শিরোনাম:
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

BBC24 News
সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২
প্রথম পাতা » প্রিয়দেশ | রাজনীতি | শিরোনাম | সাবলিড » বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী আর নেই
প্রথম পাতা » প্রিয়দেশ | রাজনীতি | শিরোনাম | সাবলিড » বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী আর নেই
১২৭ বার পঠিত
সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী আর নেই

---বিবিসি২৪নিউজ,নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকাঃ দেশের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী আর নেই। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। রবিবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাত ১১টা ৪০ মিনিটে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

রবিবার রাতে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া এ তথ্য নি‌শ্চিত ক‌রে‌ছেন।

সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক জানিয়েছেন।

তবে সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর ছেলে শাহদাব আকবর চৌধুরী লাবু গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সোমবার সংসদে জানাজা শেষে তাকে নিজ বাড়ি নগরকান্দায় নেওয়া হবে। পরে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে। রাতে মরদেহ সিএমএইচে থাকবে।

গত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ঢাকা সিএমএইচ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ফরিদপুর-২ (নগরকান্দা, সালতা ও সদরপুর আংশিক) আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। তার অবস্থার ভালোর দিকে থাকায় গত ৫ সেপ্টেম্বর তাকে হাসপাতাল ত্যাগের অনুমতি দেওয়ার কথা ভাবছিলেন চিকিৎসকরা। কিন্তু হঠাৎই সেদিন তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। একপর্যায়ে স্বাভাবিক জ্ঞানেও ছিলেন না তিনি।

১৯৫৬ সাল থেকে সাজেদা চৌধুরী আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ১৯৬৯-১৯৭৫ সময়কালে তিনি বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধকালীন কলকাতা গোবরা নার্সিং ক্যাম্পের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ছিলেন তিনি। ১৯৭১ সালে তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। ১৯৭২-১৯৭৫ সময়কালে বাংলাদেশ নারী পুনর্বাসন বোর্ডের পরিচালক, ১৯৭২-১৯৭৬ সময়কালে বাংলাদেশ গার্ল গাইডসের ন্যাশনাল কমিশনার এবং বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের পর ১৯৭৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
১৯৮৬ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, ১৯৯২ সাল থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি জাতীয় সংসদের উপনেতা হন।

সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী ১৯৩৫ সালের ৮ মে মাগুরা জেলার মামার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম সৈয়দ শাহ হামিদ উল্লাহ ও মা সৈয়দা আছিয়া খাতুন। সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর মরদেহ জাতীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হবে। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) ফরিদপুরের নগরকান্দায় নিজ এলাকায় জানাজা শেষে ফিরিয়ে এনে বিকাল ৩টার দিকে শহীদ মিনারে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত কর্মকর্তা বেনজীর আহমেদ রায়হান।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। কিছুদিন আগে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয় তাকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার রাত ১১টা ১০ মিনিটে মারা যান তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। রাতে তার মরদেহ সিএমএইচেই রাখা হয়েছিল।

সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী ফরিদপুর-২ (নগরকান্দা) আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন তিনি। তার মরদেহ সিএমএইচ থেকে নিজ এলাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। বেনজীর আহমেদ সকালে বলেন, মরহুমের মরদেহ কিছুক্ষণের মধ্যে ফরিদপুরের উদ্দেশে যাত্রা করবে। সেখানে নগরকান্দা উপজেলার এম এন একাডেমি মাঠে সকাল ১১টায় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, ফরিদপুর থেকে মরদেহ ঢাকায় ফিরিয়ে এনে বিকাল ৩টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হবে। বাদ আছর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে মরহুমের দ্বিতীয় জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হবে।

মরহুমের মরদেহ ফরিদপুরে সড়ক পথে নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।



আর্কাইভ

জাপানি কূটনীতিককে বহিষ্কার করলো রাশিয়া
বিশ্বকাপে বাংলাদেশ
করতোয়া নৌকাডুবিতে মৃত্যু বেড়ে ২৪
ওয়াশিংটন ডিসি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
জাতিসংঘ অধিবেশনে বাংলাদেশের অবস্থান আরও সুদৃঢ় হয়েছে
বাংলাদেশের শূন্য রেখায় মিয়ানমারের জঙ্গি বিমান বোমা গুলি
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান
ইউক্রেন যুদ্ধ শেষ করতে আগ্রহী পুতিন: এরদোয়ান
বাংলাদেশে আরাকান আর্মি ও আরসার ঘাঁটি আছে, মিয়ানমারের অভিযোগ : ঢাকার প্রত্যাখ্যান
রানির বিশেষ অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া জনতার ভীর