শিরোনাম:
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০

BBC24 News
বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » মহাসড়কে কেন মরণখেলা
প্রথম পাতা » সম্পাদকীয় » মহাসড়কে কেন মরণখেলা
৩৫২ বার পঠিত
বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

মহাসড়কে কেন মরণখেলা

---আশরাফ আলী: আইনের প্রয়োগ ও শৃঙ্খলার অভাবে দেশের সড়ক-মহাসড়কে প্রতিদিনই ঘটছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। এ বিষয়ে বহুল আলোচিত সমস্যাগুলোর সমাধানে কর্তৃপক্ষের জোরালো তৎপরতা দৃশ্যমান নয়।

বর্তমানে সড়ক-মহাসড়কে চলাচল এতটাই বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে যে, একজন যাত্রী ঘর থেকে বের হওয়ার পর ঘরে ফেরা পর্যন্ত স্বজনদের উৎকণ্ঠায় থাকতে হয়। সড়ক কতটা বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে, সোমবার রাজধানীর গুলিস্তানের একটি দুর্ঘটনায় তা আবারও স্পষ্ট হলো।

চিকিৎসা নিতে বাসা থেকে বের হয়ে সেদিন দুই বাসের রেষারেষিতে প্রাণ গেছে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের হালিমা বেগমের। একটি বাসের ধাক্কায় সড়কে পড়ে যাওয়ার পরমুহূর্তের মধ্যেই আরেকটি বাস তাকে চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে দুপুরের দিকে মারা যান তিনি। বস্তুত দেশের সড়ক-মহাসড়কগুলোয় এখন চলছে রীতিমতো মরণখেলা। একটি সংগঠনের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, দেশে গত সেপ্টেম্বরে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৭৬ জন নিহত এবং ৭৯৪ জন আহত হয়েছেন।

নিহতদের ৩৫ শতাংশের বেশি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার শিকার। উদ্বেগজনক হলো, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক-ইউটিউবে দর্শক বাড়াতেও চলছে গতির প্রতিযোগিতা। মোটরসাইকেল, প্রাইভেট কার ছাড়াও দূরপাল্লার বাসের চালক-হেলপারদের নামানো হচ্ছে এসব প্রতিযোগিতায়। রেসের ভিডিও ধারণ করে ইন্টারনেটে ছেড়ে দিয়ে একশ্রেণির তরুণ আর্থিকভাবে লাভবান হলেও চরম ঝুঁকিতে রয়েছেন যাত্রীরা। এ ধরনের অরাজকতা কঠোরভাবে প্রতিরোধ করা প্রয়োজন।

সড়ক-মহাসড়কগুলোয় বিশৃঙ্খলা কতটা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে, তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে কয়েকদিন আগে ফরিদপুরে ঘটে যাওয়া চলন্ত বাসের ভেতর বিদ্যুতের আস্ত একটি খুঁটি ঢুকে যাওয়ার ঘটনা। দেশের সড়ক-মহাসড়কে শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠার কাজটি কঠিন। তবে সংশ্লিষ্টরা পেশাদারির সঙ্গে দায়িত্ব পালন করলে আশা করা যায়, দেশে সড়ক দুর্ঘটনা কমে আসবে। যানবাহনের লাইসেন্স প্রদানে যাতে কোনোরকম দুর্নীতি না হয়, তা নিশ্চিত করতে হবে। সড়ক-মহাসড়ক ত্রুটিমুক্ত করতেও নিতে হবে কার্যকর পদক্ষেপ। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে আইনের প্রয়োগ, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দক্ষ চালক এবং সড়কে চলাচল উপযোগী ভালো মানের যানবাহন অবশ্যই প্রয়োজন। তবে একই সঙ্গে জনগণকেও হতে হবে সচেতন।



এ পাতার আরও খবর

সরকারকে খেলাপি ঋণের লাগাম টানতে হবে! সরকারকে খেলাপি ঋণের লাগাম টানতে হবে!
ইসরায়েল এমন এক জনগোষ্ঠীর ওপর প্রতিশোধ নিচ্ছে, যারা একেবারেই অসহায় ইসরায়েল এমন এক জনগোষ্ঠীর ওপর প্রতিশোধ নিচ্ছে, যারা একেবারেই অসহায়
নিত্যপণ্যের লাগামছাড়া দাম সরকারকে আমলে নিতে হবে? নিত্যপণ্যের লাগামছাড়া দাম সরকারকে আমলে নিতে হবে?
মার্কিন ভিসানীতি নিয়ে সম্পাদক পরিষদের চিঠির জবাবে যা বললেন পিটার হাস মার্কিন ভিসানীতি নিয়ে সম্পাদক পরিষদের চিঠির জবাবে যা বললেন পিটার হাস
হাসিনা-মোদি দ্বিপাক্ষিক বৈঠক: যা জানা গেছে? হাসিনা-মোদি দ্বিপাক্ষিক বৈঠক: যা জানা গেছে?
নগরবাসীর জীবনে স্বাচ্ছন্দ্য ও গতি আনুক এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নগরবাসীর জীবনে স্বাচ্ছন্দ্য ও গতি আনুক এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে
আগামী জাতীয় নির্বাচন: মার্কিন ভিসানীতি কতটা প্রভাব ফেলবে! আগামী জাতীয় নির্বাচন: মার্কিন ভিসানীতি কতটা প্রভাব ফেলবে!
ব্যাংকে তারল্য হ্রাসে- খেলাপি ঋণ আদায়ে গুরুত্ব দিন ব্যাংকে তারল্য হ্রাসে- খেলাপি ঋণ আদায়ে গুরুত্ব দিন
দেশে শিল্প খাতে উৎপাদন হ্রাস, সরকারের সহযোগিতা জরুরি দেশে শিল্প খাতে উৎপাদন হ্রাস, সরকারের সহযোগিতা জরুরি
হাসপাতালে বৈকালিক স্বাস্থ্যসেবা: কার্যক্রমটি চালুর বিষয়টি ইতিবাচক হাসপাতালে বৈকালিক স্বাস্থ্যসেবা: কার্যক্রমটি চালুর বিষয়টি ইতিবাচক

আর্কাইভ

কলেরা আতঙ্কে নরওয়ের প্রমোদতরিকে ভিড়তে দিল না মরিশাস
বাইডেনের চিঠির জবাব দিলেন শেখ হাসিনা
ইসরায়েলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে গায়ে আগুন দিলো মার্কিন বিমানসেনা
বাংলাদেশকে সহযোগিতা করবে কাতার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী
ইবাদত ও বন্দেগী পালিত হচ্ছে পবিত্র শবে বরাত
রাখাইনের রাজধানী নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে আরাকান আর্মি
সংরক্ষিত ৫০ নারী আসনে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী
মিয়ানমারে সৃষ্ট সংকট ভালো লক্ষণ নয়: ড. ইউনূস
ঢাকায় পৌঁছেছে মার্কিন প্রতিনিধিদল
রাশিয়ার পাঁচ শতাধিক ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা