ঢাকা, নভেম্বর ২০, ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » আইন-আদালত » চোখ হারানো প্রত্যেককে ১০ লাখ করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ
রবিবার ● ২১ অক্টোবর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

চোখ হারানো প্রত্যেককে ১০ লাখ করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ

---বিবিসি২৪নিউজ,আদালত প্রতিনিধি:চুয়াডাঙ্গায় ইমপ্যাক্ট মাসুদুল হক মেমোরিয়াল কমিউনিটি হেলথ সেন্টারে চক্ষু শিবিরে চিকিৎসায় ‘চোখ হারানো’ ১৭ জনের প্রত্যেককে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।আজ হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন।

ইমপ্যাক্ট মাসুদুল হক মেমোরিয়াল কমিউনিটি হেলথ সেন্টার ও ওষুধ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান আইরিশ কোম্পানিকে এ ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। আগামী এক মাসের মধ্যে তাদের টাকা পরিশোধ করতে বলা হয়েছে।

এর আগে, গত ১৩ আগস্ট দৃষ্টি হারানো ২০ জনের প্রত্যেককে এক কোটি করে টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে জারি করা রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষ হয়।

আজ রায় ঘোষণা করেন আদালত। তবে ২০ জনের মধ্যে তিনজনের চোখ ঠিক হয়ে যাওয়ায় ১৭ জনকে ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে।

গত ২৯ মার্চ একটি জাতীয় দৈনিকে ‘চক্ষু শিবিরে গিয়ে চোখ হারালেন ২০ জন’ শীর্ষক একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনটি যুক্ত করে হাইকোর্টে রিট করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘চুয়াডাঙ্গার ইম্প্যাক্ট মাসুদুল হক মেমোরিয়াল কমিউনিটি হেল্থ সেন্টারে তিন দিনের চক্ষু শিবিরের দ্বিতীয় দিন ৫ মার্চ ২৪ জনের চোখের ছানি অপারেশন করা হয়।

অপারেশনের পর বাসায় ফিরেই ২০ জন রোগীর চোখে ইনফেকশন দেখা দেয়। বিষয়টি নিয়ে হাসপাতালে যোগাযোগ করা হলে কয়েকজন রোগীকে স্থানীয় এক চক্ষু বিশেষজ্ঞের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

স্থানীয় ওই চক্ষু বিশেষজ্ঞ তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে ঢাকায় গিয়ে চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেন। এদের মধ্যে চারজন রোগী নিজেদের উদ্যোগে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত স্বজনদের নিয়ে ঢাকায় আসেন।

পরে ইম্প্যাক্ট থেকে ১২ মার্চ একসঙ্গে ১৬ জন রোগীকে ঢাকায় নেয়া হয়। ততদিনে অনেক দেরি হয়ে গেছে। ৫ মার্চের ওই অপারেশনের ফলে এদের চোখের এত ভয়াবহ ক্ষতি হয়েছে যে, ১৯ জনের একটি করে চোখ তুলে ফেলতে হয়েছে।


স্টিয়ারিং ও সমন্বয়ক কমিটির যৌথসভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

চীনের অ্যালুমিনিয়াম রফতানি ৩৭% বেড়েছে


এ বিভাগের আরো খবর...

নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ: ফখরুল নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ: ফখরুল
ডিএমপি কমিশনার ও ইসি সচিবের শাস্তি দাবি- বিএনপির ডিএমপি কমিশনার ও ইসি সচিবের শাস্তি দাবি- বিএনপির
বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম
জাতীয় পার্টি আবার জেগে উঠেছে: এরশাদ জাতীয় পার্টি আবার জেগে উঠেছে: এরশাদ
পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে- ইসি সচিব পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে- ইসি সচিব
সম্পদের হিসাব না দেওয়ায় রফিকুলের সাজা সম্পদের হিসাব না দেওয়ায় রফিকুলের সাজা
বদি-রানাকে মনোনায়ন দেওয়া হচ্ছে না- কাদের বদি-রানাকে মনোনায়ন দেওয়া হচ্ছে না- কাদের
শরিকদের ৩৫-৪০ আসন দিতে চায় বিএনপি শরিকদের ৩৫-৪০ আসন দিতে চায় বিএনপি
প্রিন্স আহমেদ পরবর্তী সৌদি বাদশাহ হওয়ার আভাস? প্রিন্স আহমেদ পরবর্তী সৌদি বাদশাহ হওয়ার আভাস?
আজও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে আজও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে

সর্বাধিক পঠিত

অভিনেত্রী অপর্ণা সেন হাসপাতালে ভর্তি অভিনেত্রী অপর্ণা সেন হাসপাতালে ভর্তি
লেনদেনের সায়হাম টেক্সটাইল শীর্ষে লেনদেনের সায়হাম টেক্সটাইল শীর্ষে
মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস সেবা প্রদান করছে - ইউসিবি ব্যাংক মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস সেবা প্রদান করছে - ইউসিবি ব্যাংক
ঢাবিতে বিআরটিসি বাসের নিচ থেকে নবজাতক উদ্ধার! ঢাবিতে বিআরটিসি বাসের নিচ থেকে নবজাতক উদ্ধার!
প্রিয়ঙ্কা-নিক আগাম বিক্রি করে দিয়েছে বিয়ের সব ছবি! প্রিয়ঙ্কা-নিক আগাম বিক্রি করে দিয়েছে বিয়ের সব ছবি!
টেস্ট পরীক্ষায় অকৃতকার্যদের টাকার বিনিময়ে পরীক্ষার সুযোগ জঘন্য দুর্নীতি- দুদক টেস্ট পরীক্ষায় অকৃতকার্যদের টাকার বিনিময়ে পরীক্ষার সুযোগ জঘন্য দুর্নীতি- দুদক
পরকীয়ার জের ধরে কেরোসিন ঢেলে দগ্ধ গৃহবুধূ! পরকীয়ার জের ধরে কেরোসিন ঢেলে দগ্ধ গৃহবুধূ!
ভুট্টার মজুদ চীনে ভুট্টার মজুদ চীনে
মা হতে চলেছেন অনুষ্কা শর্মা মা হতে চলেছেন অনুষ্কা শর্মা
নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ: ফখরুল নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ: ফখরুল
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে