শিরোনাম:
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

BBC24 News
রবিবার, ৫ জুলাই ২০২০
প্রথম পাতা » শিরোনাম | শিল্প বাণিজ্য | সাবলিড » বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের বাণিজ্য শুরু
প্রথম পাতা » শিরোনাম | শিল্প বাণিজ্য | সাবলিড » বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের বাণিজ্য শুরু
৬৯৬ বার পঠিত
রবিবার, ৫ জুলাই ২০২০
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের বাণিজ্য শুরু

---বিবিসি২৪নিউজ,বেনাপোল প্রতিনিধি :১ জুলাই বেনাপোল বন্দর বন্ধ হয়ে যাওয়া ভারত-বাংলাদেশের বাণিজ্য আবারও শুরু হয়েছে। দেশের বৃহত্তম স্থলবন্দর বেনাপোল দিয়ে দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস পর ভারতে রফতানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে । এদিন বিকেল সাড়ে পাঁচটার সময় রফতানির জন্য দাঁড়িয়ে থাকা বাংলাদেশি পণ্যবাহী ট্রাকগুলো ভারতের পেট্রাপোল সীমান্তে রফতানির উদ্দেশে প্রবেশ শুরু করে।

বন্দরের একটি সূত্র জানায়, ভারতীয় পক্ষ সুযোগ পেলেই নানা ছুঁতোয় বাংলাদেশি পণ্য গ্রহণের ক্ষেত্রে নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে। এবারে করোনাভাইরাসের কারণে তারা তাদের পণ্য রফতানি করছিল। কিন্তু, সেই ভাইরাসের অজুহাতেই নিরাপত্তা ইস্যু দেখিয়ে বাংলাদেশি পণ্য গ্রহণ করছিল না। ফলে তাদের একচেটিয়া বাণিজ্য চলছিল। আর বাংলাদেশি রফতানিকারকরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিলেন। কিন্তু, তাদের পণ্য আমদানি করা গেলে আমাদের পণ্য রফতানি কেন নয়? ফলে বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘ বৈঠক হয়েছে। অবশেষে তারা বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের তোলা দাবিগুলো আলোচনার বৈঠকে মেনে নিয়েছেন।

বেনাপোল বন্দরের একাধিক ব্যবসায়ী জানান, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বিস্তাররোধে ভারত সরকারের দেওয়া একের পর এক লকডাউনের কারণে গত ২২ মার্চ থেকে দু’দেশের মধ্যে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ ছিল। বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠন ও উভয় দেশের বন্দর কর্তৃপক্ষ দফায় দফায় বৈঠক করে এক পর্যায়ে গত ৭ জুন থেকে আমদানি বাণিজ্য সচল করলেও ভারত বাংলাদেশ থেকে রফতানি পণ্য নিতে রাজি হচ্ছিল না। শুরুর দিকে ভারতের একতরফা বাণিজ্য মেনে নিলেও টানা দেড় সপ্তাহেও ভারতের আমদানি পণ্যের ব্যাপারে আগ্রহ না দেখে বিষয়টা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বাংলাদেশি রফতানিকারক ব্যবসায়ীরা। কারণ, টানা তিন মাস ধরে রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে এদেশের রফতানি পণ্যের মান অক্ষত রাখাও কঠিন হচ্ছিল। তাছাড়া প্রতিনিয়ত বাড়ছিল ট্রাকভাড়াসহ নানা ধরনের খরচ। এরপর বেনাপোল বন্দর ব্যবহারকারীদের সঙ্গে রফতানিকারকরা আলোচনা করে সবাই মিলে ঐকমত্যে আসে ভারত বাংলাদেশি রফতানি পণ্য নিতে না চাইলে দেশটির আমদানি পণ্য আর গ্রহণ করা হবে না। বিষয়টি ভারতীয় পক্ষকে জানিয়ে দেওয়া হলে দুদেশের ব্যবসায়ে হঠাৎ করেই স্থবিরতা নেমে আসে। গত বুধবার (০১ জুলাই) সকাল থেকে দু-দেশের মধ্যে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ হয়ে যায়।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আলহাজ মফিজুর রহমান সজন জানান, ভারত আমদানি পণ্য দিলেও তারা বাংলাদেশি রফতানি পণ্য গ্রহণ করছিলেন না। যার জন্য রফতানিকারক ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে আসা আমদানি বাণিজ্য গত ১ জুলাই সকাল থেকে বন্ধের ঘোষণা দেয়। আলাপ আলোচনা করে দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস পর আজ থেকে ভারত বাংলাদেশি রফতানি পণ্য নিচ্ছে। তিনি জানান, বাংলাদেশি রফতানি পণ্য ভারতে ঢুকতে না পেরে মোটা অংকের ট্রাক ভাড়া গুনতে হচ্ছিল রফতানিকারকদের।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক মামুন কবীর তরফদার জানান, দুপক্ষের দীর্ঘ আলোচনার পর আজ থেকে রফতানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে। আগামীকাল থেকে যথারীতি ভারত থেকে আমদানি বাণিজ্যও চালু হবে বলে আশা করা যায়।

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস ওয়েলফেয়ার স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে বাংলাদেশি রফতানি পণ্য নেওয়া হচ্ছিল না। বিশেষ নিরাপত্তা ও দু’দেশের বন্দর কর্তৃপক্ষের ফলপ্রসূ আলোচনার এক পর্যায়ে রফতানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে।



আর্কাইভ

আশুরা মিছিলে নাইজেরিয়ার সেনাদের হামলা; বহু হতাহত
ঢাকা ভাঙারির দোকানে বিস্ফোরণ, মৃত্যু বেড়ে ৬
ট্রাম্পের বাসায় এফবিআইয়ের অভিযান
তাজিয়া মিছিল হোসেনি দালান থেকে শুরু
যুক্তরাষ্ট্রে- বাংলাদেশের পোশাক রফতানি বেড়েছে
ডলারের দাম ছাড়াল ১১৫ টাকা
ইউক্রেনের পরমাণু স্থাপনায় রাশিয়ার হামলা আত্মঘাতী তৎপরতা: জাতিসংঘ
বিশ্ববাজারে কমলো জ্বালানি তেলের দাম
বঙ্গমাতা রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পত্মী হয়েও ছিলেন বাঙালি মায়ের চিরন্তন প্রতিচ্ছবি: রাষ্ট্রপতি
ক্ষমতার জৌলুস আমার মাকে আকৃষ্ট করতে পারেনি: প্রধানমন্ত্রী