ঢাকা, জানুয়ারী ২১, ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » বিশেষ প্রতিবেদন » ঐক্যফ্রন্ট সমর্থনে-ইমেজ সংকটে ২০-দলীয় জোট বিএনপি
বৃহস্পতিবার ● ৮ নভেম্বর ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

ঐক্যফ্রন্ট সমর্থনে-ইমেজ সংকটে ২০-দলীয় জোট বিএনপি

---বিবিসি২৪নিউজ,আশরাফ আলী,বিশেষ প্রতিনিধি: বাংলাদেশে ১৯৯৯ সালে বিএনপির বর্তমান জোট রাজনীতির বড় ভিত্তি স্থাপিত হয় ।এই জোট নিয়ে ভোটের রাজনীতিতে যেমন সাফল্য পেয়েছে তেমনি আন্দোলনে ব্যর্থতাও দেখেছে। জোট নিয়ে সাফল্যের পাশাপাশি বিব্রতও হতে হয়েছে দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দলটিকে। বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রাজনীতিতে ২০ দলীয় জোটের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।জোটের নেতারা বলছেন, তাদের কাছে ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সুষ্ঠু নির্বাচন এই মুহূর্তে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। ঐক্যফ্রন্টে পুরো জোটের প্রতিনিধি বিএনপি। জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যুক্ত হওয়ার পর থেকেই তাদের নেতৃত্বাধীন জোটের কার্যক্রম যেন অনেকটাই স্থবির।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের প্রক্রিয়ার পর থেকে ২০-দলীয় জোটের শরিকেরা বিএনপি ও সাম্প্রতিক রাজনীতিতে অনেকটা গৌণ হয়ে পড়ে। অনেক দিন ধরে দেশের রাজনীতিতে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটটি কাগজে কলমে থাকলে মাঠে তারা সেভাবে সক্রিয় নয়। মাঝেমধ্যে জোটের বৈঠক হলেও রাজনীতির মাঠে সক্রিয়ভাবে জোটের দলগুলোকে সেভাবে পাওয়া যায়নি। উপরন্তু নানা ইস্যুতে জোটে ভাঙন ধরতেও দেখা গেছে। নানা রকম ভাঙাগড়ার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে জোটটি। পাশাপাশি জোটের ভেতরেও নানা মেরুকরণের কথাও শোনা যায়।

প্রথম দিকে ২০-দলকে পাশ কাটিয়ে জাতীয় ঐক্য গঠনের কাজ শুরু হলে শরিক দলের অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এক পর্যায়ে ন্যাপ ও এনডিপি জোট থেকে বের হয়ে যায়। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বা গণমাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তব্যও দিয়েছেন অন্যতম শরিক এলডিপির সভাপতি অলি আহমদ।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন মনে করেন, ২০-দলীয় জোটের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্কের কোনো অবনতি হয়নি। ২০ দল ও ঐক্যফ্রন্ট আলাদা অবস্থানে থেকেই রাজনীতি করছে। কিন্তু এই দুই জোটের দাবি দাওয়া প্রায় অভিন্ন। তিনি বলেন, বিএনপি ভোটে যাবে কি না সেই সিদ্ধান্ত এখনো নেয়নি।

১৯৯৯ সালে চারদলীয় ঐক্যজোট গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করে বিএনপি। বছরের শুরুতে এইচ এম এরশাদ, জামায়াতের তৎকালীন আমির গোলাম আযম ও ইসলামী ঐক্যজোটের তখনকার চেয়ারম্যান শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হককে সঙ্গে নিয়ে চারদলীয় জোট গঠনের চেষ্টা শুরু করেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। একপর্যায়ে এইচ এম এরশাদ এই প্রক্রিয়া থেকে সরে এলে নাজিউর রহমান মঞ্জুর নেতৃত্বে জাতীয় পার্টির একাংশকে নিয়ে চার দলীয় জোট গঠিত হয়।

২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে থাকা চারদলীয় জোট কলেবরে বেড়ে ১৮ দলীয় জোট হয়। বিএনপি ছাড়া সে সময় জোটের শরিক দলগুলো ছিল জামায়াতে ইসলামী, ইসলামী ঐক্যজোট, খেলাফত মজলিশ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), কল্যাণ পার্টি, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি), লেবার পার্টি, ইসলামিক পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাপ, ন্যাপ ভাসানী, মুসলিম লীগ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, পিপলস লীগ ও ডেমোক্রেটিক লীগ।

বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটে নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত দলগুলো হলো-বিএনপি, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, খেলাফত মজলিশ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ মুসলিম লীগ। বাকি দলগুলোর নিবন্ধনই নেই।জোটের প্রধান শরিক বিএনপির ওপর চাপ তৈরি করে ভোটের রাজনীতিতে নিজেদের অবস্থান টিকিয়ে রাখতে তৎপর তাঁরা। তাই নির্বাচনে গেলে জোটের পক্ষ থেকে নিজেদের মনোনয়ন নিশ্চিত করাই তাদের প্রধান লক্ষ্য।


দেরাদুনে গুরু মহারাজের কাছে বিরাট এবং আনুশকা

মেসির রেকর্ড কখনই ভাঙতে পারবেন না সিআর সেভেন-ফক্স স্পোর্টস


এ বিভাগের আরো খবর...

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস
এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী এবারের নির্বাচনের পরিবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ- তথ্যমন্ত্রী
পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই পাঁচ প্রতিষ্ঠানের পানি ‘মানহীন’ আদলতকে- বিএসটিআই
নোয়াখালীতে বাস-সিএনজি সংঘর্ষ নিহত ৪ নোয়াখালীতে বাস-সিএনজি সংঘর্ষ নিহত ৪
প্রতিবন্ধী কোটা আগের মতই আছে- শফিউল আলম প্রতিবন্ধী কোটা আগের মতই আছে- শফিউল আলম
তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২ তালেবানের গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২
প্রশাসনকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে- ফখরুল প্রশাসনকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে- ফখরুল

সর্বাধিক পঠিত

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক
বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে এখনও সংশয় কাটেনি
ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২ ভারতে ষাঁড়ের রেসলিং উৎসবে নিহত ২
ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্রাঙ্কলিংকের ঝড়ে উড়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস
বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি সাকিবের ঢাকা
রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা রাতভর নেচে অসুস্থ বিপাশা
বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নৌবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ
প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায় প্রচণ্ড শীত ও ঘন কুয়াশায় ৩১ রোহিঙ্গা শূন্যরেখায়
বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুধবারের বৈঠকে ইজতেমা নিয়ে সিদ্ধান্ত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?
মহাজোটের মহাজয়ে শেখ হাসিনা
বাংলাদেশে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা রোধ করুন!
নেইমারের সমালোচনায় পেলে
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে