ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
---
bbc24news.com
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » জনতা ব্যাংকে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে
বৃহস্পতিবার ● ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

জনতা ব্যাংকে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে

---এমডি জালাল:অন্যতম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক জনতা ব্যাংকে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে। শুধু তাই নয়, ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও এমডির মধ্যে দ্বন্দ্ব এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, পর্ষদ সভায় খোদ চেয়ারম্যান এমডিকে অপসারণ করার প্রস্তাব তুলেছেন।যদিও পরিচালনা পর্ষদ এমডিকে অপসারণে রাজি হয়নি, তারপরও একটি ব্যাংকের শীর্ষ দুটি পদধারীর মধ্যে দ্বন্দ্বের কারণে কী ধরনের সমস্যা তৈরি হতে পারে, তা সহজেই অনুমেয়। এরই মধ্যে জনতা ব্যাংকের খেলাপি ঋণ ১১ মাসে ১১ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে।

বলা হচ্ছে, পরিচালনা পর্ষদের অদক্ষ চেয়ারম্যানের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে এমনটি হয়েছে। আমরা মনে করি, শুধু চেয়ারম্যানের একক স্বেচ্ছাচারিতা ও অনিয়মের কারণেই এমনটি হয়নি। ব্যাংকটির জ্যেষ্ঠ ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদেরও দায় এড়ানোর সুযোগ নেই।

জানা যায়, পরিচালনা পর্ষদের সঠিক দিকনির্দেশনা না পেয়ে প্রায় সব কটি সূচকেই পিছিয়ে পড়েছে জনতা ব্যাংক। এমনকি লাভজনক অবস্থা থেকে লোকসানে চলে গেছে ব্যাংকটি। বলার অপেক্ষা রাখে না, মাথায় পচন ধরলে গোটা শরীরে তার লক্ষণ দেখা দেয়।

এর আগে রাষ্ট্রায়ত্ত বেসিক ব্যাংকের মূলধনহীন হয়ে পড়াও এর একটি উদাহরণ। তারপরও জনতা ব্যাংকের ক্ষেত্রে আগাম সতর্ক ব্যবস্থা তো দূরের কথা, খোদ অর্থ মন্ত্রণালয় উদ্বেগ প্রকাশ করার পর এখনও কেন এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি তা বোধগম্য নয়।

আসলে দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা বিবেচনায় না নিয়ে শুধু রাজনৈতিক কারণে সরকারি ব্যাংকগুলোতে চেয়ারম্যান ও এমডি নিয়োগ দেয়ায় সৃষ্টি হচ্ছে এমন সমস্যা। সাময়িক সময়ের জন্য আসা এসব কর্মকর্তা ব্যাংকের স্বার্থের পরিবর্তে নিজেদের আখের গোছানোর কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

সরকারের শীর্ষ মহলের উচিত দেশের স্বার্থে, জনগণের কষ্টে উপার্জিত আমানত রক্ষার স্বার্থে সরকারি ব্যাংকগুলোর শীর্ষ পদগুলোতে দক্ষ ও যোগ্য পেশাদার কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেয়া।

বিভিন্ন সময়ে বিশেষজ্ঞরা এমন অভিমত দেয়ার পরও এ ক্ষেত্রে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ না নেয়াটা দুঃখজনক। অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক এবং সরকারের শীর্ষ মহলের উচিত ব্যাংকগুলোকে বাঁচাতে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া।

ব্যাংকে অনিয়ম-দুর্নীতি, ঋণখেলাপি, ঋণ জালিয়াতির মতো বিষয়গুলো আমাদের দেশে মহামারী আকার ধারণ করেছে। ২০১৭ ও ২০১৮ সাল তো ব্যাংক জালিয়াতির বছর হিসেবেই চিহ্নিত হয়েছে। পরিস্থিতি কত ভয়াবহ হলে এমনটি হতে পারে তা সহজেই অনুমেয়।

জনতা ব্যাংকের সর্বশেষ পরিস্থিতি হল, ঝুঁকিপূর্ণ সম্পদের বিপরীতে ১০ শতাংশ সম্পদ রাখার কথা থাকলেও আছে মাত্র ৫ শতাংশ। এ ছাড়া ভুয়া নথিতে ঋণ দেয়া, পারস্পরিক যোগসাজশে ঋণের নামে অর্থ লুটপাটের মতো অনিয়মও আছে। অন্যান্য সরকারি ব্যাংকের পরিস্থিতিও প্রায় একইরকম।

এসব ব্যাংকে অনিয়ম-দুর্নীতি শিকড় গেড়ে বসেছে। এ পরিস্থিতি থেকে বের হতে হলে ব্যাংকে শৃঙ্খলা ও সুশাসন ফেরাতে হবে। অনিয়মে জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে শাস্তির নজির তৈরি করতে হবে।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম-দুর্নীতি দূর করার জন্য একটি স্বাধীন ব্যাংকিং কমিশন গঠন করা যেতে পারে। আশার কথা, অর্থমন্ত্রী ব্যাংকিং খাতে অনিয়ম-দুর্নীতি সহ্য করা হবে না বলে জানিয়েছেন। দেশের অর্থনীতি তথা সার্বিক উন্নয়নের স্বার্থে এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে, এটাই প্রত্যাশা।


যশোরের শার্শা উপজেলায় পুষ্টি সমম্বয় কমিটি’র দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

কাশ্মীরে গাড়িবহরে হামলায় ১৮ সেনা নিহত


এ বিভাগের আরো খবর...

প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে! প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে!
খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই
জনতা ব্যাংকে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে জনতা ব্যাংকে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে
খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল ও ক্ষতিকর উপাদান রোধে নিতে হবে কঠোর পদক্ষেপ! খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল ও ক্ষতিকর উপাদান রোধে নিতে হবে কঠোর পদক্ষেপ!
পুলিশ সপ্তাহের পর প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিফলন কতটুকু ঘটবে? পুলিশ সপ্তাহের পর প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিফলন কতটুকু ঘটবে?
স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি: আমলে নিতে হবে? স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি: আমলে নিতে হবে?
নতুন মুদ্রানীতিতে কি হতে পারে? নতুন মুদ্রানীতিতে কি হতে পারে?
কর্মস্থলে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতি শাস্তিযোগ্য আপরাধ! কর্মস্থলে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতি শাস্তিযোগ্য আপরাধ!
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন

সর্বাধিক পঠিত

গেইলের ছক্কার বিশ্বরেকর্ড আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে গেইলের ছক্কার বিশ্বরেকর্ড আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে
আজহার, সৌরভ, কেউই ক্রিকেট চায় না পাকিস্তানের সঙ্গে আজহার, সৌরভ, কেউই ক্রিকেট চায় না পাকিস্তানের সঙ্গে
শাপলা-শালুক জামদানী শাপলা-শালুক জামদানী
সেন্টমার্টিনে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ, আটক ১১ সেন্টমার্টিনে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ, আটক ১১
মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার এভ্রিলকে সঙ্গে নিয়ে আসিফ মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার এভ্রিলকে সঙ্গে নিয়ে আসিফ
অভিনেতা প্রতীক বব্বর স্ত্রীর সঙ্গে অর্ধনগ্ন ছবি পোষ্ট করে বিপাকে অভিনেতা প্রতীক বব্বর স্ত্রীর সঙ্গে অর্ধনগ্ন ছবি পোষ্ট করে বিপাকে
আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি) আমাদের প্রিয় ‘আই আর’…চৌধুরী মনজুর লিয়াকত (রুমি)
কিম কার্দাশিয়ান উন্মুক্ত দেহে ঝড় তুললেন! কিম কার্দাশিয়ান উন্মুক্ত দেহে ঝড় তুললেন!
বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা বাংলাদেশের অগ্নিকান্ডে - মমতার সমবেদনা
এবার ইয়ামিকে দেখা যাবে বিকিনিতে এবার ইয়ামিকে দেখা যাবে বিকিনিতে
প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর উন্নয়ন- কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার হবে!
খেলাপি ঋণে ‘জিরো টলারেন্স’ চাই
৫ জনই ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা
দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রকৃত অর্থেই নিতে হবে জিরো টলারেন্স
বেআইনি ব্যাংকিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে বহুমুখী পদক্ষেপ নিন
খাদ্যে অতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাটের কারণে, প্রতি বছর বিশ্বে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়
স্বাধীনতার পর প্রথমবার ‘মন্ত্রীশূন্য’ কিশোরগঞ্জ
মন চুরির অভিযোগ পুলিশের কাছে!
সৈয়দ আশরাফ যে কবরে সমাহিত হবেন
ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের বাধা দূর করতে হবে?