ঢাকা, নভেম্বর ২০, ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
বৃহস্পতিবার ● ১ নভেম্বর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি

---বিবিসি২৪নিউজ,এমডি জালাল:জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন সংলাপের উদ্যোগ গ্রহণের তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যে চিঠি পাঠিয়েছিলেন, তার জবাবে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রস্তাবে রাজি হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। শুধু তাই নয়, আজ সংলাপেও বসেছেন।

আজ সন্ধ্যায় হতে যাচ্ছে বহু প্রতীক্ষিত এ সংলাপ। ‘সংবিধানসম্মত সকল বিষয়ে’ আলোচনার জন্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

জানা গেছে, আলোচনায় সরকারি দলের নেতৃত্ব দেবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। অন্যদিকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন ড. কামাল হোসেন।

সংলাপের এ উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই। রাজনীতিতে দীর্ঘ অচলাবস্থার পর সংলাপের দরজা উন্মুক্ত হওয়ায় জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়েছে, দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের একটি বিএনপি তার অন্তর্ভুক্ত।

ঐক্যফ্রন্ট যে ৭ দফা দাবি ও ১১ দফা লক্ষ্য নিয়ে আলোচনার জন্য সংলাপে বসতে চেয়েছে, তার মূল বিষয় জাতীয় নির্বাচন সম্পর্কিত। কাজেই এ সংলাপের গুরুত্ব অনেক।

জনগণ আগামী নির্বাচনটিকে সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক দেখতে চায়। প্রসঙ্গত উল্লেখ করা যায়, গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক না হওয়ায় দেশে-বিদেশে তা বিতর্কিত হয়েছিল।

আগামী নির্বাচনটিকে অংশগ্রহণমূলক করতে বাস্তব পরিস্থিতি সৃষ্টি করার দাবি করে যাচ্ছে বিএনপিসহ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। তারা নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবিও তুলেছে।

এটা ঠিক, সাংবিধানিক রাজনীতির স্বার্থে দেশের সংবিধানের বাইরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। যা কিছু করার তা সংবিধানের আওতার মধ্যে থেকেই করতে হবে।

সেক্ষেত্রে উভয়পক্ষের মধ্যে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এমন একটি জায়গায় পৌঁছানো সম্ভব, যা সংবিধানের নিয়ম রক্ষা করেই দুই পক্ষের কাছে গ্রহণযোগ্য হতে পারে।

আমাদের প্রয়োজন একটি অংশগ্রহণমূলক সুষ্ঠু নির্বাচন আর এজন্য উভয়পক্ষের সদিচ্ছাই যথেষ্ট। এ লক্ষ্যে দুই পক্ষকেই অনমনীয়তা ভাঙতে হবে। আর সেই সুযোগটি তৈরি হতে পারে আসন্ন সংলাপে।

সংলাপ বা আলোচনার মাধ্যমে সংকট নিরসন গণতান্ত্রিক সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের রাজনীতিতে এর চর্চা প্রায় অনুপস্থিত। অতীতে কখনও কখনও সংলাপ হলেও তা সংকট নিরসনে ভূমিকা রাখতে ব্যর্থ হয়েছে।

আমরা আশা করব, এবারের সংলাপ তেমনটি হবে না। গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের স্বার্থে সংলাপে উভয়পক্ষই তাদের সদিচ্ছা ও বিচক্ষণতা দেখাবে। ছাড় দেয়ার মানসিকতা নিয়ে সংলাপে বসবে।

দেশকে আর যেন অস্থিতিশীলতার মধ্যে পড়তে না হয়, সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে সবাইকে। অতীতে সহিংস রাজনীতি অনেক ক্ষতি করেছে দেশের। জানমালের ক্ষতি হয়েছে ব্যাপক। তেমন পরিস্থিতি আর নয়।


গণভবনে প্রবেশ করেছেন ঐক্যফ্রন্টের ২১ সদস্য

সংলাপ লোভ দেখানো: বিএনপি


এ বিভাগের আরো খবর...

নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়? বাংলাদেশের রাজনৈতিতে সংলাপের কতটুকু গুরুত্ব পায়?
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল? বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয় বিশ্বের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার নয়
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি? শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক? দৃষ্টিহীনদের জন্য পুজো কতটা আনন্দদায়ক?
অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন? অবৈধ হাসপাতালগুলো আদালতের নির্দেশ মানছে না কেন?
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার

সর্বাধিক পঠিত

নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ: ফখরুল নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ: ফখরুল
মেয়ের নাম জানালেন নেহা-অঙ্গদ মেয়ের নাম জানালেন নেহা-অঙ্গদ
ডিএমপি কমিশনার ও ইসি সচিবের শাস্তি দাবি- বিএনপির ডিএমপি কমিশনার ও ইসি সচিবের শাস্তি দাবি- বিএনপির
তেল দৈনিক ১০ লাখ ব্যারেল বাড়াতে চায় ভেনিজুয়েলা তেল দৈনিক ১০ লাখ ব্যারেল বাড়াতে চায় ভেনিজুয়েলা
পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১১ টাকা পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১১ টাকা
দীপিকা-রণবীর মুম্বইতে ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুদের, সহকর্মীদের জন্য পার্টি দেবেন দীপিকা-রণবীর মুম্বইতে ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুদের, সহকর্মীদের জন্য পার্টি দেবেন
ভারতের ৫৮ লাখ টন চাল রফতানি ৬ মাসে ভারতের ৫৮ লাখ টন চাল রফতানি ৬ মাসে
খালি গায়ে ঘর পরিষ্কার করে মাসিক আয় ৪ লাখ টাকা! খালি গায়ে ঘর পরিষ্কার করে মাসিক আয় ৪ লাখ টাকা!
কাঁকড়ার রক্ত ১১ লাখ টাকা প্রতি লিটার! কাঁকড়ার রক্ত ১১ লাখ টাকা প্রতি লিটার!
বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম বর্ণচোরা ভণ্ডদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করবে জনগন- নাসিম
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার
গুদামের খাদ্যদ্রব্য পাচারে-সক্রিয় চোর সিন্ডিকেট
প্যারিস জলবায়ু চুক্তি ৩০০ পৃষ্ঠার খসড়া অনুমোদন করেছে-ব্যাংকক
সড়ক শৃঙ্খলা-মূল সমস্যাটা রাজনীতিতেই: কাদের
বিশ্বের ভয়াবহ আবহাওয়া নিয়ে প্রযুক্তিগত আলোচনা চলছে