ঢাকা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » খেলাধুলা » টেস্টে ক্যাপ্টেন হওয়ার পর ধোনির কৃর্তী ফাঁস করলেন লক্ষ্মণ!
রবিবার ● ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

টেস্টে ক্যাপ্টেন হওয়ার পর ধোনির কৃর্তী ফাঁস করলেন লক্ষ্মণ!

---বিবিসি২৪নিউজ,স্পোর্টস ডেস্ক: অনিল কুম্বলে সদ্য বিদায় জানিয়েছেন ক্রিকেটকে।সেটা ২০০৮ সাল। তাঁর জায়গায় টেস্টে অধিনায়ক ঘোষিত হয়েছেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। আর পাকাপাকি অধিনায়ক হওয়ার পর নাগপুরে প্রথম টেস্টেই এক অদ্ভুত কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন তিনি। টিমবাস নিজেই চালিয়ে ফিরেছিলেন হোটেলে!

সদ্য প্রকাশিত হয়েছে ভিভিএস লক্ষ্মণের আত্মজীবনী ‘২৮১ অ্যান্ড বিয়ন্ড’। তাতেই লক্ষ্মণ এই ঘটনার কথা জানিয়েছেন। ঘটনাচক্রে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেই টেস্ট ছিল লক্ষ্মণের শততম টেস্ট।

লক্ষ্মণ লিখেছেন, “আমার শততম টেস্টে নাগপুরে ধোনির টিমবাস চালিয়ে হোটেলে ফেরার মুহূর্তের স্মৃতি চিরস্থায়ী রয়ে গিয়েছে। নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। দলের অধিনায়ক কিনা মাঠ থেকে টিমবাস চালিয়ে হোটেলে ফিরছে। অনিল কুম্বলের অবসরের পর এটাই ছিল অধিনায়ক নিযুক্ত হওয়ার পর ধোনির প্রথম টেস্ট। কিন্তু ধোনির কোনও দিকে ভ্রুক্ষেপ ছিল না। ও কারওরই পরোয়া করেনি। আসলে ধোনি এমনই। মজার মজার কাণ্ড ঘটাত। জমিতে পা রেখে চলত। এমএস কখনই এই স্বভাব হারায়নি।ওঁর মতো কাউকে আর দেখিনি।”
২০১১ সালে খারাপ সময় চলছিল লক্ষ্মণের। রান পাচ্ছিলেন না। বিদেশে টেস্ট সিরিজ হারছিল ভারত। সেই সময়ও ধোনিকে মাথা গরম করতে দেখেননি তিনি। লক্ষ্ণণ লিখেছেন, “ধোনির প্রশান্ত মানসিকতা ও মনের স্থিরতা অবিশ্বাস্য। ২০১১ সালের ইংল্যান্ড সফরের আগে পর্যন্ত ধোনি শুধু সাফল্যই দেখে এসেছে। কিন্তু ইংল্যান্ডে আমরা ০-৪ ফলে টেস্ট সিরিজ হেরে যাই। বছরের শেষে অস্ট্রেলিয়াতেও হেরে বসি। আরও একটা হোয়াইটওয়াশের দিকে এগোচ্ছিলাম। কিন্তু এমএস একেবারে শান্ত ছিল। একবারও মাথা গরম করেনি। ও যে ক্রিকেটারদের নিয়ে রীতিমতো হতাশ ও অসহায়, তা বুঝতে দেয়নি কখনই।”

লক্ষ্মণ আরও লিখেছেন, “নিজেকে স্থিরমস্তিষ্ক মনে করতাম। কিন্তু, ধোনি বলেছিল, ‘কী হবে হতাশ হয়ে? এতে শুধু নিজের পারফরম্যান্সই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।’ এটা শুনে উপলব্ধি করলাম যে ধোনি ব্যাপারটাকে অন্য মাত্রায় নিয়ে গিয়েছে।” কেন ‘ক্যাপ্টেন কুল’ হয়ে উঠবেন এমএসডি, তার ইঙ্গিত তখনই পেয়ে গিয়েছিলেন লক্ষ্মণ।


চিলিতে তামা উৎপাদন ৭.৩%

ভারতে স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছে ১৭.৪ টন


এ বিভাগের আরো খবর...

আইপিএল এর নিলামে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ আইপিএল এর নিলামে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ
নেইমার-কাভানি-এমবাপ্পের গোলে সেরা- পিএসজি! নেইমার-কাভানি-এমবাপ্পের গোলে সেরা- পিএসজি!
টিভিতে আজকের খেলা সূচি টিভিতে আজকের খেলা সূচি
মাশরাফির স্মরণীয় ম্যাচে টাগারদের জয় মাশরাফির স্মরণীয় ম্যাচে টাগারদের জয়
মাশরাফি-মোস্তাফিজ উইন্ডিজকে ১৯৫ রানে বেঁধে রাখলেন মাশরাফি-মোস্তাফিজ উইন্ডিজকে ১৯৫ রানে বেঁধে রাখলেন
এস্পানিওলকে তাদেরই মাঠেই বিধ্বস্ত করল বার্সা এস্পানিওলকে তাদেরই মাঠেই বিধ্বস্ত করল বার্সা
মাশরাফিরা বছরের শেষ ওয়ানডে খেলতে মাঠে নামছেন মাশরাফিরা বছরের শেষ ওয়ানডে খেলতে মাঠে নামছেন
ফুটবলারদের নেশা করা নিয়ে বিতর্ক ফুটবলারদের নেশা করা নিয়ে বিতর্ক
বাংলাদেশ বিশ্বকাপের আগে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ বিশ্বকাপের আগে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে
ম্যাক্সওয়েল-ফিঞ্চ থাকছে না এবার আইপিএলে ম্যাক্সওয়েল-ফিঞ্চ থাকছে না এবার আইপিএলে

সর্বাধিক পঠিত

চার নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাকে চায় না- আওয়ামী লীগ চার নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাকে চায় না- আওয়ামী লীগ
কেউ বৈধ অস্ত্র প্রদর্শন ও বহন করতে পারবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেউ বৈধ অস্ত্র প্রদর্শন ও বহন করতে পারবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে- শেখ হাসিনা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে- শেখ হাসিনা
‘বিএনপি প্রথম দিনেই এক লাখ লোক মারবে- তোফায়েল ‘বিএনপি প্রথম দিনেই এক লাখ লোক মারবে- তোফায়েল
সিলেটে কামালসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতারা সিলেটে কামালসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতারা
অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদনের পথে চীন অপরিশোধিত ইস্পাত উৎপাদনের পথে চীন
বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শেখ হাসিনা
কিছুই করতে পারছেন না বলেই সিইসি অসহায় ও বিব্রত-  সেলিমা রহমান কিছুই করতে পারছেন না বলেই সিইসি অসহায় ও বিব্রত- সেলিমা রহমান
২ কর্মীকে খুন করেছে বিএনপি , প্রমাণও আছে- কাদের ২ কর্মীকে খুন করেছে বিএনপি , প্রমাণও আছে- কাদের
ভোটারদের মন জয় করতে নেমেছি: মির্জা আব্বাস ভোটারদের মন জয় করতে নেমেছি: মির্জা আব্বাস
জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাংক-আইএফসি ২২ বিলিয়ন ডলার দিবে
জলবায়ু পরিবর্তনের যুদ্ধে নারীর অংশগ্রহণ করতে হবে-প্যাট্রিসিয়া
বিএনপির দুটি আসনের পরিবর্তন
কলেজ শিক্ষক আলী হোসেন হত্যা দুইজনের ত্যুদণ্ড
নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ-গণতন্ত্রের জন্য ইতিবাচক
বহুল প্রত্যাশিত সংলাপে কি ছিল?
একটি অর্থবহ ও সফল সংলাপের প্রত্যাশা করছি
শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের: প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে কি?
নদীশাসনের দুর্বলতা বিঘ্নিত হচ্ছে নৌপথে চলাচল
শিল্পে গ্যাস সংযোগ না দেওয়া, আর্থিক ক্ষতির মুখে-সরকার