ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » অর্থ–শেয়ারবাজার » এমপি আসলামের বিদ্যুৎকেন্দ্র সাত বছরে শেস হয়নি
রবিবার ● ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

এমপি আসলামের বিদ্যুৎকেন্দ্র সাত বছরে শেস হয়নি

---বিবিসি২৪নিউজ,অর্থনীতি ডেস্ক:ঢাকার গাবতলীতে ১০৮ মেগাওয়াটের ফার্নেস অয়েলভিত্তিকবিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে ২০১১ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের সঙ্গে চুক্তি করে সংসদ সদস্য (এমপি) আসলামুল হকের ঢাকা নর্থ ইউটিলিটি কোম্পানি লিমিটেড। চুক্তি অনুযায়ী এক বছরের মধ্যে বিদ্যুৎ প্রকল্পটির কাজ শেষ করার কথা।

কেরানীগঞ্জের বছিলায় একই সক্ষমতার আরেকটি বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে বিপিডিবির সঙ্গে ২০১১ সালে চুক্তি করে এমপি আসলামের আরেক কোম্পানি ঢাকা ওয়েস্ট পাওয়ার লিমিটেড। এ বিদ্যুৎকেন্দ্রটিও ২০১২ সালের অক্টোবরে নির্মাণ শেষে চালু করার কথা ছিল। সেই সময় পেরোনোর ছয় বছর পরও বিদ্যুৎকেন্দ্রটির অগ্রগতি শূন্য।

আদৌ অগ্রগতি না হওয়ায় আসলামুল হকের এ দুই প্রকল্প নিয়ে বিরক্ত ও হতাশ বিপিডিবি। সংস্থাটির একাধিক কর্মকর্তা প্রকল্পটি বাতিলের পরামর্শ দিয়েছেন। গত সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত বিদ্যুৎ বিভাগের সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনাও হয়।

বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ, অর্থায়ন ও বাস্তবায়ন অগ্রগতি নিয়ে বিদ্যুৎ বিভাগের সর্বশেষ প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত জুলাই পর্যন্ত ঢাকার গাবতলীতে ১০৮ মেগাওয়াটের ফার্নেস অয়েলভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের আর্থিক অগ্রগতি শূন্য।

প্রকল্প কর্মকর্তারা বলছেন, ফিন্যান্সিয়াল ক্লোজারের কারণেই বিদ্যুৎ প্রকল্পটির এ দুরবস্থা। ব্যাংক গ্যারান্টির মেয়াদও শেষ হয়েছে প্রকল্পটির। গত ১৮ জুলাই ব্যাংক গ্যারান্টি নগদায়নের জন্য ব্যাংক বরাবর নোটিস দেয়া হয়।

কেরানীগঞ্জের বছিলায় ১০৮ মেগাওয়াটের ঢাকা ওয়েস্ট পাওয়ার লিমিটেডের বিদ্যুৎ প্রকল্পটির আর্থিক অগ্রগতিও শূন্য। ভৌত অগ্রগতি কিছু হলেও তা ৫ শতাংশ। জমি ভরাট ছাড়া আর কোনো ভৌত অগ্রগতি নেই প্রকল্পটির। ব্যাংক গ্যারান্টি বাতিল হওয়ায় প্রকল্পটি বাতিল করা হবে মর্মে বিদ্যুৎ প্রকল্পটির মূল প্রতিষ্ঠান মাইশা গ্রুপকে গত জুলাইয়ে চিঠিও দেয় বিপিডিবি। এছাড়া বিপিডিবির বোর্ডসভায় প্রকল্পটি বাতিলের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানানো হয়েছে।

জানতে চাইলে বিপিডিবির সদস্য সাঈদ আহমেদ বলেন, এ বিষয়ে বোর্ডসভায় আলোচনা হয়েছে। প্রকল্পটি বাতিলের বিষয়েও আলোচনা হয়। তবে স্পন্সর কোম্পানি তাদের ব্যাংক গ্যারান্টি নবায়ন করার কারণে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে আবারো সময় দেয়া হয়। কয়েকটি শর্তের ভিত্তিতে কোনো কোম্পানির সঙ্গে প্রকল্প চালু রাখা বা বাতিল করার সিদ্ধান্ত হয়। ব্যাংক গ্যারান্টি এসব শর্তের একটি।

বিদ্যুৎকেন্দ্র দুটি বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা নর্থ ইউটিলিটি কোম্পানি লিমিটেড ও ঢাকা ওয়েস্ট পাওয়ার লিমিটেড মাইশা গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান। গ্রুপের চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন ঢাকা-১৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. আসলামুল হক। প্রকল্পের দুরবস্থার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমাদের বিদ্যুৎকেন্দ্র রয়েছে। সেটা বিপিডিবি ও আমাদের বিষয়।’ এ নিয়ে আর কিছু বলতে চাননি তিনি।

জানা যায়, আসলামুল হকের প্রতিষ্ঠান মাইশা গ্রুপের আবাসন থেকে শুরু করে বিদ্যুৎকেন্দ্র, এগ্রো ও টেলিকম খাতে ব্যবসা রয়েছে। তার একটি বিদ্যুৎকেন্দ্র বর্তমানে চালু আছে। ১০৮ মেগাওয়াট ক্ষমতার বিদ্যুৎকেন্দ্রটি কেরানীগঞ্জে অবস্থিত। ২০১১ সালে সিএলসি পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড নামে কেন্দ্রটি নির্মাণে বিপিডিবির সঙ্গে চুক্তি করে মাইশা গ্রুপ। বর্তমানে এ কেন্দ্রের প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ ১০ টাকা ২৭ পয়সা দরে কিনছে বিপিডিবি।

এক বছরের প্রকল্প সাত বছরে বাস্তবায়ন করতে না পারলেও নানা খাতে ব্যবসা বাড়াচ্ছেন এমপি আসলামুল হক। নতুন করে যোগাযোগ খাতে ব্যবসা বৃদ্ধির পরিকল্পনা রয়েছে তার। এজন্য আকাশপথ ও সড়ক যোগাযোগে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছেন তিনি।

গাবতলী ও আমিনবাজার থেকে আজিমপুর পর্যন্ত বাস র্যাপিড ট্রানজিট  এবং এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে করার পরিকল্পনা নিয়েছে মাইশা গ্রুপ। মোট ১০ কিলোমিটারের এ এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েতে ছয় লেনের রাস্তা হবে। বিআরটি স্টেশন হবে মোট আটটি।


মেসিকে জাতীয় দলে ডাকতাম না:মারাদোনা

জেসুসের সমালোচনাটা অন্যায্য ছিল:নেইমার


এ বিভাগের আরো খবর...

আরও ব্যাংক অনুমোদন পেতে পারে- অর্থমন্ত্রী আরও ব্যাংক অনুমোদন পেতে পারে- অর্থমন্ত্রী
আরও নতুন ৩টি ব্যাংকের অনুমোদন আরও নতুন ৩টি ব্যাংকের অনুমোদন
তুলা শিল্পকে বাঁচাতে সরকার কাজ করবে- বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী তুলা শিল্পকে বাঁচাতে সরকার কাজ করবে- বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী
২২ হাজার কোটি টাকার বাড়তি বরাদ্দ চায়- আরএডিপি ২২ হাজার কোটি টাকার বাড়তি বরাদ্দ চায়- আরএডিপি
পূর্বাচলে বাণিজ্য মেলা সম্ভব হবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী পূর্বাচলে বাণিজ্য মেলা সম্ভব হবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী
চামড়া শিল্প অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ খাত : শিল্পমন্ত্রী চামড়া শিল্প অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ খাত : শিল্পমন্ত্রী
ব্যবসায়ীরা সবাই সরকারের অংশ: অর্থমন্ত্রী ব্যবসায়ীরা সবাই সরকারের অংশ: অর্থমন্ত্রী
ডিজিটাল ব্যাংকিং আসছে ‘ব্যাংকার্স বুক ইভিডেন্স অ্যাক্ট’ ডিজিটাল ব্যাংকিং আসছে ‘ব্যাংকার্স বুক ইভিডেন্স অ্যাক্ট’
প্রতিটি সরকারি ব্যাংকে আলাদাভাবে বিশেষ অডিট হবে: অর্থমন্ত্রী প্রতিটি সরকারি ব্যাংকে আলাদাভাবে বিশেষ অডিট হবে: অর্থমন্ত্রী
প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়েছে জাপানের ইস্পাত শিল্প প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়েছে জাপানের ইস্পাত শিল্প

সর্বাধিক পঠিত

পাকিস্তান শান্তিপ্রিয় জাতি কিন্তু হুমকির মুখে ভীত না: পাক সেনাপ্রধান পাকিস্তান শান্তিপ্রিয় জাতি কিন্তু হুমকির মুখে ভীত না: পাক সেনাপ্রধান
যুদ্ধে বিজয়ী হতে সব উপায় অবলম্বন করবে- ভারত যুদ্ধে বিজয়ী হতে সব উপায় অবলম্বন করবে- ভারত
কেলি ক্র্যাফটকে জাতিসংঘে রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দিলেন- ট্রাম্প কেলি ক্র্যাফটকে জাতিসংঘে রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দিলেন- ট্রাম্প
সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই, কাশ্মীরের বিরুদ্ধে নয়- মোদি সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই, কাশ্মীরের বিরুদ্ধে নয়- মোদি
৮ লাখ রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা চলছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ৮ লাখ রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা চলছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যবিপ্রবির ২০ বিভাগের চেয়ারম্যানের একযোগে পদত্যাগ! যবিপ্রবির ২০ বিভাগের চেয়ারম্যানের একযোগে পদত্যাগ!
গণশুনানির নামে ‘ঘুমানো চক্র’ ষড়যন্ত্র করছে: আইনমন্ত্রী গণশুনানির নামে ‘ঘুমানো চক্র’ ষড়যন্ত্র করছে: আইনমন্ত্রী
সাবেক মন্ত্রীর সাথে বিয়ের পিঁড়িতে সানাই সাবেক মন্ত্রীর সাথে বিয়ের পিঁড়িতে সানাই
কেন শ্রীদেবীর শাড়ি নিলামে তুললেন তার স্বামী ? কেন শ্রীদেবীর শাড়ি নিলামে তুললেন তার স্বামী ?
বানসালী-সালমান ১৯ বছর পর এক সঙ্গে ! বানসালী-সালমান ১৯ বছর পর এক সঙ্গে !
প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে!
খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই
৫ জনই ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?