘ঐক্য প্রক্রিয়া’র সমাবেশে ফখরুল
শনিবার ● ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

ড. কামালের ‘ঐক্য প্রক্রিয়া’র সমাবেশে ফখরুল

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবতেদক:গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের ডাকে ‘জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া’র নাগরিক সমাবেশের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।আজ বিকাল ৩টায় গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে উদীচীর শিল্পী সুরাইয়া পারভীন ও মায়শা সুলতানার কণ্ঠে ‘আমাদের ন্যায্য অধিকার যত, আমাদের ফিরিয়ে দাও’ শীর্ষক গণসঙ্গীতের মধ্য দিয়ে সমাবেশ শুরু হয়।

বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে সমাবেশের প্রধান অতিথি যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী অনুষ্ঠানস্থলে এসে পৌঁছান।

স্বাগত বক্তব্যে জাতীয় ঐক্যের আহ্বায়ক ড. কামাল বলেন, “দেশের মানুষ ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত। আজ তা পুনরুদ্ধারে আমরা সমবেত হয়েছি। একাত্তর সালে ‍মুক্তিযুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জনগণ বিজয় ছিনিয়ে এনেছিল।

“আজ জাতীয় ঐক্যের ভিত্তিও হচ্ছে কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা; রাষ্ট্রের আর্থিক শৃঙ্খলা নিশ্চিত করে জনগণের মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা সম্ভব। আমি আশা করি, মঞ্চে উপবিষ্ট জাতীয় নেতৃবৃন্দ জনগণকে উজ্জীবিত করে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য ও গণজাগরণ সৃষ্টি লক্ষ্যে জনগণকে অনুপ্রাণিত করে তাদের মূল্যবান বক্তব্য রাখবেন।”

কামালের সভাপতিত্বে ও নাগরিক ঐক্যের সদস্য সচিব আবম মোস্তফা আমিনের পরিচালনায় সমাবেশের মঞ্চে বসেছেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা বারিস্টার মইনুল হোসেন; বিএনপি নেতাদের মধ্যে রয়েছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটি সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, আবদুল মঈন খান; বিজেপির চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ; জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মহাসচিব মাওলানা নুর হোসাইন কাসেমী; ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মো. মনসুর ও জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

মহানগর নাট্যমঞ্চের কাজী বশিরউদ্দিন মিলনায়তনে বড় ব্যানারে লেখা আছে- ‘কার্য্কর গণতন্ত্র আইনের শাসন ও জনগনের ভোটাধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলুন’।

‘এক দাবি এক লক্ষ্য দেশের স্বার্থে জাতীয় ঐক্য’ ‘নবীন-প্রবীণ আয়রে ভাই, দেশ বাঁচাতে ঐক্য চাই’, ‘একাত্তরের চেতনা, জাতীয় ঐক্য আরেক বার’, ‘ নব্বইয়ের আকাঙ্ক্ষা জাতীয় ঐক্য আরেকবার’ ইত্যাদি স্লোগান ও মুহুর্মূহু করতালিতে মিলনায়তন সরব।

ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মিছিল নিয়ে এই সমাবেশে নেতা-কর্মীরা আসছে। বেলা ২টার পরপরই পুরো মিলনায়তনস্থলে কয়েক হাজার নেতা-কর্মীর উপস্থিতিতে পূর্ণ হয়ে যায়।

মিলনায়তনে বাইরে লোকজন যাতে বক্তব্য শুনতে পারে সেজন্য পুরো প্রাঙ্গণে মাইক টাঙানো হয়েছে।

সমাবেশস্থলে এসেছেন ২০ দলীয় জোটের শরিক জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, আহসান হাবিব লিংকন, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, খেলাফত মজলিসের মাওলানা মজিবুর রহমান, আহমেদ আবদুল কাদের, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, জাগপার খোন্দকার লুৎফর রহমান ও আসাদুর রহমান খান।

এই নাগরিক সমাবেশকে কেন্দ্র করে মহানগর নাট্যমঞ্চের পাশপাশে ব্যাপক পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

২০১৬ সালের ৫ আগস্ট দেশে অবাধ, সুষ্ঠ ও কার্য্কর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া গঠনের ঘোষণা দেন।


বঙ্গোপসাগরে নিখোঁজ জেলেদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেয়নি ভারত

জিতের শহর কলকাতায় ‘নাকাব’৮৪টি প্রেক্ষাগৃহে চলছে


এ বিভাগের আরো খবর...

আমেরিকা চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসলে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে- মস্কো আমেরিকা চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসলে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে- মস্কো
মার্কিন জোটের যুদ্ধাপরাধে ব্যবস্থা নিন- জাতিসংঘকে সিরিয়া মার্কিন জোটের যুদ্ধাপরাধে ব্যবস্থা নিন- জাতিসংঘকে সিরিয়া
নিরাপত্তা পরিষদের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করুন: ইয়েমেন নিরাপত্তা পরিষদের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করুন: ইয়েমেন
ইরান থেকে তেল আমদানি বাড়াচ্ছে- তুরস্ক ইরান থেকে তেল আমদানি বাড়াচ্ছে- তুরস্ক
সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশের অনুমতি সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশের অনুমতি
দশম সংসদের শেষ অধিবেশন শুরু, চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দশম সংসদের শেষ অধিবেশন শুরু, চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত
প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আগামীকাল প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আগামীকাল
চোখ হারানো প্রত্যেককে ১০ লাখ করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ চোখ হারানো প্রত্যেককে ১০ লাখ করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ
স্টিয়ারিং ও সমন্বয়ক কমিটির যৌথসভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট স্টিয়ারিং ও সমন্বয়ক কমিটির যৌথসভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
ডিজিটাল ডিসপ্লের মাধ্যমে প্রচারণা চালানো যাবে- হেলালুদ্দীন ডিজিটাল ডিসপ্লের মাধ্যমে প্রচারণা চালানো যাবে- হেলালুদ্দীন

সর্বাধিক পঠিত

আমেরিকা চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসলে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে- মস্কো আমেরিকা চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসলে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে- মস্কো
মার্কিন জোটের যুদ্ধাপরাধে ব্যবস্থা নিন- জাতিসংঘকে সিরিয়া মার্কিন জোটের যুদ্ধাপরাধে ব্যবস্থা নিন- জাতিসংঘকে সিরিয়া
নিরাপত্তা পরিষদের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করুন: ইয়েমেন নিরাপত্তা পরিষদের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করুন: ইয়েমেন
ইরান থেকে তেল আমদানি বাড়াচ্ছে- তুরস্ক ইরান থেকে তেল আমদানি বাড়াচ্ছে- তুরস্ক
সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশের অনুমতি সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশের অনুমতি
দশম সংসদের শেষ অধিবেশন শুরু, চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দশম সংসদের শেষ অধিবেশন শুরু, চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত
প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আগামীকাল প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আগামীকাল
চীনের অ্যালুমিনিয়াম রফতানি ৩৭% বেড়েছে চীনের অ্যালুমিনিয়াম রফতানি ৩৭% বেড়েছে
চোখ হারানো প্রত্যেককে ১০ লাখ করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ চোখ হারানো প্রত্যেককে ১০ লাখ করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ
স্টিয়ারিং ও সমন্বয়ক কমিটির যৌথসভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট স্টিয়ারিং ও সমন্বয়ক কমিটির যৌথসভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে
রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন-রাশিয়াকে-জাতিসংঘের কড়া হুুশিয়ারি!
খালেদা জিয়ার জামিন বহাল
বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে নেপালে প্রধানমন্ত্রী
আওয়ামী লীগের জন্য যা পেয়েছি তা ভয়ংকর!