ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান
রবিবার ● ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিবিরে পুলিশের অভিযান

---বিবিসি২৪নিউজ,অনলাইন ডেস্ক:মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলের রাখাইনে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে মানবপাচারের অভিযোগে অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে ক্যাম্প থেকে দু’জনকে আটক করা হয়। এ সময় পুলিশের গুলিতে চার রোহিঙ্গা মুসলিম আহত হন।আজ রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানায়, সকালের দিকে রাখাইনের রাজধানী সিত্তে থেকে পূর্বাঞ্চলের ১৫ কিলোমিটার দূরের এএইচ নওক ইয়ে শরণার্থী শিবিরে পুলিশের ২০ সদস্যের একটি দল প্রবেশ করে। এ সময় ১০৬ জন রোহিঙ্গাকে মিয়ানমার থেকে পাচারের অভিযোগ এনে দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

দেশটির পুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃত দু’জনের একটি নৌকা আছে। গত শুক্রবার এই নৌকায় করে তারা ওই রোহিঙ্গাদের দেশের বাইরে পাচারের চেষ্টা করেছিল।

জিজ্ঞাসাবাদের সময় ওই দুই রোহিঙ্গা বলেছেন, ছোট নৌকায় করে তারা শিশুসহ প্রায় ২৫ যাত্রীকে নিয়ে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল। পরে ইয়াঙ্গুনের দক্ষিণের তাদের সেই নৌকা আটকে দেয়া হয়।

রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে পুলিশের গুলির প্রত্যক্ষদর্শী রোহিঙ্গা যুবক (২৭) মং মং আয়ে রয়টার্সকে বলেছেন, পুলিশের গুলিতে চারজন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। টেলিফোনে তিনি বলেন, বাইরে কী ঘটছে তা জানার জন্য লোকজন শিবির থেকে বাইরে বেরিয়ে এসেছিল। এ সময় তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় পুলিশ।

তবে পুলিশ বলছে, রোহিঙ্গারা ছুরি হাতে পুলিশ সদস্যদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে এবং পাথর নিক্ষেপ করে। এতে বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

পার্শ্ববর্তী পুলিশ স্টেশনের পরিদর্শক থ্যান হতেই বলেন, আমি শুনেছি, শরণার্থী শিবিরের বাঙালিরা গ্রেফতারকৃত দুজনকে পুলিশের হাত থেকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছে। এসময় পুলিশ সতর্কতা হিসেবে ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছে। এতে কয়েকজন বাঙালি আহত হয়েছে বলেও আমি শুনেছি। তবে আমি বিস্তারিত জানি না।

মিয়ানমারের অনেক মানুষ রোহিঙ্গাদের বাঙালি বলে ডাকে। এমনকি তাদেরকে বাংলাদেশ থেকে সেদেশে পাড়ি জমানো অবৈধ অভিবাসী হিসেবেও মনে করে।

২০১৫ সালে রাখাইনে সেনাবাহিনীর ভয়াবহ অভিযান শুরুর পর রোহিঙ্গাদের এ ধরনের বিপজ্জনক সামুদ্রিক যাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছিল। তবে সম্প্রতি সমুদ্র পথে ছোট নৌকায় করে সমুদ্র পাড়ি দেয়ার ঘটনা আবার বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রাণহানির শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

চলতি বছরের অক্টোবরে বাংলাদেশ-মিয়ানমারের স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী, প্রথম দফায় দুই হাজারের বেশি রোহিঙ্গাকে রাখাইনে প্রত্যাবাসন শুরুর কথা ছিল গত বৃহস্পতিবার। কিন্তু এই প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার শুরু হওয়া নিয়ে ব্যাপক সন্দেহ দেখা দেয়; শেষ পর্যন্ত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া আলোর মুখ দেখেনি।

গত বছরের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলের রাখাইনে দেশটির রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে ব্যাপক সামরিক অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনী। রক্তাক্ত ওই অভিযানের মুখে প্রায় সাত লাখ ২০ হাজার রোহিঙ্গা প্রতিবেশি বাংলাদেশে পালিয়ে আসে।

রাখাইন থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা সেখানে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগসহ নৃশংস অভিযানের অভিযোগ করেছেন। তবে দেশটির সেনাবাহিনী রাখাইনে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান পরিচালনা করছে বলে দাবি করে আসছে। একই সঙ্গে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে আনা সব ধরনের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।

এর আগে গত শুক্রবার মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন শহর থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরের একটি এলাকায় ১০৬ জন আরোহীসহ নৌকাটি আটক করে দেশটির অভিবাসন কর্তৃপক্ষ।

কাইও হতে নামে এক অভিবাসন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে আল জাজিরা জানায়, আগের বছরের মতোই খুব সম্ভবত তারা রাখাইন থেকে এসেছে। আমরা ধারণা করছি তারা রাখাইন রাজ্যের বাঙালি রোহিঙ্গা।


“জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে বাঁচতে চাই”

চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩%


এ বিভাগের আরো খবর...

বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা
এখনই কেমিক্যাল গোডাউন সরানোর কাজ শুরু করা উচিত- আইজিপি এখনই কেমিক্যাল গোডাউন সরানোর কাজ শুরু করা উচিত- আইজিপি
চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড: শিক্ষা পেয়েছি, ব্যবস্থা হবে- কাদের চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড: শিক্ষা পেয়েছি, ব্যবস্থা হবে- কাদের
অগ্নিকাণ্ডে নিহত শ্রমিকদের জন্য ১ লাখ টাকা দেবে- শ্রম মন্ত্রণালয় অগ্নিকাণ্ডে নিহত শ্রমিকদের জন্য ১ লাখ টাকা দেবে- শ্রম মন্ত্রণালয়
সরকারের ব্যর্থতায় মানুষ অকারণে জীবন হারাচ্ছে- ফকরুল সরকারের ব্যর্থতায় মানুষ অকারণে জীবন হারাচ্ছে- ফকরুল
শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে মর্মান্তিক ঘটনায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে মর্মান্তিক ঘটনায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক
চকবাজারে ভয়াবহ আগুনে নিহত ৭০ চকবাজারে ভয়াবহ আগুনে নিহত ৭০
২ মাসের মধ্যে ৫ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ- স্বাস্থ্যমন্ত্রী ২ মাসের মধ্যে ৫ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ- স্বাস্থ্যমন্ত্রী
উ. কোরিয়াকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে তাড়াহুড়োর দরকার নেই: ট্রাম্প উ. কোরিয়াকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে তাড়াহুড়োর দরকার নেই: ট্রাম্প

সর্বাধিক পঠিত

গেইলের ছক্কার বিশ্বরেকর্ড আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে গেইলের ছক্কার বিশ্বরেকর্ড আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে
আজহার, সৌরভ, কেউই ক্রিকেট চায় না পাকিস্তানের সঙ্গে আজহার, সৌরভ, কেউই ক্রিকেট চায় না পাকিস্তানের সঙ্গে
শাপলা-শালুক জামদানী শাপলা-শালুক জামদানী
সেন্টমার্টিনে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ, আটক ১১ সেন্টমার্টিনে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ, আটক ১১
মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার এভ্রিলকে সঙ্গে নিয়ে আসিফ মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার এভ্রিলকে সঙ্গে নিয়ে আসিফ
অভিনেতা প্রতীক বব্বর স্ত্রীর সঙ্গে অর্ধনগ্ন ছবি পোষ্ট করে বিপাকে অভিনেতা প্রতীক বব্বর স্ত্রীর সঙ্গে অর্ধনগ্ন ছবি পোষ্ট করে বিপাকে
আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি) আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি)
কিম কার্দাশিয়ান উন্মুক্ত দেহে ঝড় তুললেন! কিম কার্দাশিয়ান উন্মুক্ত দেহে ঝড় তুললেন!
বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা
এবার ইয়ামিকে দেখা যাবে বিকিনিতে এবার ইয়ামিকে দেখা যাবে বিকিনিতে
প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে!
খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই
৫ জনই ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?