ঢাকা, জানুয়ারী ২১, ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
রবিবার ● ৪ নভেম্বর ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?

---এম ডি জালাল: আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক ও সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে সরকারের সঙ্গে বিরোধী দলগুলোর সংলাপের প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হচ্ছিল অনেকদিন আগে থেকেই। সংলাপের অভিজ্ঞতা আমাদের ভালো নয়।অতীতের কোনো সংলাপই সুফল বয়ে আনতে পারেনি। তবে বৃহস্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের সঙ্গে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বহুল প্রত্যাশিত সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সেই প্রেক্ষাপটে শেষ পর্যন্ত সরকারি দলের নেতৃত্বাধীন জোটের সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ অনুষ্ঠিত হল।গণভবনে অনুষ্ঠিত এ সংলাপে দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতামূলক কোনো ঐক্য প্রতিষ্ঠিত না হলেও কিছু ইতিবাচক বিষয় লক্ষ্য করা গেছে।

প্রধানমন্ত্রী ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের আশ্বস্ত করেছেন এই বলে যে, এখন থেকে সভা-সমাবেশ ও মতপ্রকাশের ক্ষেত্রে কোনো বাধা দেয়া হবে না।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কর্তৃক উত্থাপিত বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মামলা ও তাদের গ্রেফতার প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে এ ধরনের নেতাকর্মীদের একটি তালিকা চেয়েছেন।

জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, নির্বাচনে সীমিত আকারে ইভিএম ব্যবহার হতে পারে। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড ও বিদেশি পর্যবেক্ষকদের দাবির ব্যাপারেও ১৪ দলের পক্ষ থেকে সম্মতি পাওয়া গেছে।

সবচেয়ে বড় কথা, আরও সংলাপের প্রয়োজন রয়েছে, বিরোধী দলের পক্ষ থেকে এমন প্রস্তাবের বিপরীতে সরকারি দলের পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গেছে।

এটা ঠিক,বৃহস্পতিবারের সংলাপে এমন কোনো ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হয়নি যাতে বিরোধী পক্ষ পরোপুরি সন্তুষ্ট হতে পারে। খালেদা জিয়ার মুক্তি, সংসদ ভেঙে দেয়া ইত্যাদি বিষয় এখনও অমীমাংসিত থেকে গেছে।

আমরা আশাবাদ ব্যক্ত করতে পারি অচিরেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সরকার পক্ষ একটা সমঝোতায় উপনীত হতে পারবে, যাতে আগামী নির্বাচনটি অংশগ্রহণমূলক ও সুষ্ঠু হতে পারে। ১৪ দলের সঙ্গে অন্যান্য বিরোধী দলেরও সংলাপ অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে।

সেসব সংলাপেও নিশ্চয়ই অংশগ্রহণকারীদের পক্ষ থেকে নানা দাবি উত্থাপিত হবে। বাকি সংলাপগুলো অনুষ্ঠিত হওয়ার পর নিশ্চয়ই একটি কমন গ্রাউন্ডে পৌঁছানো সম্ভব হবে।

বিরোধী দলগুলোকে এটা উপলব্ধি করতে হবে যে, নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতা বদলের কোনো সাংবিধানিক ব্যবস্থা নেই। নির্বাচনই একমাত্র গণতান্ত্রিক উপায়, যার মাধ্যমে ক্ষমতার বদল ঘটতে পারে।

বিরোধী দলগুলোকে কোনো দাবির ব্যাপারেই অনড় থাকলে চলবে না।চলমান সংলাপগুলো যেন ব্যর্থ না হয় সে ব্যাপারে সব পক্ষকে আন্তরিক হতে হবে।তাই বিরোধী দলের সেই পরিমাণে ছাড় দেয়ার মানসিকতা থাকতে হবে, যা একটি অর্থবহ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সহায়ক হবে।


চীনের সঙ্গে বন্ধুত্ব আরাে শক্তিশালী করবে- কিম

“বেল্ট এন্ড রোড” এগিয়ে নিতে সম্মত: চীনা-পাকিস্তান


এ বিভাগের আরো খবর...

বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয় খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে! মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে? ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন! বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
ইশতেহার নয়, কাজে বিশ্বাস করে দেশবাসী ইশতেহার নয়, কাজে বিশ্বাস করে দেশবাসী
নেইমারের সমালোচনায় পেলে নেইমারের সমালোচনায় পেলে

সর্বাধিক পঠিত

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস
বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা
রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা
বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ
প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায় প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায়
বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে